ন্যাভিগেশন মেনু

আলমডাঙ্গায় শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষক গ্রেফতার


চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গায় এক শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে মাদরাসা শিক্ষক মাওলানা আব্দুস সালামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার রাত ৯টার সময় আলমডাঙ্গার মুন্সিগঞ্জে আজিজুল উলম কওমী মাদ্রাসা ও এতিমখানা লিল্লাহ বোডিং এ বলাৎকারের এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত মাওলানা আব্দুস সালাম ওই মাসরাসার শিক্ষক এবং একই উপজেলার অনুপনগর গ্রামের আমিরুল ইসলামের ছেলে। 


ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী জানায়, বেশ কিছুদিন আগে আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে গভীর রাতে মাদরাসার শৌচাগারের পাশে নিয়ে খারাপ কাজ করে হুজুর আব্দুস সালাম। এভাবে প্রায় ৭-৮ দিন আমাকে জোরপূর্বক এমন খারাপ কাজ করেছে৷ সব শেষ ঈদুল আজহা উপলক্ষে মাদরাসা ছুটির আগে করেছে। পরে বিষয়টি আমি আমার বাবা-মাকে বিস্তারিত জানিয়েছি।
ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর বাবা বলেন, ঈদের ছুটির পর ছেলে মাদরাসায় যেতে চাইছিল না। পরে চাপ দিলে ছেলে ভয়ে সব কিছু খুলে বলে। এরপরই বিষয়টি জানাজানি হয়।


ঘটনাটি জানার পর শনিবার রাতে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যরা মাদরাসায় যান। বিষয়টি টের পেয়ে অভিযুক্ত শিক্ষক মাওলানা আব্দুস সালাম পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয় লোকজন তাকে আটক করে গণধোলাই দেন৷ খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে অভিযুক্ত শিক্ষককে উদ্ধার করে থানায় নেয়। পরে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে আলমডাঙ্গা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপরই আটক শিক্ষককে পুলিশ গ্রেফতার দেখায়।


আলমডাঙ্গা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ গণি মিয়া বলেন, শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগে শিক্ষকের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।