NAVIGATION MENU

বগুড়ায় নবান্নে মাছের মেলায় কোটি টাকার বেচাকেনা


সনাতন ধর্মাবলম্বীদের নবান্ন উৎসব উপলক্ষে বগুড়া জেলার বিভিন্ন এলাকায় বসেছে মাছের মেলা। কোটি টাকার মাছ কেনাবেচা হয়েছে এ মেলাগুলোতে।

মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) শিবগঞ্জের মহাস্থান ও উথলি, নন্দীগ্রামের রণবাঘা ও ওমরপুর এবং কাহালু বাজারে মাছের মেলায় এসেছিল বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ।

মেলায় ঘুরে দেখা গেছে, প্রায় শতাধিক দোকানে রুই, কাতলা, মৃগেল, ব্রিগেড, গ্রাস কার্প, সিলভার কার্প, চিতল, বাঘাইর, বোয়াল, ব্লাক কার্প, ইলিশ মাছসহ বিভিন্ন ধরনের মাছ বিক্রি হচ্ছে। এসব মাছ রাজশাহী, জয়পুরহাট ও নওগাঁ জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে এনেছেন পাইকাররা। একদিনের এই মেলায় বিল ও নদীর মাছের পাশাপাশি স্থানীয় পুকুরের মাছও বিক্রি হয়। বছরজুড়ে বড় জাতের মাছ এই মেলায় তুলে বিক্রি করেন মাছ চাষিরা। ওজন তারতম্য প্রতিটি মাছ ৩ থেকে ২১ কেজি পর্যন্ত। ২১ কেজি ওজনের সবচেয়ে বড় ব্লাককাপ মাছটি দাম হয়েছে ৭৫০ টাকা কেজি।

শিবগঞ্জের পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি আমিনুল হক দুদু বলেন, মাছের মেলাটি দীর্ঘদিনের। বলতে গেলে দু’শ বছরেরও আগের হবে। মেলায় বড় বড় মাছ পাওয়া যায়, এটাই বেশি ভালো লাগে।

মাছ বিক্রেতা আবু হাসান (৩৫) ও অতুল চন্দ্র দাস (৪৫) বলেন, প্রতিবছরই এই মেলায় তারা মাছ বিক্রি করেন। মেলায় ক্রেতা সমাগম বেশি হওয়ায় বেচাবিক্রি ভালো হয়।

মেলার ইজারাদার আল আমিন সরকার বলেন, একদিনের এই মাছের মেলায় প্রায় কোটি টাকার উপরে মাছ বিক্রি হয়ে থাকে। ভোর থেকে শুরু হয়ে সন্ধা পর্যন্ত চলে মেলার কেনাকাটা।

স্থানীয় নারায়ণপুর গ্রামের শ্রী বলরাম মোদক (৫৫) বলেন, যুগ যুগ থেকে অগ্রহায়ন মাসের প্রথম দিন এই মাছের মেলা বসে। দিন যতোই যাচ্ছে এই মেলার ঐতিহ্য ততোই বাড়ছে।

মেলায় আসা শিবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান জানান, ঐতিহ্যবাহী মেলা সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। গোটা শিবগঞ্জে উৎসবমূখর পরিবেশ বিরাজ করছে। এখানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা দায়িত্ব পালন করছে।

এ উৎসবকে ঘিরেই প্রতিবছর মাছের মেলা বসে বিভিন্ন বাজারে। প্রতি বাড়িতেই মেয়ে-জামাইসহ স্বজনদের দাওয়াত দেওয়া হয়। নবান্নে মেলা থেকে কেনা বড় মাছ ও নতুন সবজি দিয়ে আপ্যায়ন করা হয় অতিথি-স্বজনদের।

নতুন চালের ভাতের সাথে মাছে খাওয়ার রেওয়াজ জেলার বিভিন্ন উপজেলায়। মেয়ে-জামাই ও অন্যান্য আত্নীয় স্বজনদের বাড়িতে নিয়ে এসে বাহারি পিঠা-পায়েসসহ নানা রকমের সুস্বাদু খাবার পরিবেশন করা হয়ে থাকে। এ উৎসবকে ঘিরেই প্রতিবছর মাছের মেলা বসে বিভিন্ন বাজারে।

এ এস বি/ এস এ/এডিবি