NAVIGATION MENU

সীমিত আকারে গার্মেন্টস খুলতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চিঠি


করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী বন্ধ থাকা পোশাক কারখানা খুলে সীমিত আকারে খোলা রাখার দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চিঠি দিয়েছেন বাংলাদেশ গার্মেন্টস বায়িং হাউজ অ্যাসোসিয়েশন (বিজিবিএ)।

মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিবের কাছে বাংলাদেশ গার্মেন্টস বায়িং হাউজ অ্যাসোসিয়েশনের (বিজিবিএ) সভাপতি কাজী ইফতেখার হোসাইন এ চিঠি পাঠান তিনি।

বিজিবিএ সভাপতি ইফতেখার হোসাইন বলেন, করোনা ক্রান্তিকালে সীমিত আকারে কিভাবে গার্মেন্টস খোলা রাখা যায়, সে বিষয়ে দিকনির্দেশনা জানতে একটা চিঠি্টা দেয়া হয়েছে। দীর্ঘ মেয়াদে গার্মেন্টস বন্ধ থাকলে দেশের অর্থনীতিতে বিরূপ প্রভাব পড়বে।

চিঠিতে বলা হয়েছে, বৈশ্বিক সংকট করোনাভাইরাসের প্রাদূর্ভাবের সময় দেশের প্রধান রফতানি খাতের ব্যবসা ধরে রাখতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কিভাবে পোশাক খাতের কর্মকাণ্ড ও সংশ্লিষ্ট যানবাহন সীমিত আকারে চালু করা যায় তার পরিকল্পনা গ্রহণ করা উচিত।

বিজিবিএ’র দাবি,  বর্তমানে উত্তর আমেরিকা ও ইউরোপের দেশগুলোর সঙ্গে বাংলাদেশের পোশাক খাতের যে সরবরাহ ব্যবস্থা গড়ে উঠেছে, তা অব্যাহত না রাখা হলে এ সময় ব্যবসা স্থানান্তর হয়ে যাওয়ার হুমকি রয়েছে। আর একবার যদি সরবরাহ ব্যবস্থা ভেঙে পড়ে তবে তা প্রতিস্থাপন করা বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে।

এর আগে করোনা মোকাবেলায় সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ি গত ৬ এপ্রিল বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ যৌথ বিবৃতিতে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত পোশাক কারখানা বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়। পরবর্তীতে সরকার ঘোষিত ছুটি বৃদ্ধি করা হলে ২৫ এপ্রিল পর্যন্ত কারখানা বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ।

ওয়াই এ/এডিবি