NAVIGATION MENU

গাইবান্ধায় যৌতুকের মামলায় পুলিশ সদস্যের কারাদণ্ড


গাইবান্ধায় স্ত্রীর করা যৌতুকের মামলায় নবীদুল ইসলাম নামে এক পুলিশ কনস্টেবলকে এক বছরের কারাদণ্ড ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রবিবার (২২ নভেম্বর) দুপুরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক উপেন্দ্র চন্দ্র দাস এ রায় দেন।

নবীদুলের বাড়ি গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার মধ্য উড়িয়া গ্রামে। তিনি রাজশাহী রেঞ্জে কনস্টেবল পদে কর্মরত ছিলেন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ২০১৭ সালের ২ সেপ্টেম্বর পারিবারিকভাবে নবীদুল বিয়ে করেন ফুলছড়ি উপজেলার পূর্ব ছালুয়া গ্রামের আকবর আলীর মেয়ে লিপি আক্তারকে। বিয়েতে দেনমোহর নির্ধারণ করা হয় সাত লাখ টাকা।

বিয়ের কিছুদিন পর থেকে নবীদুল যৌতুক হিসেবে শ্বশুরের কাছে তিন লাখ টাকা দাবি করেন। ওই টাকা না পেয়ে স্ত্রী লিপির ওপর নির্যাতন শুরু করেন। পরবর্তীতে লিপি নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে বাবার বাড়ি চলে যান। পরে ২০১৮ সালের ১৪ জানুয়ারি ফুলছড়ি আমলি আদালতে মামলা করেন।

এ মামলায় তার স্বামী নবীদুলকে ২০১৯ সালের ৬ মার্চ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়। কিন্তু ছয় দিন পর জামিনে মুক্ত হয়ে কর্মস্থলে যোগ দেন নবীদুল।

মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, আসামি নবীদুল দেনমোহরের সাত লাখ টাকা তার স্ত্রী লিপিকে একসঙ্গে পরিশোধ করার শর্তে জামিন পান। কিন্তু নির্ধারিত সময়ে দেনমোহর পরিশোধ করেননি এবং আদালতেও হাজির হননি। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে যৌতুক ও নির্যাতনের বিষয়টি প্রমাণিত হয়।

এডিবি/