NAVIGATION MENU

ট্রাম্পের শেষ ভরসা পেনসিলভানিয়া


গভীর আগ্রহে বিশ্ববাসী, যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট কে হচ্ছেন। সে হিসাব-নিকাশ এখন শেষ পর্যায়ে। এই হিসাব-নিকাশ ছয়টি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে সীমিত হয়ে এসেছে।

এখন ছয় অঙ্গরাজ্যের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেনসিলভানিয়ায়। এ জন্যই লড়াইয়ে টিকে থাকতে হলে এখানে জিততেই হবে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। হারলেই হোয়াইট হাউস থেকে বিদায় নিতে হবে তাঁকে।যদিও বাইডেন সেখানেও এগিয়ে রয়েছেন।

ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন এখন পর্যন্ত ২৫৩টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পাচ্ছেন। আর রিপাবলিকান ট্রাম্প পাচ্ছেন ২১৪টি। ফক্স নিউজসহ কিছু গণমাধ্যম অবশ্য বাইডেনের ২৬৪ টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পাওয়ার কথা জানাচ্ছে। মোট ৫৩৮ ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের মধ্যে প্রেসিডেন্ট হতে প্রয়োজন ২৭০টি।

জয়-পরাজয়ের হিসাব ঝুলে আছে ছয় অঙ্গরাজ্যের ৭১টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের ফলাফলের ওপর। এর মধ্যে পেনসিলভানিয়া ২০টি, জর্জিয়ায় ১৬টি, নর্থ ক্যারোলাইনায় ১৫টি, অ্যারিজোনায় ১১টি, নেভাদায় ৬টি ও আলাস্কায় ৩টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট রয়েছে।

সবচেয়ে বেশি ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের পেনসিলভানিয়ায় বাইডেন তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী ট্রাম্পের চেয়ে ৬ হাজার ৮৩৬টি পপুলার ভোটে এগিয়ে গেছেন। এখানে বাইডেন পেয়েছেন ৩২ লাখ ৯৭ হাজার ৬১৪ ভোট, আর ট্রাম্প পেয়েছেন ৩২ লাখ ৯০ হাজার ৭৭৮টি। আজ ভোট গণনা শুরু করার আগ পর্যন্ত এখানে ১৮ হাজার ৪৯ ভোটে এগিয়ে ছিলেন ট্রাম্প। ২০১৬ সালের নির্বাচনে ট্রাম্প এখানে জিতেছিলেন।

২৫৩ ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পাওয়া বাইডেন পেনসিলভানিয়ায় (২০) জিতলেই পাচ্ছেন ২৭৩ ভোট। তখন অন্য পাঁচটি অঙ্গরাজ্যে জিতলেও হোয়াইট হাউস থেকে বিদায় নিশ্চিত হবে ট্রাম্পের।

অন্য পাঁচটিতে জয় পেলেও তাঁর ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের সংখ্যা দাঁড়াবে ২৬৫। ম্যাজিক ফিগার ‘২৭০’ থেকে যা ৫ কম। বাকি পাঁচটি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে পপুলার ভোটে বাইডেন আবার এগিয়ে আছেন নেভাদা, অ্যারিজোনা ও জর্জিয়ায় অঙ্গরাজ্যে।

এসএস