NAVIGATION MENU

২৩ থেকে ২৭ ফুট দূরত্বেও ছড়াতে পারে করোনা ভাইরাস


দু ‘জন মানুষ ৩ ফুট দূরত্ব বজায় রাখলেই করোনা সংক্রমণের সম্ভাবনা এড়িয়ে চলা সম্ভব বলে মনে করছে সংশ্লিষ্টরা। তবে ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি'র গবেষক বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এ তথ্য মানতে নারাজ।

আমেরিকান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের জার্নালে প্রকাশিত বৈজ্ঞানিক প্রবন্ধে বলা হয়েছে, ”দু’জন মানুষ ২৩ থেকে ২৭ ফুট দূরত্বে থাকলেও করোনায় সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে। করোনাভাইরাস বাতাসে বেশিক্ষণ বাঁচে না, এই যুক্তিও বিপক্ষে তারা বলেছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা অনায়াসে বাতাসে বেঁচে থাকতে পারে প্রানঘাতী এ ভাইরাস।

এ বিষয়ে এমআইটি'র গবেষক অধ্যাপক লিডিয়া বুরিবা জানিয়েছেন, ’বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইন পুরনো ধারণার উপর তৈরি। ১৯৩০ সালে পাওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে ২০২০ সালে নির্দেশিকা জারি করলে চলবে না। করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে ৩ বা ৬ ফুট দূরত্ব বজায় রাখার যুক্তি একেবারেই নিরাপদ নয়।’

এছাড়া, লিডিয়া বুরিবার এমন দাবি উড়িয়ে দিতে পারেনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। লিডিয়াও অবিলম্বে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার গাইডলাইনে বদল আনার দাবি তুলেছেন। এমআইটি গবেষকগণ এক বিবৃতিতে বলেছেন, করোনা নিয়ে আরও তথ্য পাওয়া গেলে গাইডলাইনে বদল করা হবে।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সারাবিশ্বে মারা গেছেন ৪২ হাজার মানুষ আর এখন পর্যন্ত ৮ লাখ ৬০ হাজার মানুষ ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন।

এমআইআর/এডিবি

আরো পড়ুন: