NAVIGATION MENU

শামসুজ্জামান খানের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক


বাংলা একাডেমির সভাপতি ও সাবেক মহাপরিচালক, লোক সংস্কৃতি গবেষক, অধ্যাপক শামসুজ্জামান খানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (১৪ এপ্রিল) এক শোকবার্তায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, `স্বাধীনতা পুরস্কার ও একুশে পদকপ্রাপ্ত এই গবেষক ও লেখক বাংলাদেশের লোকজ সংস্কৃতি, ঐতিহ্য ও সাহিত্যকে অনন্য গবেষণাকর্মের মাধ্যমে তুলে ধরেছেন যা ভবিষ্যতেও গবেষণাকর্মীদের অনুপ্রাণিত করবে।‘

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’, ‘কারাগারের রোজনামচা’ ও ‘আমার দেখা নয়া চীন’ এই বইগুলোর সম্পাদনা ও প্রকাশে যথেষ্ট ভূমিকা রেখেছেন। শামসুজ্জামান খান কর্মগুণে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

বুধবার (১৪ এপ্রিল) দুপুরে করোনায় আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান বাংলা একাডেমির সভাপতি শামসুজ্জামান খান।

এর আগে সোমবার সকালে শামসুজ্জামান খানের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ভেন্টিলেশন সাপোর্টে নেওয়া হয়।

কিছুদিন আগে করোনা পজিটিভ হলে শামসুজ্জামান খানকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার স্ত্রীও করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন।

একুশে পদকপ্রাপ্ত লেখক, অধ্যাপক শামসুজ্জামান খান একাধারে ছিলেন লোক সংস্কৃতি ও পল্লীসাহিত্য গবেষক।

তার উল্লেখযোগ্য কাজ, বাংলাদেশের লোকজ সংস্কৃতি গ্রন্থমালা শিরোনামে ৬৪ খণ্ডে ৬৪ জেলার লোকজ সংস্কৃতির সংগ্রহশালা সম্পাদনা এবং ১১৪ খণ্ডে বাংলাদেশের ফোকলোর সংগ্রহমালা সম্পাদনা

এমআইআর/এডিবি