NAVIGATION MENU

কক্সবাজারে মাদ্রাসা শিক্ষক কর্তৃক ৯ বছরের ছাত্রী ধর্ষণ


কক্সবাজারের টেকনাফের বাহারছড়া উত্তর শিলখালী আলহেরা ইবতেদায়ী নুরানি মাদ্রাসার এক রোহিঙ্গা শিক্ষকের বিরুদ্ধে ৯ বছর বয়সী এক ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) বিকেলে মাদ্রাসার ভেতরে এই ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের শিকার শিশুটিকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এই ঘটনার পর অভিযুক্ত মাদ্রাসার শিক্ষক নুরুল হককে আটক করেছে পুলিশ।

জানা যায়, বাহারছড়া উত্তর শিলখালী আলহেরা ইবতেদায়ী নুরানি মাদ্রাসায় শিক্ষক মৌলভি নুরুল হক বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় ওই মাদ্রাসার ৪র্থ শ্রেণির  শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ করে। তারপর রক্তাক্ত অবস্থায় শিশুটি বাড়িতে গিয়ে তার মাকে ঘটনাটি জানায়।

ধর্ষণের শিকার শিশুটির বাবা জানান, বিকেলে রক্তাক্ত অবস্থায় তার মেয়ে মাদ্রাসা থেকে বাসায় এসে জানায় মৌলভী নুরুল হক তাকে একটি শ্রেণী কক্ষে নিয়ে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায়। প্রচুর রক্তক্ষরণ হলে তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় কক্সবাজার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. নওশাদ রিয়াদ সংবাদমাধ্যমকে জানান, মুমূর্ষ অবস্থায় শিশুটিকে হাসপাতালে আনা হয়েছে। তার প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। বর্তমানে তাকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান জানিয়েছেন, ঘটনার রাতেই অভিযুক্ত শিক্ষক নুরুল হককে আটক করা হয়েছে।

এডিবি/