ন্যাভিগেশন মেনু

নোবিপ্রবিতে বঙ্গবন্ধু কর্ণার উদ্বোধন


নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) বঙ্গবন্ধু কর্ণার উদ্বোধন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিনে বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরি ভবনের দ্বিতীয় তলায় এই বঙ্গবন্ধু কর্ণারের উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার উল আলম।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকি, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন, রেজিস্ট্রার ড. মো. আবুল হোসেন, শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর, সাধারণ সম্পাদক মাজনুর রহমান, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন, অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মেজবাহ উদ্দীন পলাশ, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, ইন্সটিটিউটের পরিচালক, হলের প্রভোস্ট, শিক্ষক, কর্মকর্তাবৃন্দ।

উদ্বোধনের পর অতিথিরা বঙ্গবন্ধু কর্ণারের বিভিন্ন চিত্র ও বই পরিদর্শন করেন।

এ ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে দিনব্যাপী কর্মসূচির মধ্যে ছিল, বেলুন উত্তোলন, আনন্দ র‍্যালি, বৃক্ষরোপণ, কেক কাটা, ডকুমেন্টারি প্রদর্শন, আলোচনাসভা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং মিলাদ ও দোয়া।

অডিটোরিয়ামে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ দিদার উল আলম বলেন, 'এতো অল্প সময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা বাংলাদেশের যে উন্নতি সাধন করেছেন, তা বিশ্ববাসীর সামনে একটি রোল মডেল হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। দারিদ্র বিমোচনসহ এনার্জি সেক্টর এবং যোগাযোগ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অভুতপূর্ব উন্নতি সাধন করেছে। বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ব্যাপক সাফল্যের কারণে আজ জাতিসংঘ তাকে সম্মান জানাচ্ছে। এসডিজি অগ্রগতি পুরষ্কারে ভূষিত হওয়া এই সাফল্যেরই ধারাবাহিকতা।'

উপাচার্য আরও বলেন, 'যোগাযোগ ক্ষেত্রে প্রতিনিয়তই নতুন নতুন অর্জন সাধিত হচ্ছে। দারিদ্র বিমোচনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকা অনন্য। আশ্রয়ন প্রকল্পের মাধ্যমে পিছিয়ে থাকা দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে তিনি মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিচ্ছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা বাস্তবায়ন করে চলেছেন, যা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।'

বক্তব্যে উপাচার্য  প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

এডিবি/