NAVIGATION MENU

আগামী বছরের মাঝামাঝি ২৫ কোটি মানুষকে করোনার টিকা দেবে ভারত


আগামী বছরের মাঝামাঝি অর্থাৎ জুলাইয়ের মধ্যে ভারতের ২৫ কোটি মানুষকে করোনার টিকা পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে দেশটির সরকার। 

রবিবার (৩ অক্টোবর) ভারতে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন এ তথ্য জানিয়েছেন। করোনার প্রতিষেধক যাতে নিরপেক্ষভাবে বণ্টন হয়, সরকার তা সুনিশ্চিত করবে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

ভারতে সুস্থতার হার বাড়লেও দৈনিক সংক্রমণ এবং মৃত্যুর সংখ্যা এখনও বিশ্বের সবচেয়ে বেশি।

প্রতি রোববার সোশ্যাল মিডিয়ায় 'সানডে সংবাদ' অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেন হর্ষবর্ধন। এ দিন সেই অনুষ্ঠানে তিনি বলেছেন, আগামী জুলাইয়ের মধ্যে ১৩০ কোটি জনসংখ্যার মধ্যে ২৫ কোটির কাছে করোনার প্রতিষেধক পৌঁছে দেওয়াই লক্ষ্য সরকারের। তার জন্য ৪০-৫০ কোটি ডোজ হাতে পাচ্ছি আমরা। সবার মধ্যে সমানভাবে সেগুলো বণ্টন করা হবে।

তবে, প্রতিষেধক হাতে পৌঁছালে প্রথমে কাদের তা দেওয়া হবে, তা নিয়ে দ্বন্দ্ব রয়েছে। হর্ষবর্ধন জানান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তরফে রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলোকে একটি তালিকা তৈরি করতে বলা হয়েছে। প্রয়োজনীয়তা বুঝে কাদের ওপর আগে প্রতিষেধক প্রয়োগ করা উচিত, অক্টোবরের মধ্যে তা জানিয়ে দেবেন তারা। তবে সামনে থেকে করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করে চলেছেন যারা, সেই স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রাধান্য দেওয়া হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এ মুহূর্তে ভারতে করোনার তিনটি সম্ভাব্য প্রতিষেধকের ট্রায়াল চলছে, যার মধ্যে অন্যতম হলো কোভিশিল্ড। ইউনিভার্সিটি অব অক্সফোর্ড এবং ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা অ্যাস্ট্রাজেনেকা যৌথভাবে সেটি তৈরি করছে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় পর্যায়ের ট্রায়ালে রয়েছে প্রতিষেধকটি। তাতে সফল হলে সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া (এসআইআই) সেটি উৎপাদন করবে।

এডিবি/