NAVIGATION MENU

ত্বকের সজীবতায় শসার ফেস প্যাক


শসা যেমন রান্না-বান্নায়, খাওয়া-দাওয়ায় ব্যবহৃত হয় তেমনি ব্যবহৃত হয় রূপচর্চায়। ভিটামিন- সি, এ ও প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ শসা গরমের দিনে আমাদের দেহকে ঠান্ডা রাখে, ত্বকের জন্যও উপকারি।

শসার ফেসপ্যাক গরমের তাপে ত্বকের স্বাভাবিকতা বজায় রাখতে সাহায্য করে। এছাড়া শসার ফেসপ্যাক নিয়মিত ব্যবহার করলে দূর হবে বলিরেখা ও ব্রণ। শসা টুকরো করে চোখের উপর কিছুক্ষন দিয়ে রাখলে চোখের নিচের ডার্ক স্পট দূরীভুত হবে।

শসার ফেস প্যাকগুলো বাড়িতে খুব সহজেই বানিয়ে নিন। ত্বককে প্রাকৃতিক উপায়ে অনেক বেশি সুন্দর-উজ্জ্বল রাখুন।

শসা ও লেবুর রসঃ

একটু শসা ও লেবুর রস ভালো করে মেশান। এক টুকরো তুলো নিন। তুলো পানিতে ভিজিয়ে নিন। তুলোটি মন্ডাকৃতির বলে রূপান্তর করুন। তারপর এটিকে শসা ও লেবুর পেস্টে ভিজিয়ে নিন। ২০ মিনিট মুখে রেখে ধুয়ে ফেলুন ঠান্ডা জলে। এটি ত্বকের অতিরিক্ত তৈলাক্ত ভাব দূর করতে সাহায্য করে।

শসা ও বেসনের প্যাকঃ

২ চা চামচ বেসন ও ২ চা চামচ শসার রস ভালো করে মিশিয়ে পেস্ট বানান। পেস্টটি ভালো করে মুখে ও গলায় লাগান। হালকা শুকিয়ে গেলে একটু ম্যাসাজ করে পানি দিয়ে ধুয়ে নিন।

শসা ও পুদিনা পাতাঃ

শসা ও পুদিনা পাতা দিয়ে তৈরি করতে পারেন ফেস প্যাক। প্রথমে পুদিনা পাতা আর শসা ভালো মতো ধুয়ে নিন। এরপর পুদিনা পাতা ও শসা একসঙ্গে ব্লেন্ড করুন। পেস্টের মতো হলে সেটি ত্বকে ২০ মিনিট লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন।

শসা ও  আলুর প্যাকঃ 

প্রথমে শসা ও আলুর রস করতে হবে। তারপর একচামচ শসার রস ও একচামচ আলুর রস মেশান ভালো করে। তুলো ভিজিয়ে মুখে ও চোখের চারপাশে লাগান। চোখের চারপাশের কালি দূর করতে ১৫ মিনিট রেখে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। 

অ্যালোভেরা জেল ও শসাঃ

অ্যালোভেরা জেল বা অ্যালোভেরা জুসের সঙ্গে শসা দিয়েও তৈরি করতে পারেন ফেসপ্যাক। একচামচ অ্যালোভেরা জেল বা অ্যালোভেরা জুস এবং এর সঙ্গে একটু গ্রেটেড শসা ভালো ২ থেকে ৩ মিনিট ভালো করে মেশান। তারপর সেই পেস্টটি মুখে ও গলায় লাগিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট রাখুন। তারপর হালকা গরম জলে মুখ ও গলা পরিষ্কার করে নিন। এটি ত্বকের হারানো উজ্জ্বলতা ফিরে পেতে সাহায্য করে।

শসা ও মধুঃ  

ভালো করে শসার পেস্ট বানান। তারপর তার সঙ্গে মধু মেশান। এই পেস্টটি মুখে লাগান। ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

ডাবের জল ও শসাঃ

তৃষ্ণা মেটানোর পাশাপাশি ত্বকের যত্নে ডাবের জলের বেশ গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রয়েছে এই ফেসপ্যাকটির জন্যে শসা গ্রেট করে তার সঙ্গে ডাবের জলে মিশিয়ে লাগানো যেতে পারে। আবার শসার রসের সঙ্গে ডাবের জল মিশিয়েও লাগানো যেতে পারে। এভাবে তৈরি করে নিতে পারেন শসা ও ডাবের জলের ফেসপ্যাক এটি মুখে লাগানোর পর ৫ মিনিট মত ম্যাসাজ করুন। তারপর এটি ১৫ থেকে ২০ মিনিট মত রেখে ধুয়ে ফেলুন। এতে স্কিন টোনে পরিবর্তন আসে।

প্রাকৃতিক উপায়ে তৈরি এই ফেস প্যাকগুলো স্বল্পমূল্যে ও খুব সহজেই তৈরি করা যায় এবং কোনো প্রকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়া আপনার ত্বকের ময়েশ্চার ধরে রাখতে সাহায্য করে। শসার প্যাক নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের শুষ্কতা থেকে মুক্তি দেবে এবং উজ্জ্বলতা বাড়বে।

ওয়াই এ/এডিবি