NAVIGATION MENU

রোনালদিনহো-মেসির মৃত্যুতে কফিন নিয়ে নাচতে চান তারা


সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কারণে তাদের পরিচিতি এখন বিশ্ব জুড়ে। চলতি বছর ‘ড্যান্সিং পলবিয়ারারস’ বা নাচুনে শববাহকদের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে ফেসবুক-টুইটারে। মানুষের শেষকৃত্যে শবযাত্রার সময় মৃতদেহকে কাঁধে নিয়ে নেচে নেচে সবাইকে আনন্দ প্রদান করেন এই দলটি। ‘ড্যান্সিং পলবিয়ারার্স’ নামের এই দলটির রয়েছে বিশেষ এক ইচ্ছা। বিশ্বখ্যাত ফুটবল তারকা মেসি, রোনালদিনহোর শেষকৃত্যে নাচতে চান তারা। 

সম্প্রতি ফ্রান্সের বিখ্যাত ফুটবল সাময়িকী ফুট মেরকাতোর মুখোমুখি হয়েছিলেন ‘ড্যান্সিং পলবিয়ারার্স’ দলের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান বেঞ্জামিন আইদু। নিজেদের নানা বিষয়ে কথা বলেছেন  ঘানার এই বাসিন্দা। সেখানেই নিজেদের স্বপ্ন সম্পর্কে কথা বলেন আইদু।

ঘানার আক্রায় ২০০৭ সালে ‘ওতাফ্রিজা পলবিয়ারিং’ নামের এক প্রতিষ্ঠান খোলেন আইদু। তার সেই প্রতিষ্ঠানের উদ্দেশ্য ছিল নেচে গেয়ে শবযাত্রায় থাকা মৃতের স্বজনদের কষ্টানুভব কমানো। এছাড়া নাচের মাধ্যমে মৃত ব্যক্তির প্রতি সম্মান জানানো হয় বলেও জানান তিনি। এ ব্যাপারে আইদু বলেন, ‘এখন অনেক মানুষই আর কাঁদতে চায় না। আবার অনেকেই কাঁদে। দুই পক্ষকে খুশি রাখতেই আমরা এই উদ্যোগ নিয়েছি।’

আফ্রিকার অন্যতম দরিদ্র দেশ ঘানায় ফুটবল জনপ্রিয় একটি খেলা। কথা প্রসঙ্গে তাই ফুটবলের কথাও উঠে আসে। আইদু জানান, তার প্রিয় খেলোয়াড় হলেন আর্জেন্টিনার দিয়েগো ম্যারাডোনা, লিওনেল মেসি এবং ব্রাজিলের রোনালদিনহো। প্রিয় ফুটবলারদের শেষকৃত্যে তাদের শবদেহ নিয়ে নাচতে চান বলে জানান আইদু। 

ড্যান্সিং পলবিয়ারার গ্রুপের এই প্রতিষ্ঠাতা বলেন, ‘আমি স্বপ্ন দেখি রোনালদিনহোর শেষকৃত্যে নাচছি। এরপর ম্যারাডোনা এবং মেসির শেষকৃত্যেও। রোনালদিনহো হচ্ছেন এমন একজন যিনি আমাকে সব সময় মুগ্ধ করেছেন। তার শবযাত্রায় নেচে আমি শ্রদ্ধা জানাতে চাই। এটা হচ্ছে একজন নৃত্যশিল্পীর পক্ষ থেকে আরেক শিল্পীর প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন যিনি ফুটবল মাঠেই নাচতেন। তবে আমি অবশ্যই তাদের সবার দীর্ঘায়ু কামনা করি।’

ওআ