ন্যাভিগেশন মেনু

হিযবুত তাহরিরের আইটি বিশেষজ্ঞ গ্রেপ্তার


এবার বড় একটা নাশকতা কাণ্ডের হাত থেকে রক্ষা পেল দেশের বৃহৎ বিনোদন তথা পর্যটন কেন্দ্র কক্সবাজার।

নাশকতা ঘটানোর আগেই নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরিরের আইটি বিশেষজ্ঞ দলের সক্রিয় এই সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশের অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিট (এটিইউ)।

হিযবুত তাহরিরের আইটি বিশেষজ্ঞের নাম- এইচ এম মেহেদি হাসান রানা (৩০)।  তার বাড়ি দেশের দক্ষিণাঞ্চলীয় জেলা পটুয়াখালীর মীর্জাগঞ্জে।

পুলিশ দাবি করেছে, হিযবুত তাহরিরের অনলাইন সম্মেলন ও প্রচারণায় তার সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া গেছে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এটিইউ পুলিশ সুপার (মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস) মোহাম্মদ আসলাম খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুধবার রাতে কক্সবাজার জেলার উখিয়া থানার পালংখালী এলাকা থেকে দেশে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরিরের আইটি বিশেষজ্ঞ মেহেদি হাসান রানাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এটিইউ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আসলাম খান বলেন, মেহেদী হাসান রানা হিযবুত তাহরিরের আইটি সেক্টরে দীর্ঘদিন ধরে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছে। হিযবুত তাহরিরের অনলাইন সম্মেলন ও প্রচারণায় তার সম্পৃক্ততার প্রমাণ পাওয়া গেছে। অনলাইন মিডিয়ায় কথিত খেলাফত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরিরের বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণাসহ অন্য সদস্যদের ছাড়িয়ে নিতে  সে  চেষ্টা করে যাচ্ছিল।

এছাড়াও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  গণতান্ত্রিক সরকারকে উৎখাতের মাধ্যমে দেশে খেলাফত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে রাষ্ট্রবিরোধী ষড়যন্ত্রসহ বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল মেহেদি। ফারইস্ট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করে ব্র্যাকে অ্যাসিস্ট্যান্ট টেকনিক্যাল অফিসার হিসেবে তিন বছর ধরে সে কর্মরত ছিল।

গ্রেপ্তারের সময় তার কাছ থেকে একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ফোন, দুটি সিম কার্ড ও তিন ধরনের সাতটি হিযবুত তাহরিরের লিফলেট জব্দ করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃত হিযবুত তাহরিরের আইটি বিষেজ্ঞের বিরুদ্ধে কক্সবাজারের উখিয়া থানায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে বাদী হয়ে মামলা করেছে এটিইউ।

এস এ/ এস এস