NAVIGATION MENU

ভারতে করোনার ‘ন্যাজাল’ ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের প্রস্তুতি


খুব শীঘ্রই করোনার ‘ন্যাজাল’ ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু করবে সিরাম ইনস্টিটিউট অব ইন্ডিয়া এবং ভারত বায়োটেক।

রবিবার (১৮ অক্টোবর) এমনটাই জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষ বর্ধন।  তিনি বলেন, “ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের স্কুল অব মেডিসিনের সঙ্গে যৌথ ভাবে এই ভ্যাকসিনের পরীক্ষা চালাবে ভারত বায়োটেক।” খবর আনন্দবাজার পত্রিকা’র।

এই মুহূর্তে করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে দেশের অনেকগুলো সংস্থাই কাজ করছে। কিন্তু এখনও পর্যন্ত ‘ন্যাজাল’ ভ্যাকসিন নিয়ে পরীক্ষা শুরু করেনি কেউই। হর্ষ বর্ধন জানিয়েছেন, ‘ড্রাগ কন্টোলের অনুমোদন পেলেই এই ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু করে দেবে সিরাম এবং ভারত বায়োটেক। ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে নয়, স্প্রে করে নাকের মধ্যে দিয়ে প্রয়োগ করা হবে এই ভ্যাকসিন।’

তিনি আরও জানান, ‘এই ভ্যাকসিনের প্রথম পর্বের পরীক্ষা হবে আমেরিকার সেন্ট লুইস বিশ্ববিদ্যালয়ের ভ্যাকসিন অ্যান্ড ট্রিটমেন্ট ইভ্যালুয়েশন ইউনিটে। ড্রাগ কন্ট্রোলের অনুমোদন পেলে পরবর্তী পর্বের পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নেবে ভারত বায়োটেক। এবং সেই পর্বের পরীক্ষাগুলো হবে ভারতেই।’

এই মুহূর্তে ভারতে বেশ কয়েকটি সংস্থা করোনার ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের বিভিন্ন পর্বে রয়েছে। আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই সেগুলো বাজারে চলে আসবে বলে আশা প্রকাশ করেছে কেন্দ্র। হর্ষ বর্ধন বলেন, ‘ভ্যাকসিন নিয়ে নানা পর্যায়ে কাজ চলছে। আশা করছি, আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই তা হাতে চলে আসবে। তার পরবর্তী ছ’মাসে ভ্যাকসিন সরবরাহের কাজ শুরু করা যাবে।’

ওআ/