NAVIGATION MENU

মাছের চামড়ার বেল্ট, মানিব্যাগ


ইটাইওস নামে প্যারিসের এক প্রতিষ্ঠান বেল্ট-মানিব্যাগ আর জুতার মতো পণ্য তৈরীতে ব্যবহার করছে মাছের চামড়া। এই ভিন্ন আইডিয়া নিয়ে কাজ করছে ফ্যাশনের স্বর্গ হিসেবে খ্যাত ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিস।

বিক্রির অপেক্ষায় থাকা এসব পণ্য চামড়াজাত পণ্যের মতো মনে হলেও রয়েছে ভিন্নতা। কারণ, গরু, ছাগল কিংবা কুমিড় নয়, এসব পণ্য তৈরী হয়েছে মাছের চামড়া থেকে।

মুলত স্যামন, স্টারজিওন আর বিভিন্ন কার্প জাতীয় মাছের চামড়া থেকেই তৈরী হয়েছে এসব পণ্য। পরিণত হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন জুতো, জ্যাকেটও।

ইটাইওসের প্রতিষ্ঠাতা বেনজামিন ম্যালট্রেট বলেন, আমাদের নীতিটা খুব সহজ। ফেলে দেওয়া মাছের অংশ সংগ্রহ করি আমরা। সেখান থেকে চামড়াগুলো নেওয়া হয়। আর সেগুলো প্রক্রিয়াজাত করে বিলাসবহুল পণ্য বানানো হবে।

পরিবেশবান্ধব ভাবনা আর ভিন্ন কিছু করার চিন্তা থেকেই এই উদ্যোগ বলে জানান প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার। বিভিন্ন রেস্তোরা আর সুশি হাউজের ফেলে দেওয়া মাছের চামড়া সংগ্রহের পর তা প্রক্রিয়াজাত করা হয়। প্রতিবার ১০ থেকে ১২ টন মাছের চামড়া সংগ্রহণের পর সেখান থেকে প্রায় ১০ হাজার পিস চামড়া সংগ্রহ করা হয়।

ম্যালট্রেট আরও জানান, প্রতি ব্যাচে আমরা ১ হাজারের মতো চামড়া প্রক্রিয়াজাত করি। এতে আমাদের প্রায় ২ সপ্তাহ সময় লাগে। আসলে মানসম্পন্ন পন্য তৈরী করতে গেলে সময় লাগবেই।

তিনি বলেন, বর্তমানে এই প্রতিষ্ঠান থেকে প্রায় আড়াইশ ফ্যাশন হাউজে সরবরাহ করা হচ্ছে পণ্য। যার মধ্যে ল্যুই ভ্যুতো, ক্রিস্টিয়ান ডিওরের মতো প্রখ্যাত প্রতিষ্ঠানও রয়েছে।

আমাদের উদ্দেশ্য, নিয়মিতভাবে যেসব পশুর চামড়া ব্যবহার করা হয় সেটার ওপর চাপ কমানো। আর তাই মাছের চামড়া ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। এতে করে চামড়ার আরও একটি উৎস বাড়লো।

সিবি/এডিবি