NAVIGATION MENU

মানি লন্ডারিং মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হলো সম্রাটকে


অস্ত্র ও মাদক আইনে করা দুই মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটকে মানি লন্ডারিং মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) সম্রাটের উপস্থিতিতে ঢাকা মহানগর হাকিম সরাফুজ্জামান আনসারী তাকে গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ১৩ সেপ্টেম্বর রাজধানীর রমনা থানায় মামলাটি করেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)।

মানি লন্ডারিং আইনে সিআইডির দায়ের করা মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট রাজধানীর মতিঝিল, ফকিরাপুল, পল্টন ও কাকরাইল এলাকায় প্রভাব বিস্তার করে অবৈধ অর্থ উপার্জন করেছেন। তার উপার্জিত অবৈধ অর্থের মধ্যে ১৯৫ কোটি টাকা তিনি তার সহযোগী আরমানের সহায়তায় সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ায় পাচার করেছেন।

গত বছরের ১২ নভেম্বর দুদকের করা মামলায় সম্রাটের বিরুদ্ধে দুই কোটি ৯৪ লাখ ৮০ হাজার ৮৭ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে আনা হয়।

গত ১৮ আগস্ট আদালতে দুদকের আবেদনের প্রেক্ষিতে মহানগর জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কে এম ইমরুল কায়েশ ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটের স্থাবর সম্পত্তি ক্রোকের নির্দেশ দেন।

এছাড়া গত ৭ অক্টোবর রমনা মডেল থানায় র‍্যাব-১ এর ডিএডি আব্দুল খালেক বাদী হয়ে সম্রাটের নামে অস্ত্র ও মাদক আইনে পৃথক দুটি মামলা করেন।

এর পরে সম্রাটকে ১৫ অক্টোবর ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট অস্ত্র ও মাদক মামলায় ১০ দিনের রিমান্ডে পাঠায় আদালত, রিমান্ড শেষে ২৪ অক্টোবর তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

ওয়াই এ/এডিবি