NAVIGATION MENU

ঈদে বাড়িতেই বানিয়ে ফেলুন সুস্বাদু শাহি দুধসেমাই


হাতে বাকি মাত্র আর ১ দিন। শনিবার খুশির ঈদ। কিন্তু করোনার কারণে চলতি বছরে হয়তো প্রতিবারের মতো করে ঈদ উদযাপন করা সম্ভব হবে না। 

কিন্তু তাতে কী? নিজেদের মতো করে, পরিবার সঙ্গে আনন্দভাগ করে নেবেন সকলেই। আর সকলে একত্রিত হলে বাহারি মেনুর আয়োজন যে হবে, তা বলাই বাহু্ল্য। বর্তমান পরিস্থিতিতে নিশ্চয়ই বাড়িতেই বানাবেন ডেজার্টও। তবে আগে একনজরে দেখে নিন কয়েকটি রেসিপি।

শাহি দুধসেমাই:

উপকরণ: সেমাই-১০০ গ্রাম, দুধ-১ লিটার, কনডেন্সড মিল্ক-২৫০ গ্রাম, ছোট ছোট করে টুকরো করা খেজুর-৩ টেবিল চামচ, টুকরো করা কাঠবাদাম-২ টেবিল চামচ, কিশমিশ-৩ টেবিল চামচ, পেস্তা কুচি-২ টেবিল চামচ, এছাড়া লাগবে আন্দাজমতো গোলাপজল, এলাচগুঁড়ো, ঘি।

সেমাই:

পদ্ধতি: প্রথমে প্যানে ঘি গরম করে কাঠবাদাম, খেজুরকুচি আর কিশমিশ হালকা করে ভেজে নিতে হবে। এরপর হালকা ভাজতে হবে সেমাই। তারপর প্যানে তরল দুধ, কনডেন্সড মিল্ক ও ক্রিম দিয়ে ভাল করে ফোটাতে হবে। 

পুরোপুরি ফুটে যাওয়ার পর আগে ভেজে নেওয়া কাজু, খেজুর, কিশমিশ ও সেমাই ঢেলে দিতে হবে দুধে। আঁচ কমিয়ে মিনিট দশেক সেটাকে রান্না করতে হবে। ফুটে গেলে উপর থেকে ছড়িয়ে দিতে হবে গোলাপজল, এলাচগুঁড়ো। ব্যাস, তৈরি আপনার শাহি দুধসেমাই। নামানোর পর সাজানোর জন্য উপর থেকে ছড়িয়ে দিতে পারেন পেস্তা, কাঠবাদাম, কাজু।

ড্রাগন ফ্রুট প্যানকোটা:

উপকরণ: ড্রাগন ফল-এক কাপ, দুধ-২ কাপ, ক্রিম-১৫০ গ্রাম, চায়না গ্রাস-১০ গ্রাম, ভ্যানিলা এসেন্স-সামান্য, জল-এক কাপ ও স্বাদমতো চিনি।

পদ্ধতি: প্রথমে আধ কাপ জল গরম করে তাতে ছোট করে কাটা চায়না গ্রাস পুরোপুরি গলিয়ে নিতে হবে। মিক্সারে ড্রাগন ফল, স্বাদমতো চিনি আর আন্দাজমতো জল দিয়ে মিক্স করে নিতে হবে। এরপর কিছুটা গলানো চায়না গ্রাস আর ড্রাগন ফলের মিশ্রন একটা পাত্রে মিশিয়ে গরম করে নিন।

এরপর ছোট ছোট গ্লাস বা কাপে খানিকক্ষণ রেখে দিন ফ্রিজে। অন্য একটি পাত্রে তরল দুধ, ক্রিম, স্বাদমতো চিনি, ভ্যানিলা এসেন্স ও বাকি চায়না গ্রাস মিলিয়ে কিছুক্ষণ ফুটিয়ে নিন। ফ্রিজে রাখা ড্রাগন ফলের মিশ্রন জমে গেলে উপর থেকে দুধের মিশ্রণটি ঢেলে ফের ফ্রিজে রেখে দিন। পুরোপুরি জমে গেলেই তৈরি আপনার ড্রাগন ফ্রুট প্যানকোটা।

এস এস