NAVIGATION MENU

বাজেট ব্যবসায়ীবান্ধব হওয়ায় নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে: অর্থমন্ত্রী


আগামী ২০২১-২০২২ প্রস্তাবিত বাজেট ব্যবসায়ীবান্ধব বাজেট হওয়ায় এদিকে যেমন উৎপাদন বাড়বে অন্যদিকে কর্মী ছাঁটাই বন্ধ এবং নতুন নতুন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

শুক্রবার (০৪ জুন) ভার্চুয়াল মাধ্যমে বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে গণমাধ্যমকর্মীদের তিনি এ কথা বলেন।

এসময় অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘ব্যবসায়ীবান্ধব হওয়ায় দেশের উৎপাদন ও কর্মসংস্থান বাড়বে। কারণ জনবল ছাড়া উৎপাদন সম্ভব না। এজন্য ব্যবসায়ীদের জন্য বাজেটে সুযোগ বৃদ্ধি করা হয়েছে। প্রস্তাবিত বাজেটে করের হার কমানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। এতে কর কমলেও রাজস্ব আদায় বাড়বে।’

বাজেটে কর ছাড়ের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তি বা আইটি খাত সহজ করার লক্ষ্য রয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তি খাত সহজ করে ট্যাক্স পেয়ারদের যদি এই কাজে সম্পৃক্ত করতে পারি, তাহলে রেভিনিউ জেনারেশন অনেক বৃদ্ধি পাবে। রেভিনিউ জেনারেশন বাড়াতে পৃথিবীর অনেক দেশ চেষ্টা করেছিল। এমনকি আমেরিকায়ও কোনো একসময় ৭৫ শতাংশ ট্যাক্সের পরিমাণ ছিল, সেটা এখন নেই। বেশি করে ট্যাক্স আদায় করা যায় কি না সেটি সবাই চেষ্টা করেছিল।’

বাজেটের ঘাটতি পূরণ প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘অভ্যন্তরীণ খাত থেকে ঋণ নেওয়া হবে এক লাখ ১৩ হাজার ৪৫৩ কোটি টাকা। বৈদেশিক খাত থেকে নেওয়া হবে ৯৭ হাজার ৭৩৮ কোটি টাকা। অভ্যন্তরীণ খাতের মধ্যে ব্যাংকিং খাত থেকে ঋণের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৭৬ হাজার ৪৫২ কোটি টাকা, সঞ্চয়পত্র থেকে ৩২ হাজার কোটি টাকা ও অন্যান্য খাত থেকে নেওয়া হবে ৫ হাজার এক কোটি টাকা।’

এমআইআর/ওআ