NAVIGATION MENU

ভোর ও রাতে নামছে তাপমাত্রার পারদ


দেরিতে হলেও চলতি সপ্তাহে অবশেষে দেশ থেকে বিদায় নিয়েছে বর্ষা । আর সেইসঙ্গেই ভারতের রাজ্যে ঢুকতে শুরু করেছে উত্তর-পশ্চিমের শুকনো বাতাস। যার জেরে ভোর ও রাতে নামছে তাপমাত্রার পারদ। 

হালকা শীত অনুভব করছেন রাজ্যবাসী। সকলের মনে এখন একটাই প্রশ্ন, তবে কি বাংলায় ঢুকে পড়ল শীত? উত্তর দিল হাওয়া অফিস জানালো, এখনই জাঁকিয়ে শীত পড়ছে না বঙ্গে। 

আবহাওয়াবিদরা জানিয়েছেন, ৩০ অক্টোবর অর্থাৎ শুক্রবার পর্যন্ত শুকনোই থাকবে আবহাওয়া। রাত ও ভোরের দিকে কমবে তাপমাত্রা। কলকাতার তাপমাত্রা থাকবে ২০-২১ ডিগ্রির আশপাশে। অক্টোবরের একেবারে শেষদিন অর্থাৎ আজ থেকেই বদলাবে আকাশের চরিত্র। বঙ্গোপসাগরে নতুন নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে পারে। 

যার পরোক্ষ প্রভাবে দক্ষিণা বাতাসের আনাগোনা বাড়বে বঙ্গে। মেঘলা থাকবে আকাশ। রাতের দিকে তাপমাত্রা হতে পারে ২৩ থেকে ২৪ ডিগ্রি। সাগর শান্ত হলেই হেমন্তের শিরশিরানি অনুভব করতে পারবেন বঙ্গবাসী।

নিয়ম অনুযায়ী, ১২ অক্টোবর নাগাদ কলকাতা থেকে বর্ষা বিদায় নেওয়ার কথা। তবে এবারের বর্ষা বিদায় নিয়েছে অনেকটাই দেরিতে। ফলে প্রতিবছর অক্টোবরের মাঝামাঝি বঙ্গে উত্তরের শুকনো বাতাসের আনাগোনা শুরু হলেও এবার তা হয়নি। দিনকয়েক আগে পর্যন্তও রাতের তাপমাত্রা ২৫-২৬ ডিগ্রির আশপাশে ঘোরাফেরা করছিল। যার অন্যতম কারণ সাগরে পর পর সৃষ্ট হওয়া নিম্নচাপ। 

তবে পুজোর মুখে নিম্নচাপ বাংলাদেশে সরে যাওয়ার পরই হাওয়াবদল হয়। কথাতেই আছে, দুর্গা ঠাকুর বিসর্জনের দিন থেকেই বাতাসে একটা হিমেল হওয়া অনুভূত হয়। চলতি বছরেও তাঁর অন্যথা হয়নি। 

ইতিমধ্যেই দক্ষিনবঙ্গে তা বইতে শুরু করেছে। রাতে এবং ভোরের দিকে বেশ ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। তবে তা স্থায়ী নয়। সপ্তাহ শেষ থেকেই ফের তাপমাত্রা বাড়তে শুরু করবে, জানিয়েছে হাওয়া অফিস।

ওআ/