NAVIGATION MENU

কুকুরমুক্ত হতে চলেছে রাজধানী শহর


কুকুরমুক্ত হতে চলেছে রাজধানী শহর ঢাকা। রাজধানী থেকে কুকুর সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি)। এদিকে এই সিদ্ধান্তকে বেআইনি মনে করছে প্রাণিপ্রেমী  সংগঠনগুলো।

এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে কুকুরপ্রেমীরা ঢাকার নগর ভবনের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। কেয়ার ফর পস, অভয়ারণ্য, স্টেলা, প ফাউন্ডেশন, উই আর নেচার এবং একবেলার খাবার বোবা প্রাণীদের জন্য এই কর্মসূচির আয়োজন করে। মানববন্ধন থেকে তারা অপসারণ করে ঢাকা শহরে কুকুর কমানোর পরিবর্তে বন্ধ্যাত্বকরণ কর্মসূচি চালুর দাবি জানান।

অভয়ারণ্য-এর প্রতিষ্ঠাতা রুবাইয়া আহমেদ বলেন, ‘ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকায় দক্ষিণের তুলনায় বেশি কুকুর আছে। তারা বন্ধ্যাত্বকরণ কর্মসূচিতে সহায়তা করছে কিন্তু দক্ষিণ সিটি করপোরেশন করছে না। আইন অনুযায়ী, কুকুর নিধন এবং অপসারণ বেআইনি। আমরা সিটি করপোরেশনকে আইন মেনে চলার আহ্বান জানাচ্ছি।

ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান রাকিবুল হক এমিল বলেন, ‘মাতুয়াইলে অপসারণ করা হলে কুকুরগুলোর জীবনধারা ব্যহত হবে। এটা প্রাণি কল্যাণ আইন, ২০১৯ এর পরিপন্থী। ঢাকার ৭০ শতাংশ কুকুর সরকারের বন্ধ্যাত্বকরণ কর্মসূচির আওতায় আছে। তাই শহর থেকে অপসারণের কোনো প্রয়োজন নেই। এই প্রতিবাদ কর্মসূচিতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ নেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণি বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. ফিরোজ জামান বলেন, ‘যে কোনো সিদ্ধান্ত বৈজ্ঞানিক প্রমাণের ভিত্তিতে নেওয়া উচিত। পথ কুকুর আবর্জনা খুঁটে খায়, এরা বাস্তুসংস্থানের উপকার করে। আবার সমস্যার কারণও হতে পারে। যদি কুকুরের বংশবিস্তার নিয়ন্ত্রণের দরকার হয়, জরিপ চালিয়ে এবং বিজ্ঞানসম্মত দৃষ্টিকোণ থেকে সে অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেওয়া যেতে পারে।

এস এস