NAVIGATION MENU

মাটি খুঁড়তেই মিললো ইসলামী স্বর্ণযুগের কলসভর্তি স্বর্ণমুদ্রা


ইসরায়েলের ইয়াভন শহরের কাছে খননকাজ চালানোর সময় ইসলামী স্বর্ণযুগের কলসভর্তি বিপুল পরিমাণ স্বর্ণমুদ্রার সন্ধান পাওয়া গেছে।

সোমবার (২৪ আগস্ট) অ্যান্টিকস অথরিটি'র দুই প্রত্নতত্ত্ববিদ লিয়াত নাদাভ-জিভ এবং এলিয়ে হাদাদ এক যৌথ বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

ইসরায়েলে প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের চোরাচালান ঠেকানোর দায়িত্ব ইসরায়েল অ্যান্টিকস অথরিটি'র ওপর। পাশাপাশি ওই সংস্থা ইসরায়েলে প্রত্নতাত্ত্বিক খনন, রক্ষণাবেক্ষণ এবং গবেষণার প্রসারের কাজেও নিয়োজিত।

প্রত্নতাত্ত্বিকরা এক যৌথ বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘একটি কলসে মোট চারশ ২৫টি 'অত্যন্ত দুর্লভ' প্রাচীন স্বর্ণমুদ্রা পেয়েছেন তারা। প্রতিটি মুদ্রা খাঁটি সোনা দিয়ে তৈরি। এর মধ্যে অধিকাংশ ১১০০ বছর পুরনো আব্বাসীয় আমলের।’

বিশেষজ্ঞদের অভিমত অনুযায়ি, 'উদ্ধার হওয়া সম্পদের মধ্যে ছোট আকারের স্বর্ণমুদ্রার অনেক টুকরা পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে সেই আমলে এগুলো স্বল্প মূল্যের মুদ্রা ছিল।'

অ্যান্টিকস অথরিটি'র অন্যতম মুদ্রা বিশেষজ্ঞ রবার্ট কুল জানিয়েছেন, 'উদ্ধার হওয়া স্বর্ণমুদ্রাগুলোতে যে সংকেত বা চিহ্ন দেখা গেছে তা থেকে মনে করা হচ্ছে এগুলো আব্বাসীয় খিলাফতের সময়ের। যদিও এ বিষয়ে আরও গবেষণা এবং বিশ্লেষণের প্রয়োজন আছে বলে মনে করেন তিনি।'

উল্লেখ্য, নবম শতাব্দীর শেষ সময়টা ছিল আব্বাসীয় খিলাফতে স্বর্ণযুগ। সেই সময় সাম্রাজ্যের সর্বাধিক বিস্তার ঘটেছিল। উদ্ধার হওয়া স্বর্ণমুদ্রা থেকে সে সময় সম্পর্কে আরও অনেক অজানা তথ্য জানা সম্ভব হবে বলে আশাবাদী রবার্ট কুল।

ওয়াই এ/ এডিবি