NAVIGATION MENU

এবার দ: কোরিয়ায় সত্যিকারের মৎস্যকন্যা!


মৎস্যকন্যার কাহিনী কম-বেশি আমরা সবাই শুনেছি। এরা দেখতে মানুষের মতো আর কোমরের নিচের অংশ একেবারে মাছের মতো দেখতে। তবে বাস্তবে এদের উপস্থিতি নিয়ে রয়েছে নানা মতবাদ।

তবে দক্ষিণ কোরিয়ার জেজু দ্বীপে বসবাস করে বাস্তবের এই মৎস্যকন্যারা। এরা এখানে হেনিয়ো বা সাগরকন্যা নামেই পরিচিত।

হেনিয়োরা অগভীর সমুদ্রে ডুব দিয়ে ঝিনুক আর শঙ্খ সংগ্রহ করে। ঝিনুক আর শঙ্খ রপ্তানি করে যে অর্থ উপার্যিত হয়; তা দিয়ে চলে হেনিয়োদের সংসার।

নারীদের যেসব ঝিনুক আর শঙ্খ সংগ্রহ করে। সেগুলিকে চাহিদা অনুযায়ী বাজারে পৌঁছে দেন পুরুষরা। বর্তমানে এই দ্বীপে যারা ঝিনুক আর শঙ্খ সংগ্রহ করে তাদের বেশির ভাগেরই বয়স ৬০ বছরের বেশি।

এরা সমুদ্রের অন্তত ২০ মিটার (প্রায় ৬৬ ফুট) গভীরে গিয়ে পানির নিচে ২ মিনিটেরও বেশি সময় দম বন্ধ করে থাকতে পারেন। এদের সঙ্গে থাকে না কোনও অক্সিজেন সিলিন্ডারও।

এভাবেই দিনের পর দিন, ঘণ্টার পর ঘণ্টা সমুদ্রের প্রায় ৬৬ ফুট গভীরে ঝিনুক আর শঙ্খের খোঁজে কাটান হেনিয়োরা।

এ কাজে রয়েছে বেশ ঝুঁকিও সমুদ্রের তল দেশের পরিবেশ হঠাৎ করেই বদলে যায়। তাই এই কাজে প্রাণের ঝুঁকিও রয়েছে। এরআগে প্রতিকূল আবহাওয়ার কারণে ২০১৭ সালেও একজন হেনিয়োর মৃত্যু হয়েছিল।

এমআইআর / এস এস

আপডেট নিউজ পেতে ভিজিট করুন - আজকের বাংলাদেশ পোস্ট