NAVIGATION MENU

বিপদসীমার উপরে তিস্তার পানি


লালমনিরহাট সংবাদদাতা : অবিরাম বর্ষণ আর উজানে ভারত থেকে পাহাড়ি ঢলের প্রভাবে বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে তিস্তার পানি। ফলে লালমনিরহাটের তিস্তা তীরবর্তী আদিতমারী উপজেলার গোবর্ধন এলাকা বন্যায় প্লাবিত হয়ে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে মানুষ।

শুক্রবার (২৬ জুন) সকাল ৯টায় দেশের বৃহত্তম সেচপ্রকল্প লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার তিস্তা ব্যারেজ ডালিয়া পয়েন্টে তিস্তার পানি প্রবাহ রেকর্ড করা হয় ৫২ দশমিক ৭৮ সেন্টিমিটর। যা (স্বাভাবিক ৫২ দশমিক ৬০ সেন্টিমিটর) বিপদসীমার ১৮ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

লালমনিরহাট পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী আব্দুর কাদের জানান, ‘তিস্তায় পানি বাড়লেও খুব বেশি সময় স্থায়ী থাকে না, বিপদসীমার নিচে চলে যাবে। বৃষ্টিপাত ও উজানের ঢল আসা বন্ধ হলে পাঁচ থেকে ছয় ঘণ্টার মধ্যে তিস্তার পানি ভাটির দিকে নেমে যাবে।’

তিনি আরও জানান, ‘লালমনিরহাট সদর উপজেলার কুলাঘাট পয়েন্টে বিপদসীমা ছুঁয়ে প্রবাহিত হচ্ছে ধরলা নদীর পানি।’

তিস্তা ও ধরলা নদীর পানি বেড়ে যাওয়ায় চরাঞ্চলগুলো তলিয়ে গেছে। তলিয়ে গেছে আমন ধানের বীজতলাসহ বিভিন্ন সবজি খেত।

এদিকে হঠাৎ পানি বৃদ্ধি দেখে তিস্তাপাড়ের মানুষ বড় ধরনের বন্যার শঙ্কায় রয়েছে। তবে বন্যা সতর্কীকরণ কেন্দ্রের দাবি, তিস্তায় বড় ধরনের বন্যার কোনো আশঙ্কা নেই। বৃষ্টির কারণে উজানের ঢেউয়ের ফলে পানি প্রবাহ বৃদ্ধি পেয়েছে।

ওয়াই এ/এডিবি