NAVIGATION MENU

যেখানে অল্প বয়সী মেয়েদের দেহ-ব্যবসার দিকে ঠেলে দেওয়া হয়


অল্প বয়সী মেয়েদের দেহ-ব্যবসার দিকে ঠেলে দিচ্ছে ইরাকের ধর্মীয় নেতারা। মেয়েদের সাময়িক সময়ের জন্য উপভোগ করতে বিয়ে দেয়া হচ্ছে এখানে। শিয়া সম্প্রদায়ের অস্থায়ী বিয়ে প্রথার ওপর অনুসন্ধান চালাতে গিয়ে এমন তথ্য পেয়েছে বিবিসি আরবি নিউজ।

মূলত, ১৫ বছরের যুদ্ধের পরে, আনুমানিক ১০ লাখ ইরাকি নারী বিধবা হয়ে পড়েন এবং আরও অনেকে বাস্তুচ্যুত হয়ে যান বলে ধারণা করা হয়।

বিবিসির দল জানতে পেরেছে যে দারিদ্র্যের কারণে অনেক নারী এবং মেয়েরা এই অস্থায়ী আনন্দ বিবাহ প্রথায় প্রবেশ করছেন।

ইরাকের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কাজী অফিসগুলোতে গোপন অনুসন্ধানে দেখা গেছে যে, বেশিরভাগ ধর্মীয় নেতা স্বেচ্ছায় খুব স্বল্প সময়ের জন্য মেয়েদের বিয়ে দিয়ে থাকে। কেউ কেউ ৯ বছরের কম বয়সী মেয়েদেরও এই অস্থায়ী বিয়ের জন্য স্বেচ্ছায় সরবরাহ করেছে।

নিকাহ মুত'আহ - একটি বিতর্কিত ধর্মীয় রীতি যা শিয়া মুসলমানরা অস্থায়ী বিয়ের জন্য ব্যবহার করে। এর বিপরীতে নারীদের অর্থ প্রদান করা হয়। সুন্নি সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশগুলোয় তথাকথিত মিসিয়াহ বিয়ে একই ধরনের কাজ সম্পাদন করে।

মূলত এই প্রথায়, একজন পুরুষকে ভ্রমণের সময় তার স্ত্রীকে সঙ্গে রাখার অনুমতি দেয়া হয়েছে। তবে আজকাল এই প্রথাটি ব্যবহার করা হচ্ছে নারী ও পুরুষকে সীমিত সময়ের জন্য যৌন মিলনের অনুমতি দিতে।

কারও কারও মতে এর মাধ্যমে পতিতাবৃত্তিকে বৈধতা দেয়া হয়েছে এবং বিবাহ কীভাবে স্বল্পমেয়াদী হতে পারে তা নিয়েও বিতর্ক রয়েছে।

ইরাকি সরকারের একজন মুখপাত্র বিবিসি আরবিকে বলেছেন, নারীরা যদি আলেমদের বিরুদ্ধে তাদের অভিযোগ নিয়ে পুলিশের কাছে না যান। তবে কর্তৃপক্ষের এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া কঠিন।

একই ধরণের সংবাদ পেতে এখানে ক্লিক করুন

এমআইআর / এস এস