NAVIGATION MENU

হোটেলে ডেকে ট্যুর গাইডকে গণধর্ষণ


মানব যৌনতা হলো মানুষের কামোদ্দীপক অভিজ্ঞতা এবং সাড়াপ্রদানের ক্ষমতা। কোন ব্যক্তির যৌন অভিমুখীতা অন্য ব্যক্তির প্রতি তার যৌন আগ্রহ ও আকর্ষণকে প্রভাবিত করতে পারে। প্রতিটি মানুষের মাঝে এই চাহিদা রয়েছে। তবে এই চাহিদা থেকে মানুষ অনেক অন্যায় অপরাধমূলক কাজ করে থাকে।

তেমনই একটি ঘটনা দিল্লির পাঁচতারকা হোটেলের। হোটেলে ডেকে নিয়ে ছয়জন মিলে এক নারী ট্যুর গাইডকে গণধর্ষণ করেছে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা‘র।

খবরে বলা হয়, ধর্ষণকাণ্ডে জড়িত ছয়জনের সঙ্গে একজন নারীও ছিল বলে জানিয়েছে ভুক্তভোগী। এ ঘটনায় জড়িত প্রধান অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানায়, অল্প সুদে ঋণ পাইয়ে দেয়ার নাম করে ডেকে নিয়ে ওই হোটেলে তাকে গণধর্ষণ করা হয়। ধর্ষণের শিকার ওই তরুণী ট্যুরিস্ট গাইডের পাশাপাশি তিনি টিকিট বুকিং এক্সিকিউটিভ হিসেবেও কাজ করেন।

ভুক্তভোগী ওই নারী পুলিশকে জানিয়েছেন, টাকার খুব প্রয়োজন ছিল তার। সেই সূত্রেই অভিযুক্তদের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। কম সুদে ঋণ পাইয়ে দেবেন বলে ফোনে তাকে আশ্বস্ত করেন তারা। সেই মতো হোটেলে ডেকে পাঠান। সেখানে যেতেই সবাই মিলে তাকে ধর্ষণ করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, হোটেলের যে ঘরে গণধর্ষণ ঘটেছে, সেটি দুই ব্যবসায়ীর নামে বুক করা ছিল।

ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে এক নারীসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ইতোমধ্যে মনোজ শর্মা নামের মূল অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

সিবি/এডিবি