ন্যাভিগেশন মেনু

৬ কোটি টাকা বিনিয়োগের মাইলফলক ছুঁলো শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশ


বাংলাদেশের উদ্যোক্তা জগতে এক যুগান্তকারী পরিবর্তন এনেছে শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশের সিজন ১।  ৫টি পর্বজুড়ে দেশের বিভিন্ন উদ্ভাবনী ব্যবসায়ে এখন পর্যন্ত মোট ৬ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করে একটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক অর্জন করেছে বিশ্বখ্যাত এই অনুষ্ঠানটি।

প্রথম থেকেই অনুষ্ঠানের বিচারক তথা শার্করা তাদের প্রখর বিচক্ষণতা আর সূক্ষ্ম বিনিয়োগ কৌশলের মাধ্যমে সম্ভাবনাময় ব্যবসাগুলোতে বিনিয়োগ করেছেন।  যার মধ্যে শুধু প্রথম পর্বেই তারা করেছিলেন ১ কোটি টাকারও বেশি বিনিয়োগ।  এরপর অনুষ্ঠান যতো এগিয়েছে, বেড়ে বিনিয়োগের পরিমাণও।

এই সিজনের মূল আকর্ষণগুলোর মধ্যে রয়েছে শিক্ষা প্রযুক্তি, স্বাস্থ্যসেবা, ই-কমার্স এবং টেকসই উৎপাদনের মতো খাতে যুগান্তকারী বিনিয়োগ। যার মধ্যে রয়েছেন একটি উদ্ভাবনী অনলাইন শিক্ষার প্ল্যাটফর্ম ‘ওস্তাদ’; দেশের প্রথম সাশ্রয়ী মূল্যে বৈদ্যুতিক গাড়ির ব্যবসা ‘পালকি মোটরস’, বিশ্বখ্যাত অনলাইনে প্ল্যাটফর্মে ব্যবসা করার প্রশিক্ষণ দেওয়ার প্রতিষ্ঠান ‘এরিয়া ৭১ ভেঞ্চার লিমিটেড’সহ অনেকে। এছাড়া আরও কিছু অভিনব ব্যবসা দেখা গিয়েছে এখানে। সম্পূর্ণ পর্বগুলো ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম বঙ্গ-তে দেখা যাচ্ছে ফ্রি-তে।

উদ্ভাবনী ব্যবসায়িক ধারণাকে সমর্থন করা এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি চালনা করার জন্য শার্কদের প্রতিশ্রুতি পুরো সিজনজুড়েই ছিল স্পষ্ট। তারা পিচগুলোকে মূল্যায়ন করেছে, চুক্তি করেছেন এবং উচ্চাকাঙ্ক্ষী উদ্যোক্তাদের মূল্যবান পরামর্শ প্রদান করেছেন। মোট ৬.২৫ কোটি টাকা বিনিয়োগের মাধ্যমে শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশ সিজন ১ শুধু দেশের স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমেই গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেনি, স্বপ্নদর্শী উদ্যোক্তাদের ক্ষমতায়ন এবং তাদের টেকসই উন্নয়নকেও সমর্থন করেছে।

শার্ক ট্যাংক বাংলাদেশ-এর নতুন পর্ব প্রতি শুক্রবার রাত ১০টায় একসাথে সম্প্রচারিত হচ্ছে ওটিটি প্ল্যাটফর্ম বঙ্গ-তে। এছাড়া যেকোনো সময় আগের পর্বগুলোও ফ্রি-তে দেখা যাবে সেখানে।