NAVIGATION MENU

প্রেমিকার পুরুষাঙ্গ কর্তন স্বীকার করল প্রিয়া


রাজধানী ঢাকা সংলগ্ন বুড়িগঙ্গার অপর পাড়  দক্ষিণ কেরানীগঞ্জে প্রেমিকার পুরুষাঙ্গ কর্তনের কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন রতন মিয়ার প্রেমিকা প্রিয়া ওরফে তানজিলা। ঢাকার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কাজী আশরাফুজ্জামান ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় প্রেমিকা প্রিয়ার জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

এরআগে মামলার তদন্ত আধিকারীক দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুল কুদ্দুছ প্রিয়াকে আদালতে হাজির করে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ডের আবেদন করেন। সেই আবেদন মঞ্জুর করে বিচারক তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

 এ কাণ্ড কেরানীগঞ্জ থানার আগানগর আমবাগিচা এলাকায়। সূত্র জানায়- প্রিয়ার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল বিবাহিত রতনের। তবে সম্প্রতি এ সম্পর্কে টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এ অবস্থায় গত ১৯ জুন রাত ২টা ২০ মিনিটে রতনকে গোলাম বাজারে ডেকে নেয় প্রিয়া।

সেখানে গেলে প্রিয়াসহ আরও তিনজন রতনকে জোর করে ঝাউবাড়ী ব্রিজের কাছে নিয়ে যায়। এসময় প্রিয়ার নির্দেশে রাত আড়াইটার দিকে তিনজন রতনকে জাপটে ধরেন। পরে চাকু দিয়ে রতনের পুরুষাঙ্গ আলাদা করে ফেলা হয়। এরপর রতন তার স্ত্রীকে ফোন দিয়ে বিষয়টি জানান।

পরে সেখানে গিয়ে তাকে আহতাবস্থায় উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ঢাকার মিডফোর্ড হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।এ ঘটনায় রতনের স্ত্রী মুক্তা বেগম দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানায় প্রিয়াসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মামলা দায়েরের পর আগানগরের কদমতলী এলাকা থেকে প্রিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এস এস