ন্যাভিগেশন মেনু

দিনাজপুর প্রতিনিধি

দিনাজপুর প্রতিনিধি
May 21, 2024

খাদ্য,জেলার খবর

আর কয়েকদিন পরেই আসছে দিনাজপুরের লোভনীয় টসটসে লিচু

আর কয়েকদিন পরেই আসছে দিনাজপুরের লোভনীয় টসটসে লিচু

সারাদেশে স্বাদে ও রসে এগিয়ে দিনাজপুরের লিচু। টুকটুকে লাল রং আর রসালো স্বাদের জন্য দিনাজপুরের লিচুর কদর সর্বত্র। এর মধ্যে বেদানা লিচুর চাহিদা সব থেকে বশি। মৌসুম এলেই এই লিচুর জন্য অপেক্ষায় থাকেন সবাই। জানা গেছে, ৭ থেকে ১০ দিন পরে বাজারে আসবে দিনাজপুরের লিচু। গাছে গাছে সবুজ পাতার ফাঁকে উঁকি দিচ্ছে লালচে গোলাপি ও সুবজ রঙের লিচু। তবে এখনও অতিরিক্ত তাপদাহে গাছেই লিচু নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা করছে চাষিরা। কৃষি অফিসের পরামর্শে বাগানের গাছের গোড়ায় পানি ও লিচুর গাছে ছিটানো হচ্ছে কীটনাশক।লিচুর রাজ্য হিসেবে দিনাজপুরের আলাদা সুনাম রয়েছে। ১৩টি উপজেলাতেই কম বেশি লিচুর আবাদ হয়। সবচেয়ে বেশি চাষ হয় সদর উপজেলার মাসিমপুর, উলিপুর, আউলিয়াপুর, মহব্বতপুর, বিরলের মাধববাটি, করলা, রবিপুর, রাজারামপুর, মহেশপুর, বট হাট এবং চিরিরবন্দর-খানসামা উপজেলায়। ম‚লত লিচু চাষের জন্য উপযোগী এ অঞ্চলে লিচু চাষে কৃষকের আগ্রহও দিন দিন বাড়ছে।দিনাজপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর স‚ত্রে জানা গেছে, এ বছর দিনাজপুরে লিচু চাষে জমির পরিমাণ প্রায় পাঁচ হাজার ৪৮৯ হেক্টর। জেলায় লিচু বাগানের সংখ্যা চার হাজারের বেশি। প্রায় ১৩ উপজেলায় লিচু চাষ হলেও সদর, বিরল ও চিরিরবন্দর উপজেলায় লিচুর চাষ বেশি।সদর উপজেলার জয়দেবপুর গ্রামের লিচুচাষি ইদ্রিস আলি বলেন, আমার দুটি বাগানে শতাধিকের বেশি লিচু গাছ আছে। প্রত্যেকটি গাছে লিচুর ফলন মোটামুটি গতবছরের তুলনায় ভালো হয়েছে। ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে বাজারে তুলতে পারব। আশা করছি এবার লিচুর দাম ভালো পাব।একই এলাকার আরেক লিচু চাষি সুবাস মহন্ত বলেন, আমার বাগানে লিচুতে রং চলে আসছে। সামনের সপ্তাহে লিচু বাজারে বিক্রি করতে পারব। অতিরিক্ত গরমের কারণে লিচু ফেটে যেতে পারে। এখন লিচুর গাছে পরিচর্যা নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছি।চিরিরবন্দর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জোহারা সুলতানা বলেন, দিনাজপুরে লিচু বাজারে আসে মে মাসের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে। জেলার ১৩টি উপজেলায় লিচুর চাষ হলেও চিরিরবন্দর বিরল ও সদর উপজেলায় সবচেয়ে বেশি লিচু চাষ হয়। এ উপজেলায় প্রায় ৪৭৫ হেক্টর জমিতে লিচুর চাষ হয়েছে। আগাম জাতে লিচুর হিসেবে বাজারে আসবে মাদ্রাজি ও বোম্বাই তারপরে আসবে বেদানা, চায়না থ্রি ও কাঁঠালি।...


May 16, 2021

জেলার খবর

দিনাজপুরে গোবর ফেলা নিয়ে ঝগড়া, নিহত ১

দিনাজপুরে গোবর ফেলা নিয়ে ঝগড়া, নিহত ১

দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে ঈদুল ফিতরের দ্বিতীয় দিনে গরুর গোবর ফেলা নিয়ে দু’পক্ষের সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে তাজমুল ইসলাম (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত ৬ জনকে আটক করেছে পুলিশ।শনিবার (১৫ মে) সকাল ৬টার দিকে উপজেলার অমরপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর (ডাঙ্গাপাড়া) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। তাজেমুল ইসলাম ওই এলাকায় অফুর শাহ'র ছেলে।প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দুর্গাপুর এলাকার আজোম উদ্দীনের (৭০) সঙ্গে প্রতিবেশি ময়নুল ইসলামের (৬০) গরুর গোবর ফেলানোকে কেন্দ্র করে শুক্রবার ঈদের দিন বিকেলে ঝগড়া হয়। এর সূত্র ধরে শনিবার সকালে উভয়পক্ষের মধ্যে রাস্তার ওপরে বাগবিতন্ডার এক পর্যায়ে দেশিয় অস্ত্র নিয়ে তারা সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। এ সময় প্রতিবেশি রাজমিস্ত্রি তাজেমুল ইসলাম (৪০) ঝগড়া থামাতে এলে ময়নুল ইসলামের হাতে থাকা শাবলের আঘাতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।এ ঘটনায় প্রতিপক্ষ আজোম উদ্দীন (৭০), তার মেয়ে বুলবুলি আক্তার (৩২) ও নাতি সুমন ইসলাম (১৬) আহত হয়। আহতরা বর্তমানে দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ময়নুল ইসলাম (৫৫), শাহাজান আলী (৩০), শাহিন মিয়া (২৫), শাহানাজ বেগম (৪৫), সিরাজুল ইসলাম (৩২), মমতাজ বেগমকে (২৪) আটক করে।চিরিরবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এ ঘটনায় মৃত ব্যক্তির স্ত্রী উম্মে কুলসুম (৩২) বাদী হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। মামলায় ১০ জনের নাম উল্লেখসহ আরও অজ্ঞাত ২/৩ জনকে আসামি করা হয়েছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।এমএএস/এডিবি/...


Mar 01, 2021

জেলার খবর

দিনাজপুরে সওজ-এর প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম মোল্লার বিদায় সংবর্ধনা

দিনাজপুরে সওজ-এর প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম মোল্লার বিদায় সংবর্ধনা

দিনাজপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী (ফুলবাড়ী সড়ক উপ বিভাগ) মোঃ শফিকুল ইসলাম মোল্লার অবসরজনিত বিদায় সংবর্ধনা দেওয়া হয়েছে। রবিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় দিনাজপুর সড়ক বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সুনীতি চাকমা।এ সময় বক্তব্য রাখেন - বিদায়ী উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী মোঃ শফিকুল ইসলাম মোল্লা, প্রকৌশলী শফিউজ্জামান সরকার, মোঃ আফজালুল হক, সৈয়দ মাহফুজার রহমান, আব্দুল মান্নান সরকার, জান্নাতুল ফেরদৌস, মোঃ নূরে আলম সিদ্দিক, মোঃ আশরাফুল ইসলাম, মোঃ এখলাস হোসেন, রুহুল আমীন খান, শাহনুর রশীদ, গৌরাঙ্গ চন্দ্র বর্মণ, মোঃ মোমিন উদ্দীন, মোঃ মনিরুল হক, মোঃ আরিফুর রহমান প্রমূখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রকৌশলী মোঃ মমিনুর রহমান। পরে বিদায়ী উপ বিভাগীয় প্রকৌশলী মোঃ শফিকুল ইসলাম মোল্লাকে সড়ক বিভাগ এবং অফিসের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং ঠিকাদারদের পক্ষ থেকে সম্মাননা ক্রেষ্ট, উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়।এএস/এডিবি/...


Dec 23, 2019

জেলার খবর

দিনাজপুরে শ্রেষ্ঠ কৃষি কর্মকর্তার পদক পেলেন মাহমুদুল হাসান

দিনাজপুরে শ্রেষ্ঠ কৃষি কর্মকর্তার পদক পেলেন মাহমুদুল হাসান

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের যে সকল ব্যক্তিবর্গের নিরলস প্রচেষ্টায় এদেশের কৃষিতে বৈপ্লবিক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে তারই এক অসাধারণ ব্যক্তিত্ব কৃষিবিদ মোঃ মাহমুদুল হাসান।তিনি ২০১৯ সালে বাংলাদেশ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খামারবাড়ির পক্ষ থেকে দিনাজপুর জেলার শ্রেষ্ঠ কৃষি কর্মকর্তার পদক লাভ করেন। ২০১৬ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি তিনি দিনাজপুর জেলার চিরিরবন্দর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা হিসেবে যোগদানের পর থেকে এখানকার কৃষি ক্ষেত্রে এক বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনয়ন করেন। যার স্বীকৃতি স্বরুপ তাঁর এই পদক লাভ।গত ১৯ ডিসেম্বর দিনাজপুরে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের ডিএই এর শ্রেষ্ঠ কর্মকর্তা নির্বাচন-২০১৯ উপলক্ষে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর খামারবাড়ি কর্তৃক আয়োজিত পুরষ্কার ও সনদপত্র বিতরনী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে কৃষিবিদ মোঃ মাহমুদুল হাসানকে এ সম্মাননা প্রদান করেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কৃষিবিদ ড. মো. আবদুল মুঈদ।ডিজিটালাইজড লাগসই ও টেকসই আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি সম্প্রসারণের ক্ষেত্রে অসামান্য সাফল্য অর্জনকারী হিসাবে তাকে এ সম্মাননা প্রদান করা হয়।তাঁর দিক নির্দেশনায় শস্য ভান্ডার খ্যাত বৃহত্তর চিরিরবন্দর উপজেলার  কৃষিতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। কৃষিক্ষেত্রে এ সকল সাফল্যের মধ্যে তাঁর উল্লেখযোগ্য অবদান গুলো হলো-সুগন্ধি জাতের ধান ব্রিধান-৩৪, ৭০, ৭৫ ও  নতুন জাতের ধানের চাষ।আধুনিক পরিবেশ বান্ধব চাষাবাদ কৌশল ও প্রযুক্তি গ্রহনে ধানের ফলন বেশী হওয়ায় খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্নতায় ব্যাপক সফলতা অর্জন করেছেন। চিরিরবন্দর উপজেলায় দায়িত্ব পালনকালে কৃষি উন্নয়ন সম্পর্কিত সংবাদ ২৫৮টি বিভিন্ন দৈনিক, সাপ্তাহিক ও পাক্ষিক  স্থানীয় জাতীয় অনলাইন মিডিয়াতে প্রচার ও লিচু বাগান সম্প্রসারণ লিচু বাগানে মৌ বাক্স স্থাপন।উচ্চ মূল্যের ফসলের চাষ সম্প্রসারণ ও  উপজেলার তেতুঁলিয়া  ইউনিয়নে ফিয়াক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের ও বিভিন্ন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের  পরিদর্শন।এছাড়া তিন ফসলি জমিকে চার ফসলীতে রুপান্তর করে কৃষি জমির সর্বোত্তম ব্যবহারের অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন ও মানব স্বাস্থ্য সংরক্ষনার্থে তার দিক নির্দেশনায় বিষমুক্ত সবজি ও ফল উৎপাদনের লক্ষ্যে সেক্স ফেরোমেন ফাঁদ ব্যবহার সফলভাবে সম্প্রসারণ করেছেন।সর্বোপরি আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি ডিজিটাল পদ্ধতিতে সফলভাবে সম্প্রসারণের লক্ষ্যে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সকল উপ-সহকারি কৃষি অফিসারদের সাথে নিবিড় যোগাযোগ রক্ষা। কৃষকগণ সারাদিন মাঠে কর্মব্যস্ত থাকেন তাই মাঝে মাঝে বড় পর্দায় চিত্ত বিনোদনসহ আধুনিক কৃষি প্রযুক্তি প্রদর্শন করা।তারই উদ্যোগে চিরিরবন্দর উপজেলায় সকল কৃষি উপ-সহকারীদের ফেসবুকের...


Jun 19, 2019

জাতীয়

দিনাজপুরে মিলল উন্নতমানের লোহার খনি

দিনাজপুরে মিলল উন্নতমানের লোহার খনি

গ্যাস, চূনা পাথর  ও কয়লা খনির পর বাংলাদেশ এখন আরেকটি প্রাকৃতিকসম্পদ লোহার খনিতে সমৃদ্ধ হলো। দেশের উত্তর জনপদ দিনাজপুর জেলার হিলিতে দেশে প্রথম উন্নতমানের লোহার খনির সন্ধান পাওয়া গিয়েছে।বাংলাদেশ ভূতাত্ত্বিক অধিদপ্তর (জিএসবি) দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর  উপজেলার ইসবপুর গ্রামে এ খনির সন্ধান পেয়েছে। খনিটিতে উন্নত মানের লোহার আকরিক (ম্যাগনেটাইট) রয়েছে বলে জানিয়েছে জিএসবি।জিএসবির উপপরিচালক মোহাম্মদ মাসুম জানান,  দীর্ঘ দুই মাস ধরে কূপ খনন করে অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর আজ মঙ্গলবার এ তথ্য জানান। লোহার পাশাপাশি খনিটিতে মূল্যবান কপার, নিকেল ও ক্রোমিয়ামেরও উপস্থিতি রয়েছে বলে জানান জিএসবি কর্মকর্তারা। ইতিমধ্যে সেখান থেকে লোহা ও চুম্বক জাতীয় পদার্থ পাওয়া গেছে, যা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। হাকিমপুর (হিলি) উপজেলার আলিহাট ইউনিয়নের ইশবপুর গ্রামে খনির সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে গত ১৯ এপ্রিল দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক ফিতা কেটে ড্রিলিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।বাংলাদেশ ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদফতরের (জিএসবি) ২২ সদস্যের একটি দল এই ড্রিলিং কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর আগে ২০১৩ সালে হাকিমপুর উপজেলার মুর্শিদপুর গ্রামে খনিজসম্পদ অনুসন্ধানে জরিপ কার্যক্রম চালায় বাংলাদেশ ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদফতর (জিএসবি)।সেখানে লোহার আকরিকের সন্ধান পায় অনুসন্ধানকারী দল, যা বাংলাদেশে প্রথম ছিল। এর ওপর ভিত্তি করেই দ্বিতীয় পর্যায়ের জরিপ কার্যক্রম চালাচ্ছে অনুসন্ধানকারী দল।এদিকে ড্রিলিং কার্যক্রমে অংশ নেওয়া টিম সূত্রে জানা গেছে, ভূপৃষ্ঠের এতো কাছে লোহার খনি আবিষ্কার দেশের মধ্যে এটাই হবে প্রথম। আর বিশ্বের মধ্যেও প্রথম ১০টির মধ্যে একটা ভালো অবস্থানে রয়েছে।এখন শুধু চূড়ান্ত রিপোর্টের অপেক্ষা। সব মিলিয়ে এখানে ভালো কিছু পাওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে জানিয়েছে ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদফতর কর্তৃপক্ষ।স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, লোহার খনির সম্ভাবনার বিষয়টি স্থানীয়ভাবে ইতিবাচক সাড়া তৈরি করেছে। এলাকাবাসী খননকাজে সহযোগিতা করছেন। এখানে যদি খনি পাওয়া যায় তাহলে স্থানীয় মানুষজনের সেখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে এবং এলাকার উন্নয়ন হবে।দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক বলেন, ‘আমাদের মাটির নিচে যে সম্পদটুকু রয়েছে সেটাকে যথাযথ ব্যবহারের জন্য আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা দেশে এ ধরনের অসংখ্য জরিপ করছেন। সেটা গ্যাসের জন্য করছেন, কয়লা ও পাথরের জন্য করছেন, বিভিন্ন সম্পদের জন্য ড্রিলিং করছেন।তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ...


Jun 19, 2019

জাতীয়

দিনাজপুরে মিলল উন্নতমানের লোহার খনি

দিনাজপুরে মিলল উন্নতমানের লোহার খনি

গ্যাস, চূনা পাথর  ও কয়লা খনির পর বাংলাদেশ এখন আরেকটি প্রাকৃতিকসম্পদ লোহার খনিতে সমৃদ্ধ হলো। দেশের উত্তর জনপদ দিনাজপুর জেলার হিলিতে দেশে প্রথম উন্নতমানের লোহার খনির সন্ধান পাওয়া গিয়েছে।বাংলাদেশ ভূতাত্ত্বিক অধিদপ্তর (জিএসবি) দিনাজপুর জেলার হাকিমপুর  উপজেলার ইসবপুর গ্রামে এ খনির সন্ধান পেয়েছে। খনিটিতে উন্নত মানের লোহার আকরিক (ম্যাগনেটাইট) রয়েছে বলে জানিয়েছে জিএসবি।জিএসবির উপপরিচালক মোহাম্মদ মাসুম জানান,  দীর্ঘ দুই মাস ধরে কূপ খনন করে অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর আজ মঙ্গলবার এ তথ্য জানান। লোহার পাশাপাশি খনিটিতে মূল্যবান কপার, নিকেল ও ক্রোমিয়ামেরও উপস্থিতি রয়েছে বলে জানান জিএসবি কর্মকর্তারা। ইতিমধ্যে সেখান থেকে লোহা ও চুম্বক জাতীয় পদার্থ পাওয়া গেছে, যা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। হাকিমপুর (হিলি) উপজেলার আলিহাট ইউনিয়নের ইশবপুর গ্রামে খনির সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে গত ১৯ এপ্রিল দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক ফিতা কেটে ড্রিলিং কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন।বাংলাদেশ ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদফতরের (জিএসবি) ২২ সদস্যের একটি দল এই ড্রিলিং কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এর আগে ২০১৩ সালে হাকিমপুর উপজেলার মুর্শিদপুর গ্রামে খনিজসম্পদ অনুসন্ধানে জরিপ কার্যক্রম চালায় বাংলাদেশ ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদফতর (জিএসবি)।সেখানে লোহার আকরিকের সন্ধান পায় অনুসন্ধানকারী দল, যা বাংলাদেশে প্রথম ছিল। এর ওপর ভিত্তি করেই দ্বিতীয় পর্যায়ের জরিপ কার্যক্রম চালাচ্ছে অনুসন্ধানকারী দল।এদিকে ড্রিলিং কার্যক্রমে অংশ নেওয়া টিম সূত্রে জানা গেছে, ভূপৃষ্ঠের এতো কাছে লোহার খনি আবিষ্কার দেশের মধ্যে এটাই হবে প্রথম। আর বিশ্বের মধ্যেও প্রথম ১০টির মধ্যে একটা ভালো অবস্থানে রয়েছে।এখন শুধু চূড়ান্ত রিপোর্টের অপেক্ষা। সব মিলিয়ে এখানে ভালো কিছু পাওয়ার সম্ভাবনা আছে বলে জানিয়েছে ভূতাত্ত্বিক জরিপ অধিদফতর কর্তৃপক্ষ।স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, লোহার খনির সম্ভাবনার বিষয়টি স্থানীয়ভাবে ইতিবাচক সাড়া তৈরি করেছে। এলাকাবাসী খননকাজে সহযোগিতা করছেন। এখানে যদি খনি পাওয়া যায় তাহলে স্থানীয় মানুষজনের সেখানে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে এবং এলাকার উন্নয়ন হবে।দিনাজপুর-৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক বলেন, ‘আমাদের মাটির নিচে যে সম্পদটুকু রয়েছে সেটাকে যথাযথ ব্যবহারের জন্য আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারা দেশে এ ধরনের অসংখ্য জরিপ করছেন। সেটা গ্যাসের জন্য করছেন, কয়লা ও পাথরের জন্য করছেন, বিভিন্ন সম্পদের জন্য ড্রিলিং করছেন।তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ...