NAVIGATION MENU

৫৫ বছর পর নীলফামারী ও জলপাইগুড়ির মধ্যে ট্রেন চালু


দীর্ঘ ৫৫ বছরের অপেক্ষার পালা শেষ। আরো একটি উন্নয়নের মাইলফলক সৃষ্টি করল বাংলাদেশ। রচিত হলো নতুন ইতিহাস। দীর্ঘ ৫৫ বছর পর চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রুটে চালু হলো ট্রেন চলাচল।

বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) দুপুর পৌনে ১২টার দিকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নীলফামারীর ডোমার উপজেলার চিলাহাটি ও ভারতের হলদিবাড়ি রেল রুটের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

চিলাহাটি-হলদিবাড়ি রুটে রেলপথ চালুর মাধ্যমে এ অঞ্চলে ব্যবসা বাণিজ্যের নতুন সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন হলো। এর ফলে অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিকভাবে লাভবান হবে এই অঞ্চলের মানুষ। ফিরে আসবে কর্মচাঞ্চল্য আর আর্থিক সচ্ছলতা।

বাংলাদেশের নীলফামারী জেলার সীমান্তবর্তী রেল স্টেশনটির নাম চিলাহাটি। এ স্টেশন থেকে সীমান্ত ৬ দশমিক ৭২৪ কিলোমিটার। অপরদিকে ভারতের হলদিবাড়ি রেলস্টেশন থেকে ৬ দশমিক ৫ কিলোমিটার দূরে বাংলাদেশ সীমান্ত। দুই দেশের রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ সীমান্ত পর্যন্ত রেলপথ নির্মানের কাজ শেষ করেছে।

উদ্বোধনের এ দিনে মালবাহী ট্রেন চিলাহাটি স্টেশন থেকে ভারতের হলদিবাড়ি স্টেশনে পৌঁছাবে। আর আগামী ২৬ মার্চ থেকে চলাচল করবে যাত্রীবাহী ট্রেন।

ব্রিটিশ আমলে অবিভক্ত ভারতে এই অঞ্চলের অন্যতম প্রধান যোগাযোগ মাধ্যম ছিল চিলাহাটি-হলদিবাড়ী রুট। ১৯৬৫ সালে পাক-ভারত যুদ্ধে এই রেল রুটটি বন্ধ হওয়ার আগে এ পথে দার্জিলিং থেকে খুলনা হয়ে কলকাতা পর্যন্ত নিয়মিত যাত্রীবাহী ও পণ্যবাহী ট্রেন চলাচল করতো।

ওআ/