NAVIGATION MENU

লক্ষ্মীপুরে প্রবাসীর স্ত্রী ও শিশু সন্তানের ওপর দূর্বৃত্তের হামলা


লক্ষ্মীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ থানার বশিকপুরে প্রবাসীর স্ত্রী মরিয়ম বেগম (৪০) ও ৭ বছরের শিশু সন্তান রাজিয়া সুলতানাকে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা।

শনিবার (৩ অক্টোবর) রাতে সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের বালাইশপুর দেওয়ান বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে।

রাতেই স্থানীয়রা মুমূর্ষু অবস্থায় আহত মা মরিয়ম বেগম ও তার মেয়ে রাজিয়াকে সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠিয়েছেন।

আহত মরিয়ম বেগম ওই এলাকার প্রবাসী নবী উল্যাহ্'র স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, রাতে দরজা ভেঙ্গে দেওয়ান বাড়ির মরিয়মের ঘরে হানা দিয়ে একদল দুর্বৃত্ত প্রবেশ করে। এ সময় তাদের বাধা দেওয়া হলে তাদের সঙ্গে থাকা দা, ছেনি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে।

এ সময় মায়ের শরীর রক্তাক্ত দেখে ৭ বছরের মেয়ে আতংকে চিৎকার দিলে দূর্বৃত্তরা শিশুটিকেও কুপিয়ে জখম করে। এ সময় তাদের আর্তচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এগিয়ে এলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

পুলিশ জানায়, রাতেই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান পুলিশ সুপার ড. কামরুজ্জামানসহ পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তারা। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য জাহেদ ও সোহেল নামে দুইজনকে থানায় আনা হয়েছে।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে জাহিদ তার প্রতিবেশি প্রবাসীর স্ত্রী ও শিশু সন্তানকে কুপিয়ে জখম করেছে। পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারের অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

অতিরিক্ত পুলিশ মো. মিজানুর রহমান জানান, হামলাকারীদের গ্রেপ্তারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে। তবে এ ঘটনায় থানায় এখনো মামলা হয়নি। ঘটনার পিছনে কি ছিলো তা এ মুহুর্তে আহতদের সাথে কথা বলতে না পারায় বিষয়টি পরিষ্কার করতে পারছেন না তিনি। তবে দুর্বৃত্তের হামলায় মা ও মেয়ে গুরুতর আহত হয়েছে বলে বিষয়টি তিনিও নিশ্চিত করেছেন। অন্যান্য অপরাধীদের পাকড়াও করতে অভিযান চলছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে।

এস এ /এডিবি