NAVIGATION MENU

ভোরেই পদ্মায় প্রাণঝড়লো ২৬ স্পিডবোটযাত্রীর


ভোরেই পদ্মায় প্রাণঝড়লো ২৬ স্পিডবোটযাত্রীর। মাদারীপুর জেলার শিবচর থানা এলাকা সংলগ্ন পদ্মায় বাল্কহেডের (বালু টানা কার্গো) সাথে স্পিডবোটের সংঘর্ষে এ পর্যন্ত ২৬ জনের লাশ উদ্ধার হয়েছে।

সোমবার (৩ মে) ভোরে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটের কাঁঠালবাড়ী ঘাট সংলগ্ন এলাকায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। কাঁঠালবাড়ী নৌপুলিশ সূত্র জানায়, মুন্সিগঞ্জের মাওয়াঘাটের শিমুলিয়া থেকে যাত্রীবাহী একটি স্পিডবোট মাদরীপুরের বাংলাবাজারের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়।

স্পিডবোটটি কাঁঠালবাড়ী (পুরাতন ফেরিঘাট) ঘাটের কাছে আসলে নদীতে থাকা একটি বাল্কহেড এর পেছনে সজোরে ধাক্কা লেগে উল্টে যায়। খবর পেয়ে নৌপুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার অভিযান শুরু করে।

কাঁঠালবাড়ী নৌপুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘দুর্ঘটনার পর থেকে আমরা ২৬ জনের লাশ উদ্ধার করেছি। দুইজনকে আহতাবস্থায় স্থানীয় হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। কতজন বোটে ছিল তা জানা যায়নি। উদ্ধার কাজ চলছে।’

শিবচর ফায়ার সার্ভিসের ইনচার্জ শ্যামল বিশ্বাস বলেন, স্পিডবোটটি মাওয়া থেকে যাত্রী নিয়ে কাঁঠালবাড়ি ঘাটের দিকে যাচ্ছিল। ২৬ মরদেহের মধ্যে তিনটি শিশু ও একজন মহিলা রয়েছেন। মরদেহগুলো পুরান কাঁঠালবাড়ি ঘাটে রাখা হয়েছে। ফায়ার সার্ভিস ও নৌপুলিশ বাকিদের উদ্ধারে অভিযান চালাচ্ছে।

লকডাউনে গণপরিবহন বন্ধ থাকার পাশপাশি নৌরুটে ফেরি ও লঞ্চ চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে এরই মধ্যে কিছু অসাধু স্পিডবোট চালক অবৈধভাবে যাত্রী পারাপার করে আসছে।

এস এস