NAVIGATION MENU

সুকুমার সরকার

সুকুমার সরকার
Sep 18, 2019

জাতীয়

ভোটার তালিকায় নাম, ৬০০ রোহিঙ্গার বিরুদ্ধে মামলা

ভোটার তালিকায় নাম, ৬০০ রোহিঙ্গার বিরুদ্ধে মামলা

তথ্য গোপন করে অবৈধভাবে ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করার অভিযোগে কক্সবাজারে ৬০০ রোহিঙ্গার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের অনুমতিবিহীন কম্পিউটার প্রোগ্রামের মাধ্যমে ডিজিটাল জালিয়াতি করে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশের নাগরিক তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করছে এ প্রতারক চক্রটি।ইতিমধ্যে চক্রটি কক্সবাজারের কয়েক হাজার রোহিঙ্গাকে নির্বাচন কমিশনের ডাটাবেসে সংযুক্ত করেছে। এর মধ্যে কক্সবাজার সদর উপজেলাতেই অন্তত ৬০০ রোহিঙ্গাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে নির্বাচন অফিস। এদের বিরুদ্ধে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় মামলা করা হয়েছে এবং ইতিমধ্যে তিন রোহিঙ্গাকে গ্রেফতারও করা হয়েছে।এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার শিমুল শর্মা। তিনি বাদী হয়ে গত ১৩ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার সদর থানায় একটি মামলা করেন। এ মামলায় পাঁচ রোহিঙ্গাকে গডফাদার হিসেবে উল্লেখ করে এজাহারে আসামি করা হয়েছে। আরো পড়ুনঃরোহিঙ্গা সংকট নিরসনে চিনকে নিয়ে নিউইয়র্কে মায়ানমারের সঙ্গে বৈঠকে বসছে ঢাকারোহিঙ্গাদের এনআইডি পাইয়ে দেয়া রহস্য উদঘাটনে ২ প্রশ্নবাকি আসামিদের অজ্ঞাতনামা তালিকায় রাখা হয়েছে। আসামিরা হল- কক্সবাজার পৌরসভার পশ্চিম নতুন বাহারছড়ার বাসিন্দা ইউসুফ আলীর ছেলে নুরুল ইসলাম নুরু, মৃত শহর মুল্লুকের ছেলে ইয়াসিন, টেকনাফ নয়াপাড়া মুছনি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের এইচ ব্লকের আবুল হাশেমের ছেলে আবদুল্লাহ, ওবায়দুল্লাহ(৩৭) এবং কক্সবাজার সদরের ইসলামাবাদ খোদাইবাড়ির মৃত ওলা মিয়ার ছেলে শামসুর রহমান।এদিকে এজাহারের প্রথম তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জাননিয়েছে পুলিশ। নাগরিক তালিকায় রোহিঙ্গাদের অন্তর্ভুক্তি যাচাই করতে গিয়ে নির্বাচন কমিশনের কাছে ডিজিটাল জালিয়াতির বিষয়টি ধরা পড়ে। চক্রটি ইতোমধ্যে অন্তত ৬০০ রোহিঙ্গাকে অবৈধভাবে নির্বাচন কমিশনের ডাটাবেসে সংযুক্ত ও কক্সবাজার সদর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় নিবন্ধনভুক্ত করেছে।কক্সবাজারের বাকি সাত উপজেলার নাগরিক তালিকাও যাচাই করা হচ্ছে। নির্বাচন কমিশন ধারণা করছে, রোহিঙ্গারা চিহ্নিত ও সংঘবদ্ধ একটি চক্রের সঙ্গে হাত করে জালিয়াতি ও প্রতারণার মাধ্যমে ভোটার হিসেবে তালিকাভুক্ত হচ্ছে।ইতোমধ্যে শুধু কক্সবাজার সদর উপজেলায় ৫৯৭ রোহিঙ্গা অবৈধ পন্থায় ভোটার তালিকাভুক্ত হয়েছে।এ প্রসঙ্গে কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার শিমুল শর্মা জানান, ভোটার তালিকা আইন ২০০৯ এর ১৮/১৯ লঙ্ঘন করায় বাংলাদেশে ভোটার হওয়া এসব রোহিঙ্গার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।মামলার বাদী শিমুল শর্মা আরও জানান, অভিযুক্তরা চট্টগ্রাম শহরের অজ্ঞাতনামা লোকজনের মাধ্যমে দীর্ঘদিন ধরে টাকার বিনিময়ে রোহিঙ্গা নাগরিকদের অবৈধ...


Sep 17, 2019

শিক্ষা

বাংলাদেশে এলে নিজের বাড়িতে এসেছি বলেই মনে হয়: শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়

বাংলাদেশে এলে নিজের বাড়িতে এসেছি বলেই মনে হয়: শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়

লেখক  শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়  বাংলাদেশ সফরে এসেছেন। এক সাহিত্য অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বাংলাদেশের প্রতি তাঁর ভালোবাসার কথা জানাতে গিয়ে স্মৃতিমেদুর হয়ে পড়েন বিশিষ্ট সাহিত্যিক। “আমি যখনই বাংলাদেশে আসি, তখনই নিজের বাড়িতে এসেছি বলে মনে হয়”, এমন মন্তব্যই করেন তিনি।সোমবার রাজধানী ঢাকার বাংলামোটরে বাতিঘর সাহিত্য কেন্দ্র আয়োজিত ‘আমার জীবন, আমার রচনা’ শীর্ষক এক আলোচনা অনুষ্ঠানে একথা বলেন বিশিষ্ট সাহিত্যিক শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়।অনুষ্ঠানে অংশ নেন বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। বাংলাদেশ প্রসঙ্গে উচ্ছ্বাসের সঙ্গে লেখক বলেন,  বহুবার বাংলাদেশে এসেছি, কখনো বাংলাদেশ এলে আরেক দেশে এসেছি বলে মনে হয়নি।ময়মনসিংহের আদিনিবাস নিয়ে বলতে গিয়ে স্মৃতিমেদুর হয়ে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় বলেন, ”ময়মনসিংহে গিয়েছিলাম, আগের মতো আর নেই। সেখানে আমাদের কাঁচামাটির বাড়ি ছিল। সেইগুলো এখন ইটের বাড়ি হয়ে গিয়েছে।বাড়ির সামনের বড় মাঠটাও নেই। জমিদার বাড়ি ছিল, সেটাও ঠিক নেই। একটি স্কুল ছিল সেটি খুঁজে পেয়েছিলাম। ছোটবেলায় আমরা যে ব্রহ্মপুত্রে স্নান করতাম, সাঁতরে বেড়াতাম ওটা এখন চর হয়ে গিয়েছে।ব্রহ্মপুত্র এখন একটি অসুস্থ নদ। দূরে আমাদের একটি পাকা বাড়ি আজ হসপিটাল।” শৈশবের স্মৃতি রোমন্থন করে শীর্ষেন্দু বলেন, “আমি ছেলেবেলা থেকেই দুরন্ত ছিলাম। মা আমাকে সামলাতে পারতেন না। সারাদিন খালি ছোটাছুটি করে বেড়াতাম। ছোটবেলায় আমাকে নুনো বলে ডাকতো সবাই।”অনুষ্ঠানে শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়ের হাতে তুলে দেওয়া হয় তার পোর্ট্রেট। শীর্ষেন্দু বলেন, পশ্চিমবঙ্গের তুলনায় বাংলাদেশে পাঠকের সংখ্যা প্রায় ৫-৭ গুণ বেশি। পাশাপাশি বাংলাদেশে বইয়ের কালোবাজারি প্রসঙ্গে নিজের অসন্তুষ্টিও প্রকাশ করেছেন তিনি। লেখক হয়ে ওঠার নেপথ্যকাহিনি জানতে চাইলে ঔপন্যাসিক বলেন, ছেলেবেলা থেকেই বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের বই বেশি পড়তাম। সেখান থেকেই আমার ভাষার দখল আসতে শুরু করে। এরপর থেকে লেখালেখিও শুরু করলাম।তবে ১৬-১৭ বছর বয়সে কোচবিহারের বোর্ডিংয়ে আমাকে পাঠানো হলো। তখন থেকেই ভালোভাবে লেখালেখি শুরু করি। ১৭ থেকে ১৮ বছর আমার বোর্ডিংয়ে কেটেছে, সেই সময় আমার মাথায় লেখার ভাবনা আসা শুরু করল। চেষ্টা করে একটি গল্পও ছাপা হল। এরপর থেকে নিয়মিত হয়ে গেলাম। এটা আমার কল্পনারও অতীত ছিল।আমাদের দেশে লেখকদের বাজার সেরকম নেই। তবে সমরেশ সমরেশ মজুমদার এটাকে পেশা হিসেবে নিয়েছিলেন। অর্থ উপার্জন করার জন্য আমি কখনও লিখব, এটা চিন্তাই করিনি।এক্ষেত্রে...


Sep 15, 2019

জাতীয়

দিল্লিতে ৫ অক্টোবর মোদী-হাসিনা বৈঠক

দিল্লিতে ৫ অক্টোবর মোদী-হাসিনা বৈঠক

দিল্লিতে আগামী ৫ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মধ্যে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে।ইনডিয়ান ইকনোমিক ফোরামে যোগ দিতে আগামী ৩ অক্টোবর ভারতের উদ্দেশে রওনা হবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।টানা তৃতীয় মেয়াদে সরকার গঠনের পর এটাই হবে ভারতে তার প্রথম সফর। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন রবিবার সাংবাদিকদের বলেন, ৩ থেকে ৫ অক্টোবর ইনডিয়ান ইকনোমিক ফোরামে যোগ দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।দ্বিপক্ষীয় বৈঠকটি হবে ৫ অক্টোবর।    চিনে বাংলাদেশের পরবর্তী রাষ্ট্রদূত মাহবুব উজ জামানের দেওয়া এক মধ্যাহ্নভোজের অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্কোন্নয়নের দিকে ইংগিত করে তিনি বলেন, আসামের নাগরিকপঞ্জির বিষয়ে ভারতের প্রতিশ্রুতিতে ‘আস্থা’ রেখেছে বাংলাদেশ।নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ পড়া ১৯ লাখ মানুষকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে বলে দেশটির ক্ষমতাসীন দল বিজেপি নেতারা জানালেও সরকারিভাবে বলা হচ্ছে, নাগরিকপঞ্জি একান্তই ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়।হাসিনা-মোদী বৈঠকে কী কী বিষয় আসতে পারে, সে বিষয়ে কোনো ধারণা দেননি মোমেন। তিনি বছেন, সার্বিকভাবে সবকিছুই সেখানে আসবে।...


Sep 15, 2019

বিশ্ব সংবাদ

সৌদির তেল কারখানায় ড্রোন হামলার দায় স্বীকার ইয়েমেনের হাউতি জঙ্গিগোষ্ঠীর

সৌদির তেল কারখানায় ড্রোন হামলার দায় স্বীকার ইয়েমেনের হাউতি জঙ্গিগোষ্ঠীর

সৌদি আরবের তেল উত্তোলনকারী সংস্থা ‘সৌদি আরামকো’র উপর ড্রোন হামলার দায় স্বীকার করল ইয়েমেনের হাউতি জঙ্গিদল৷ শনিবার ভোর চারটে নাগাদ আচমকা আকাশপথে তেল উত্তোলনকারী সংস্থার বুকায়াক ও খুরাইস প্ল্যান্টের উপর বোমা ফেলে জঙ্গি গোষ্ঠীটি।হামলার জেরে ভয়াবহ বিস্ফোরণ হয় তেলের কনটেনারগুলিতে। আগুনের শিখা ও কালো ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়েছে এলাকার আকাশ। ঘটনায় কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি৷ অপরিশোধিত তেলের এই দু’টি প্ল্যান্টই বিশ্বের সবচেয়ে বৃহৎ তেল প্ল্যান্ট। প্রতিদিন এই প্ল্যান্টে প্রায় ৭০ লক্ষ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল তৈরি হয়।তার পর আরব উপসাগর ও ভূমধ্যসাগর দিয়ে বিভিন্ন দেশে রপতানি করা হয় সেই তেল। এর আগে ২০১৭ সালে সৌদি আরবের রাজপ্রাসাদ লক্ষ্য করে ব্যালিস্টিক মিসাইল ছুড়েছিল ইরানের মদতপুষ্ট ইয়েমেনের হাউতি সন্ত্রাসবাদীরা। তবে লক্ষ্যে পৌঁছনোর আগেই রিয়াধের রাজপ্রাসাদকে তাক করে ছুটে আসা সেই ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র মাঝপথে রুখে দিতে সক্ষম হয় সৌদি সেনাবাহিনী। কিন্তু এবার শেষরক্ষা হয়নি। লাগাতার বিস্ফোরণের জেরে ভয়াবহ আগুনে কার্যত নিশ্চিহ্ন সংস্থার গুরুত্বপূর্ণ ওই দু’টি কারখানা।সৌদির অভ্যন্তরীণ বিষয়ক মন্ত্রকের মুখপাত্রের বয়ান উদ্ধৃত করে সরকারি সংবাদ সংস্থা এসপিএ একথা জানিয়েছে। এই হামলার কিছউক্ষণের মধ্যেই দায় স্বীকার করেছে ইয়েমেনের হাউতি সন্ত্রাসবাদীরা।সম্প্রতি উপসাগরীয় দেশগুলির তেলের ট্যাঙ্কার লক্ষ্য করে ইরান হামলা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ করে আমেরিকা ও সৌদি আরবের।অন্যদিকে, এর আগে ২০০৬ সালের ফেব্রুয়ারিতে এই তেল সংস্থায় আত্মঘাতী হামলা চালানোর চেষ্টা করেছিল আল কায়দার জঙ্গিরা। সম্প্রতি ‘সৌদি আরামকো’কে নিজেদের পেট্রোপণ্য ব্যবসার ২০ শতাংশ শেয়ার বিক্রির কথা ঘোষণা করেন মুকেশ আম্বানি।প্রায় ৫৩ হাজার ৪৭০ কোটি টাকার চুক্তি হয়েছিল। চুক্তির শর্ত মেনে প্রতিদিন জামনগর শোধনাগারে পাঁচ লক্ষ ব্যারেল অশোধিত তেল পাঠায় আরামকো।...


Sep 13, 2019

অপরাধ

ফের গুলিযুদ্ধে ২ রোহিঙ্গা দুষ্কৃতী নিহত

ফের গুলিযুদ্ধে ২ রোহিঙ্গা দুষ্কৃতী নিহত

অপ্রতিরোধ্য রোহিঙ্গা দুষ্কৃতীরা। থামছেই না তাদের মাদক কারবরি ও সন্ত্রাসীপনা। কক্সবাজার জেলার স্থানীয়রা এখন তাদের বেপরোয়ার কারণে ভয়ে অস্থির।এতে নড়ে-চড়ে বসেছে সরকার। এখন কড়া নজরদারিতে পড়েছে রোহিঙ্গারা।ফের  কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের সঙ্গে ‘গুলিযুদ্ধে’ দুই রোহিঙ্গা দুষ্কৃতী নিহত হয়েছে।পুলিশ জানিয়েছে, নিহতরা সন্ত্রাসী এবং হ্নীলার জাদিমুরা রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন পাহাড়ি এলাকার শাসকদলের ফ্রন্ট যুবলিগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা মামলার অন্যতম আসামি।   বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাত ১২টার দিকে এ গুলিযুদ্ধ ঘটে। নিহতরা হল- নয়াপড়া রেজিস্ট্রার্ড রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ৮৩৮ নম্বর বাসার একনম্বর কক্ষের জমির আহম্মদের ছেলে মো. আব্দুল করিম (২৪) ও একই ক্যাম্পের ৮৮০ নম্বর বাসার ১/২ নম্বর বাসার সৈয়দ হোসেনের ছেলে নেছার আহম্মদ ওরফে নেছার ডাকাত। দুইজনের বাড়ি-ই মায়ানমারের আকিয়াবের মংডুর বুচিদং এলাকায়। টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, যুবলিগ নেতা ওমর ফারুক হত্যা মামলার কয়েকজন আসামি জাদিমুরা রোহিঙ্গা শিবিরের শিশুবান্ধব কেন্দ্রের পেছনে পাহাড়ের উপরে পানির ট্যাংকের পাশে অবস্থান করছে- এমন গোপন খবরে সেখানে অভিযান চালানো হয়। কিন্তু উপস্থিত টের পেয়েই অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে থাকে। এতে ঘটনাস্থলে এএসআই কাজী সাইফ উদ্দিন, কনস্টেবল নাবিল ও রবিউল ইসলাম আহত হন। এ সময় আত্মরক্ষায় পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে ২৮ রাউন্ড গুলি বিনিময় হয়েছে। এক পর্যায়ে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে ঘটনাস্থলে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় দুইজনকে পাওয়া যায়। আশপাশে তল্লাশি চালানো হলে ঘটনাস্থল থেকে দুইটি বন্দুক,   তাজা কার্তুজ পাওয়া গেছে।তিনি জানান, গুলিবিদ্ধ দুইজনকে প্রথমে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে সেখান থেকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাদের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। গত ২২ আগস্ট রাতে হ্নীলার জাদিমুরায় বাড়ির সামনে যুবলিগ নেতা ওমর ফারুককে হত্যা করে রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা। এ মামলার আসামিদের মধ্যে দুর্ধর্ষ ডাকাত নূর মোহাম্মদসহ তিন সন্ত্রাসী পুলিশের সঙ্গে ‘গুলিযুদ্ধে’ নিহত হয়েছে। এ নিয়ে ওই মামলার পাঁচ আসামি গুলিযুদ্ধে নিহত হয়েছে।মাদক কারবারি হত: এদিকে দেশের পশ্চিমের জেলা কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মোল্লা তেঘরিয়া ক্যানাল পাড়ায় ‘গুলিযুদ্ধে’ মাদক কারবারী সুজন মালিথা (৩৫) নিহত...


Sep 12, 2019

অপরাধ

৩ রোহিঙ্গার নামে বাংলাদেশি পাসপোর্ট ইস্যু, ২ পুলিশকে শোকজ

৩ রোহিঙ্গার নামে বাংলাদেশি পাসপোর্ট ইস্যু, ২ পুলিশকে শোকজ

অভিযোগ ছিল দীর্ঘদিন ধরেই যে, রোহিঙ্গারা বাংলাদেশ থেকে পাসপোর্ট বানিয়ে ভারতসহ বিশ্বের নানা দেশে পাড়ি জমাচ্ছে। আর এ কাজে সহায়তা করছে কিছু বাংলাদেশি আর অসাধু পাসপোর্ট আধিকারীকরা।এবার হাতে-নাতে প্রমাণ মিলল নোয়াখালী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে। ওই অফিস থেকে তিন রোহিঙ্গা যুবকের নামে পাসপোর্ট ইস্যু করার বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে জেলা পুলিশ।এ পাসপোর্ট যাচাই-বাছাই করার (ভেরিফিকেশন) দায়িত্বে নিয়োজিত জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার (ডিএসবি) দুই কর্মকর্তা এএসআই নুরুল হুদা ও আবুল কালামকে শোকজ করা হয়েছে।বুধবার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করে পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন বলেন, জেলার সেনবাগ উপজেলার ঠিকানা ব্যবহার করে তিন রোহিঙ্গার বাংলাদেশি পাসপোর্ট নেওয়ার ঘটনায় তদন্ত শুরু করা হয়েছে।পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনে যে কর্মকর্তা দায়িত্বে ছিলেন, যারা সার্টিফিকেট সৃজন এবং সত্যায়ন করেছেন প্রত্যেকটি বিষয়ে তদন্ত চলছে।বিশেষ শাখার (ডিএসবি) কর্মকর্তা এএসআই নুরুল হুদা রোহিঙ্গা দুই ভাই মোহাম্মদ ইউসুফ ও মোহাম্মদ মুসা এবং এএসআই আবুল কালাম অপর রোহিঙ্গা যুবক মোহাম্মদ আজিজের পাসপোর্ট ভেরিফিকেশন কাজে নিয়োজিত ছিলেন।তাদেরকে শোকজ নোটিশ দেয়া হয়েছে।পুলিশ সুপার আরো জানান, জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপারকে এর তদন্তভার দেয়া হয়েছে। এ ঘটনার পিছনে জড়িত প্রত্যেককে চিহ্নিত করা হবে। তদন্ত শেষে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। গত বৃহস্পতিবার (৬ সেপ্টেন্বর) বাংলাদেশি পাসপোটধারী তিন রোহিঙ্গা যুবককে চট্টগ্রামের আকবরশাহ থানা এলাকা থেকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে।পুলিশের কাছে তারা স্বীকার করে দালাল ধরে নোয়াখালী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস থেকে পাসপোর্ট করিয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত তিনজনের মধ্যে মোহাম্মদ ইউসুফ (২৩) ও তার ছোট ভাই মোহাম্মদ মুসার (২০) বাড়ি মিয়ানমারের মংডুর দুমবাইয়ে এবং মোহাম্মদ আজিজ ওরফে আইয়াজের (২১) বাড়ি মংডুর টালিপাড়ায়।২০১৭ সালে আরাকানে মায়ানমারের সেনাবাহিনীর অভিযান শুরুর পর তারা পালিয়ে এসে কক্সবাজারের উখিয়ায় খাইয়াংখালী হাকিমপাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে থাকছে। এদিকে নোয়াখালী আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ নুরুল হুদা জানান, জেলা ডিএসবি আবেদনপত্র যাচাই-বাছাই করে রিপোর্ট দেয়ার পরই সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির নামে পাসপোর্ট ইস্যু করা হয়। তিন রোহিঙ্গা যুবককে পাসপোর্ট প্রদানের বিষয়ে তদন্ত চলছে। এ ঘটনায় তার অফিসের কেউ জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।  তবে ভবিষতে এমন ঘটনা যেন না ঘটে তার জন্য...


Sep 11, 2019

অপরাধ

ঢাকায় বড় ধরণের নাশকতার আগেই আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ৩ সদস্য পাকড়াও

ঢাকায় বড় ধরণের নাশকতার আগেই আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ৩ সদস্য পাকড়াও

রাজধানী ঢাকায় বড় ধরণের নাশকতা ঘটানোর আগেই আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের তিন সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।পুলিশের অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটের (এটিইউ) একটি দল রাজধানীর উত্তরা ৭ নম্বর সেক্টরের বাস কাউন্টারের সামনে থেকে তাদের আটক করে। আটককৃতরা হল- মো. রাসেল হোসেন (২১), জুয়েল মাহমুদ ওরফে ইমাম মাহমুদ (২৬) ও আবু জাফর সোহেল (৩৬)।আটককৃত রাসেলের বাড়ি পাবনা জেলার সাঁথিয়া। সে রাজশাহীর ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব ইঞ্জিনিয়ারিং টেকনোলজির ছাত্র। ইমাম মাহমুদের বাড়ি নাটোরের বাগাতিপাড়া। অপর সদস্য রাসেল রাজধানীর খিলগাঁও সিপাহীবাগের বাসিন্দা।আটককৃতরা আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের সক্রিয় সদস্য এবং বাংলাদেশে খিলাফত প্রতিষ্ঠার জন্য তারা তহবিল সংগ্রহ এবং কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল। তারা বড় ধরনের নাশকতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সংগঠিত হয়। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।...


Sep 11, 2019

জাতীয়

ধর্ষকের সঙ্গে বিয়ে নিয়ে শোরগোল পাবনায়

ধর্ষকের সঙ্গে বিয়ে নিয়ে শোরগোল পাবনায়

ধর্ষকের সঙ্গে ধর্ষিতার বিয়ে দেওয়া নিয়ে পাবনায় তুমুল শোরগোল পড়েছে। আর এ বিয়ের উদ্যোক্তা হচ্ছেন পাবনা সদর থানার ওসি ওবাইদুল হক। ধর্ষণের শিকার ওই মহিলার স্বামী আছেন৷ এ নিয়ে  গত   ৫ সেপ্টেম্বর পাবনা সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন ধর্ষিতা৷ পুলিশ অভিযুক্তদের মধ্যে রাসেল নামে একজনকে আটক করে৷ পরে ওসি ওবাইদুল হকের মধ্যস্থতায় পাবনা সদর থানায় রাসেলের সাথে ওই নারীর বিয়ে দিয়ে ধর্ষণের ঘটনা ধামাপাচাপ দেয়ার চেষ্টা করা হয়৷বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশের পর সোমবার ওসিকে শোকজ করে একটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে৷ মঙ্গলবার অভিযুক্ত রাসেলকে আটক দেখিয়েছে পুলিশ৷ ধর্ষিতা গৃহবধূর ভাই অভিযোগ বলেন, গত ‘৫ সেপ্টেম্বর রাতে তার বোনকে নিয়ে থানায় মামলা করতে গেলে ওসি তার মেডিক্যাল পরীক্ষাসহ অন্যান্য আইনগত বিষয় নিয়ে কথা বলে বোনকে থানায় রেখে আমাদের পরদিন আসতে বলেন৷কিন্তু পরদিন ওসি আমাদের ফোন করে বলেন, মামলা করার দরকার নেই কারণ রাসেলের সাথে তার বোনের বিয়ে দিয়ে দিয়েছেন৷ অথচ আমার বোনের স্বামী আছে, তিন সন্তান আছে৷ওসি বলেছেন, ওই নারীকে আত্মহত্যা থেকে বাঁচাতে বিয়ে দেয়া হয়েছে। এচাড়া ওসি ওবাইদুল হক এ বিষয়ে আর কোনো মন্তব্য করতে রাজী হননি৷ তিনি বলেন, ‘আমি কোনো কথা বলব না, আমার বিষয়টি স্যারেরা দেখছেন।...


Sep 11, 2019

জাতীয়

রোহিঙ্গা শিবির এলাকায় থ্রিজি-ফোরজি বন্ধ ঘোষণা

রোহিঙ্গা শিবির এলাকায় থ্রিজি-ফোরজি বন্ধ ঘোষণা

কক্সবাজারের টেকনাফ ও উখিয়ার রোহিঙ্গা শিবির সংলগ্ন এলাকায় দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা থ্রিজি ও ফোরজি অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।সংস্থাটি এ পদক্ষেপ নিতে সোমবার রাতে মোবাইল ফোন অপারেটরগুলোকে নির্দেশ দেয়। এরপর গতকাল মঙ্গলবার অপারেটরগুলো তা কার্যকর করে।বিটিআরসির জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক (গণমাধ্যম( জাকির হোসেন খান বলেন, জাতীয়  নিরাপত্তার স্বার্থে কমিশন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।রোহিঙ্গারা নানাভাবে সিম সংগ্রহ করে মুঠোফোন ব্যবহার করছে—এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিটিআরসি গত ৩ সেপ্টেম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় বিকাল ৫টা থেকে ভোর ৬টা পর্যন্ত ১৩ ঘণ্টা থ্রিজি ও ফোরজি সেবা বন্ধের নির্দেশ দেয়। এরপর তা পুরো সময়ের জন্য বন্ধের নির্দেশ এল। থ্রিজি-ফোরজি পুরোপুরি বন্ধের ফলে ওই এলাকার আর দ্রুতগতির মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে না।...


Sep 09, 2019

জাতীয়

রোহিঙ্গা সংকট জাতিসংঘের অধিবেশনে গুরুত্ব পাবে বলে আশা সংস্থাটির প্রাক্তন উপ-মহাসচিবের

রোহিঙ্গা সংকট জাতিসংঘের অধিবেশনে গুরুত্ব পাবে বলে আশা সংস্থাটির প্রাক্তন উপ-মহাসচিবের

রোহিঙ্গা সংকট বাংলাদেশের জন্য বড় একটি বোঝা। এই বিষয়টি জাতিসংঘের আসন্ন সাধারণ অধিবেশনে গুরুত্ব পাবে বলে আশা করছেন সংস্থাটির প্রাক্তন উপ-মহাসচিব লর্ড জর্জ মার্ক মালোক ব্রাউন। তিনি বলেন, শরণার্থী সংকট বিশ্বজুড়েই আছে। তবে এ মুহুর্তে গত দুবছর ধরে বাংলাদেশ বিপুল সংখ্যক শরনার্থীর বোঝা মাথায় নিয়ে চলেছে। ঢাকায় এক সেমিনারে লর্ড জর্জ মার্ক মালোক ব্রাউন এ কথা বলেন।এদিকে কিছু উগ্রপন্থী রোহিঙ্গার সাম্প্রতিক কার্যকলাপে সরকার উদ্বিগ্ন। তারা শিবির এলাকায় খুন-খারাপি থেকে শুরু করে মেয়েদের শ্লীলতাহানী, যুবতীদের দিয়ে দেহব্যবসা ও বিদেশে পাচার, তোলাবাজী করে থাকে।এদের একটি অংশ পাকিস্তানের আইএসআই ও জামাতীদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে উগ্রপন্থার সঙ্গে সম্পৃক্ত। এজন্য  রোহিঙ্গাদের নিয়ে ধীরে ধীরে হার্ডলাইনে যাচ্ছে  সরকার।ঢাকায় কসমস ফাউন্ডেশন আয়োজিত ‘বাংলাদেশের জন্য জাতিসংঘের প্রয়োজনীয়তা :অংশদারিত্বের পরিভাষণ’ শিরোনামের সেমিনারে আরো বক্তব্য রাখেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, প্রাক্তন তদারকি সরকারের উপদেষ্টা ড. ইফতেখার আহমেদ চৌধুরী, কসমস ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এনায়েতুল্লা খান এবং বিদেশ সচিব শহীদুল হক।অনুষ্ঠানে ঢাকায় নিযুক্ত জাতিসংঘের আবাসিক প্রতিনিধি মিয়া সেপ্পোসহ সাবেক কূটনীতিক, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ব্যবসায়ী এবং পেশাজীবীরা উপস্থিত ছিলেন। লর্ড জর্জ মার্ক মালোক ব্রাউন বলেন, শরণার্থী সংকট বিশ্ব জুড়েই আছে। ইউরোপেও এ সংকট আছে। কিন্তু রোহিঙ্গা সংকট বাংলাদেশের জন্য অবশ্যই বড় বোঝা। কারণ ইউরোপের ধনী দেশগুলোই শরণার্থী সংকট নিয়ে দুশ্চিন্তার মধ্যে রয়েছে। তিনি আশা করেন, জাতিসংঘের অধিবেশনে এই বিষয়টি বিশেষ গুরুত্ব পাবে। তিনি আরো বলেন, জাতিসংঘ যে উদ্দেশ্যে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল তার অনেকটা পূরণ হয়েছে।যদিও অনেক ক্ষেত্রে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের ভূমিকা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। সেমিনারে পরিকল্পনামন্ত্রী মান্নান বলেন, বাংলাদেশের ক্ষেত্রে জাতিসংঘের ভূমিকা অনস্বীকার্য। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, অসমের জাতীয় তালিকা তৈরি নিয়ে এখনই উদ্বিগ্ন হওয়ার মতো কিছু ঘটেনি। বিষয়টির উপর বাংলাদেশের নজর রয়েছে। তিনি বলেন, ভারতের মানুষ ভারতে থাকবে, মায়ানমারের মানুষ মায়ানমারে। আমাদের দেশে আমরা থাকব। আমরা কোন দেশের সঙ্গে সংঘাত চাই নাএদিকে রোহিঙ্গাদের নিয়ে ধীরে ধীরে হার্ডলাইনে যাচ্ছে শেখ হাসিনা সরকার। বিশেষ করে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন ভেস্তে যাওয়া ও উখিয়ায় গত ২৪ আগস্ট এক লাখ রোহিঙ্গার বিশাল সমাবেশ সরকারকে ভাবিয়ে তুলেছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে বেশ কয়েকটি বড় পদক্ষেপ নেওয়া...


Sep 07, 2019

বিনোদন

বিতর্কিত শিল্পী নোবেলের ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি নেই

বিতর্কিত শিল্পী নোবেলের ব্যক্তিগত ফেসবুক আইডি নেই

নিজস্ব প্রতিবেদন: পশ্চিমবঙ্গের জি বাংলার গানের শো ‘সা রে গা মা পা’র মাধ্যমে উঠে আসা বিতর্কিত শিল্পী বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত নিয়ে বাজে মন্তব্য করায় তাকে ঘিরে সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে নানান বিতর্ক হয়েছে।অবশ্য জাতীয় সঙ্গীত নিয়ে কথা বলার পর আর এসব বিতর্ক নিয়ে তিনি মুখ খোলেননি। তবে বৃহস্পতিবার রাতে একটি পোস্ট করেছেন নিজের ফেসবুক পেজে। তাতে সাফ জানালেন তার ব্যক্তিগত কোনও ফেসবুক আইডি নেই।তার পোস্টটি হুবহু তুলে দেওয়া হলো–আমার_কোন_ফেসবুক_আইডি_নেই!! আমার প্রাণপ্রিয় শ্রোতাবৃন্দ, আজ পর্যন্ত আনুমানিক প্রায় ১০ হাজারের উর্ধ্বে রিপোর্ট পাওয়ার পর এই ব্যাপারে কিছু না লিখলেই নয়। আমি ফেসবুকে কোন! কোন!! ব্যক্তিগত আইডি ব্যবহার করি না!! আমার কোন ফেইসবুক আইডি নেই!! শুধুমাত্র এই পেজটি আমি এবং আমার বন্ধুরা সরাসরি নিয়ন্ত্রন করি। একটি ইন্সটাগ্রাম আমি ব্যবহার করি –instagram.com/noblemanofficialbd অবশ্যই আপনারা আমার ইউটিউব চ্যানেলের ব্যাপারে জানেন।এছাড়া যত ধরণের পেইজ, আইডি এবং গ্রুপ রয়েছে, এর একটিও আমার দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় না। অনেকে অনেক ধরণের প্রতারণার স্বীকার হয়েছেন এবং হচ্ছেন।ভুল নিউজ দেয়া, আমার শ্রোতাদের সাথে বাজে ব্যবহার করা, আপত্তিকর ছবি চাওয়া, বিকাশ এবং ব্যাংকে টাকা চাওয়ার রিপোর্টও রয়েছে!আমি খুব আন্তরিকভাবে দুঃখিত যে আমি আপনাদের সবার সাথে ব্যক্তিগত সম্পর্ক ও কথোপকথন রাখতে পারি না।প্লিজ, আমাকে ক্ষমা করবেন। তবে কেউ এসব ফেক আইডি দ্বারা প্রতারিত হবেন না। আমি আবার বলছি, আমার কোন ফেসবুক আইডি নেই!!এস এস...


Sep 04, 2019

ব্যবসা-বাণিজ্য

বাণিজ্য-বিনিয়োগ সম্প্রসারণে টরন্টো ফোরামে বাংলাদেশ

বাণিজ্য-বিনিয়োগ সম্প্রসারণে টরন্টো ফোরামে বাংলাদেশ

বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল এবং অন্টারিও চেম্বার অব কমার্সের (ওসিসি) যৌথ ব্যবস্থাপনায় ৩ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার টরন্টো শহরে প্রথমবারের মত ‘বাংলাদেশ-কানাডা বাণিজ্য ফোরাম-২০১৯’ অনুষ্ঠিত হয়।এ ফোরোমে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সী এমপি ১৯ সদস্যের বাংলাদেশ বাণিজ্য প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। কানাডার সাথে বাংলাদেশের দ্বিপাক্ষিক  কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের পর এই প্রথম দুই দেশের মধ্যে এ ধরণের একটি বাণিজ্য ফোরাম অনুষ্ঠিত হল।ফোরামে উচ্চ পর্যায়ের ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও দুই দেশের সরকারি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বক্তৃতা, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সংক্রান্ত উপস্থাপনা, দুটি বিষয়ভিত্তিক প্যানেল আলোচনা, সমাপনী বক্তব্য ও গণমাধ্যমের সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠিত হয়।ফোরামে প্রথম প্যানেলের প্রতিপাদ্য বিষয় ছিল ‘কীভাবে কানাডা বাংলাদেশের সাথে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণ করতে পারে।  বাংলাদেশ সফটওয়্যার এবং তথ্য সেবা সংগঠন (বেসিস)এর সভাপতি সৈয়দ সাদাত আলমাস কবির এটি সঞ্চালনা করেন।দ্বিতীয় প্যানেলের আলোচ্য  বিষয় ছিল- ‘কীভাবে বাংলাদেশ কানাডার সাথে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণ করতে পারে’। এই প্যানেল আলোচনাটি সঞ্চালনা করেন ওসিসি প্রেসিডেন্ট রকো রসি।বাণিজ্য ফোরামে এফবিসিসিআই এবং ওসিসির মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক সাক্ষরিত হয় যা উভয় দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ইতিহাসে প্রথম। এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম এবং ওসিসি সভাপতি রকো রসি নিজ নিজ চেম্বারের পক্ষে এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন।ফোরামের অতিথি অন্টারিও প্রদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, কর্মসংস্থান ও বাণিজ্যমন্ত্রী ভিক্টর ফেডালি তার বক্তৃতায় বাংলাদেশের সাথে নিবিড়  অর্থনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের  উপর জোর দেন।তিনি বলেন যে, অন্টারিওর অগ্রাধিকার হল উদার অর্থনৈতিক নীতি গ্রহণের মাধ্যমে ব্যাপক কর্মসংস্থান সৃষ্টি, বাংলাদেশ যার অবারিত সুযোগ গ্রহণ করতে পারে। ফেডালি বলেন যে, দুই শীর্ষ চেম্বারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর একটি অভূতপূর্ব ঘটনা যা উভয় দেশের বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্পর্ককে  দৃঢ় ভিত্তির উপর প্রতিষ্ঠিত করবে।বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সি এমপি, বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী  নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ  ১০% জিডিপি প্রবৃদ্ধির দ্বারপ্রান্তে। তিনি বলেন, এ ফোরামের  উদ্দেশ্য হলো উভয় দেশের ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের মধ্যে সেতুবন্ধন স্থাপন করা, যাতে তারা একে অপরের সাথে ব্যবসা-বাণিজ্য সম্পর্কিত তথ্য আদান প্রদান  করতে পারে এবং তুলনামুলক সুবিধাজনক খাতগুলো চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়।বাণিজ্যমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন যে, প্রথমবারের মত আয়োজিত এ বাণিজ্য ফোরাম বাংলাদেশ-কানাডা...


Sep 01, 2019

জাতীয়

পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর

পবিত্র আশুরা ১০ সেপ্টেম্বর

১৪৪১ হিজরি সনের পবিত্র মুহাররম মাসের চাঁদ দেখা গেছে। আগামী ১০ সেপ্টেম্বর সারাদেশে উদযাপিত  হবে পবিত্র আশুরা।  জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১০ সেপ্টেম্বর সারাদেশে পবিত্র আশুরা উদযাপিত হবে।শনিবার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভাপতিত্ব করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ।রবিবার থেকে পবিত্র মহররম মাস গণনা শুরু হবে। সে প্রেক্ষিতে, আগামী ১০ মহররম অর্থাৎ ১০ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সারাদেশে পবিত্র আশুরা উদযাপিত হবে।সভায় উপস্থিত ছিলেন- মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের যুগ্ম সচিব মো. খলিলুর রহমান, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. জহির আহমদ, ওয়াক্ফ প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলাম, অতিরিক্ত প্রধান তথ্য কর্মকর্তা ফায়জুল হক, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সচিব কাজী নুরুল ইসলাম, সরকারি মাদ্রাসা- ই- আলিয়ার প্রিন্সিপাল অধ্যাপক মো. আলমগীর রহমান, বাংলাদেশ মহাকাশ গবেষণা ও দূর অনুধাবন প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান শাহ মোঃ মিজানুর রহমান, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো. আবদুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া সভায় বিশেষজ্ঞ আলেম-ওলামাগণও ।পবিত্র কোরআনে আছে , মহান আল্লাহ এই দিনটিতে পৃথিবী সৃষ্টি করেছেন এবং এ দিনেই পৃথিবী ধ্বংস করবেন।ঐতিহাসিক কারবালা প্রান্তরে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর দৌহিত্র হযরত ইমাম হোসাইন (রা.) সপরিবারে শাহাদাতবরণ করেন।ফলে আশুরার দিনে বিশ্বে সংঘটিত অলৌকিক অনেক ধর্মীয় ঘটনার কারণে মুসলমানদের কাছে ১০ মহররম বিশেষভাবে মহিমান্বিত।হিজরি সনের প্রথম মাস হচ্ছে মহররম। এ দিন শিয়ারা বিশেষভাবে আশুরা পালন করে।...


Sep 01, 2019

জাতীয়

ঢাকায় ভারতীয় বিমানবাহিনীর এয়ার মার্শাল আর ডি মাথুর

ঢাকায় ভারতীয় বিমানবাহিনীর এয়ার মার্শাল আর ডি মাথুর

পাঁচদিনের সফরে ঢাকায় এসেছেন ভারতীয় বিমানবাহিনীর ইস্টার্ন এয়ার কমান্ডের এয়ার অফিসার কমান্ডিং ইন চিফ, এয়ার মার্শাল আর ডি মাথুর এভিএসএম, ভিএসএম ।আজ রবিবার সকালে তিনি ঢাকায় পৌঁছান বলে জানিয়েছেন ঢাকার ভারতীয় দূতাবাস।এয়ার মার্শাল আর ডি মাথুর ১ থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশ সফরে থাকবেন। এয়ার মার্শালের সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন তার স্ত্রী শিপ্রা মাথুর ও একজন প্রতিনিধি।বাংলাদেশে ইস্টার্ন এয়ার কমান্ডের এয়ার অফিসার কমান্ডিং ইন চিফের ভারতের নিকটতম প্রতিবেশীর সঙ্গে প্রতিরক্ষা সহযোগিতার ক্ষেত্রে পারস্পরিক বিশ্বাস জোরদার করতে সহায়তা করবে ও দুই দেশের বিমানবাহিনীর মধ্যে বিদ্যমান ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক সুদৃঢ় করবে।  এয়ার মার্শাল আর ডি মাথুর সফরকালে বাংলাদেশের সেনা, নৌ ও বিমানবাহিনীর প্রধানসহ সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসারের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।  এছাড়া বাংলাদেশ বিমানবাহিনী অ্যাকাডেমি ও বিভিন্ন বিমানঘাঁটি পরিদর্শন করবেন তিনি।...


Sep 01, 2019

ব্যবসা-বাণিজ্য

কুড়িগ্রামে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা

কুড়িগ্রামে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভা

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলার সোনাহাট স্থলবন্দরে বাংলাদেশ ও ভারতের আমদানি ও রপ্তানিকারক সমিতি ব্যবসায়ীদের মধ্যে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। উভয় দেশের ব্যবসায়ীদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে এ সভায় আলোচনা হয়।মতবিনিময় সভায় বাংলাদেশের পক্ষে ১৩ জন ও ভারতের পক্ষে ১২ জন ব্যবসায়ী উপস্থিত ছিলেন।সোনাহাট স্থলবন্দর আমদানি ও রপ্তানিকারক সমিতির প্রধান উপদেষ্টা সরকার রকীব আহমেদ জানান, সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে বিভিন্ন পণ্য আমদানি-রপ্তানির ব্যাপারে সুযোগ-সুবিধা ও পণ্যের দর নিয়ে এ সভায় আলোচনা হয়।এছাড়া উভয় দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে সম্প্রীতি বাড়ানো ও অর্ডারকৃত মালমাল দ্রুত পাঠানোর বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়।...


Aug 30, 2019

জাতীয়

রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরায় জটিলতা,এনজিওগুলোকে দুষল ঢাকা

রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরায় জটিলতা,এনজিওগুলোকে দুষল ঢাকা

শেষ মুহূর্তে এসে তরী ডুবল। ২২ আগস্ট থেকে স্বদেশে রোহিঙ্গাদের ফেরার কথা ছিল। চলমান রোহিঙ্গা সংকট নিরসন হয়েও হল না। বাংলাদেশ এজন্য বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা – এনজিও এবং  মায়ানমারকে দুষল। এর আগে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে সরিয়ে নেয়ার নিতে গেলে এনজিওগুলো প্রতিবাদ জানায়। তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন সেখানে সুসজ্জিত ও আধুনিক হোটেল নেই। তাদের থাকার অসুবিধা হবে।তাই তারা বিরোধিতা করছে। যাইহোক, আবারো আশা নিয়ে আবারও মায়ানমারের সঙ্গে  বৈঠকে বসছে বাংলাদেশ। এ বৈঠকের মধ্যস্থতাকারী হিসেবে থাকবে চীন। বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন জানিয়েছেন,  কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কর্মরত বেসরকারি সংস্থাগুলোর (এনজিও) সমন্বয়কারী প্ল্যাটফর্মকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনবিরোধী ভূমিকার বিষয়ে সতর্ক করেছে সরকার।এনজিও প্ল্যাটফর্ম কোঅর্ডিনেশন'-এর কান্ট্রি কোঅর্ডিনেটর ডমিনিকা আরসেনিক বৃহস্পতিবার এনজিওবিষয়ক ব্যুরোর কার্যালয়ে সংস্থার মহাপরিচালকের সঙ্গে বৈঠক করতে গেলে এ বিষয়ে সতর্ক করা হয়। এ সময় সংস্থাগুলো দেশের প্রচলিত আইনবিরোধী কাজে লিপ্ত নয় বলেও তাদের পক্ষে জানানো হয়েছে।এনজিওবিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক কে এম আবদুস সালাম বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে কর্মরত 'এনজিও প্ল্যাটফর্ম কোঅর্ডিনেশন' থেকে তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল  এদিন তার কার্যালয়ে পূর্বনির্ধারিত বৈঠকে আসে। এ সময় তাদের রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনবিরোধী ভূমিকার বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে। তারা এ ধরনের কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত নয় বলে জানিয়েছে।তিনি আরও বলেন, কোনো এনজিও এ ধরনের কাজে জড়িত থাকলে তাদের বিষয়ে তথ্য দিতে স্থানীয় প্রশাসনকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। এ রকম কোনো তালিকা পেলে তাৎক্ষণিক সংশ্নিষ্ট এনজিওর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এনজিও ব্যুরোর রোহিঙ্গা সেলের আহ্বায়ক ও সংস্থার উপপরিচালক আবদুল্লাহ আল খায়রুম বলেন, ক্যাম্পে কর্মরত সব এনজিওর প্রতিনিধিদের নিয়ে ব্যুরোর সঙ্গে বৈঠকের প্রস্তাব এসেছে এনজিও প্ল্যাটফর্ম থেকে।এ বৈঠকে স্থানীয় প্রশাসন এবং শরণার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনের প্রতিনিধিকেও রাখতে বলেছি। রোহিঙ্গাদের নিরাপদ ও স্বেচ্ছা প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে গত ২১ আগস্ট বিবৃতি দিয়েছে ৬১টি সংস্থা।এ ক্ষেত্রে রোহিঙ্গাদের স্বেচ্ছা প্রত্যাবাসনের অধিকারের প্রতি সম্মান জানাতে তাগিদ দেওয়া হয়। মুক্তি এনজিওর ৬ প্রকল্প স্থগিত : রোহিঙ্গাদের জন্য 'ধারালো অস্ত্র' তৈরির অভিযোগ ওঠায় মুক্তি কক্সবাজার নামে একটি এনজিওর ছয়টি প্রকল্প সাময়িক বন্ধ করে দিয়েছে এনজিওবিষয়ক ব্যুরো।সম্প্রতি কক্সবাজারে শরণার্থী শিবিরে রোহিঙ্গাদের...


Aug 30, 2019

অপরাধ

কিশোরীকে গণধর্ষণ  ও হত্যার কথা স্বীকার প্রেমিকের

কিশোরীকে গণধর্ষণ ও হত্যার কথা স্বীকার প্রেমিকের

পঞ্চগড়ের মাদরাসা ছাত্রী আসমা আক্তারকে (১৭)  গণধর্ষণ  ও হত্যার কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে মামলার প্রধান আসামি এবং আসমার প্রেমিক মারুফ হাসান বাধন (১৭)। সে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার কথা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছে।একই সঙ্গে সেদিন ঠিক কী ঘটেছিল তাও জানিয়েছে পুলিশের কাছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বাধনকে পঞ্চগড় সদর থানা পুলিশ গ্রেপ্তার করে। যদিও বাধনের পরিবার বলছে, বাধন নিজের ইচ্ছায় পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পঞ্চগড়ের এক পুলিশ কর্মকর্তা জানান, প্রেমের সূত্র ধরে বাধন আসমাকে নিয়ে ১৮ আগস্ট পঞ্চগড় এক্সপ্রেসে করে রাতের বেলায় ঢাকার কমলাপুর রেলরেলওয়ে স্টেশনে পৌঁছে।সেখানে রাতের খাবার খাওয়ার পর স্টেশনের আশপাশের আবাসিক হোটেলগুলোতে থাকার চেষ্টা করে। কিন্তু পরিচয়পত্র না থাকায় এবং প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়ায় কেউ তাদের হোটেলে থাকতে দেয়নি। পরে বাধন ও আসমা বলাকা কমিউটারের একটি পরিত্যক্ত বগিতে উঠে শুয়ে পড়ে।এ সময় তাদের আপত্তিকর অবস্থায় দেখে ফেলে অপরিচিত চারজন যুবক। পরে বাধনকে পাশের বাগিতে নিয়ে বেঁধে রেখে আসমাকে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে পালিয়ে যায় তারা।পরে বাধনও সেখান থেকে পালিয়ে পঞ্চগড়ের উদ্দেশে রওনা হয়। পরদিন সকালে ওই পরিত্যক্ত বগি থেকে আসমার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এরপর থেকেই বাধন বিভিন্ন স্থানে আত্মগোপন করে। এই ঘটনার পর গত ২০ আগস্ট আসমার কাকা রাজু ইসলাম প্রেমিক মারুফ হাসান বাধনকে প্রধান আসামি করে ধর্ষণ ও হত্যা মামলা দায়ের করেন। আসমার ময়নাতদন্তেও প্রাথমিকভাবে ধর্ষণের পর হত্যা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এদিকে চারপাশে আসমা হত্যার বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্নভাবে ছড়িয়ে পড়ায় আতঙ্কিত হয়ে পড়ে বাধন।পুলিশের দাবি, গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে বাধনকে তারা গ্রেপ্তার করে। তবে কোথা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তা বলছে না। বাধনের মা বিলকিস বেগম বলেন, বাধন নিজেই পুলিশের কাছে ধরা দিয়েছে। বাধনের সঙ্গে ওই চার যুবকের যোগসূত্র আছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। বাধনকে কমলাপুর রেলওয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।পঞ্চগড় পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নাঈমুল হাছান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সুদর্শন রায় এবং পঞ্চগড় সদর থানার ওসি আবু আক্কাস আহমদ উপস্থিত ছিলেন। পঞ্চগড় পুলিশ...