NAVIGATION MENU

সুনামগঞ্জে ৪৭ নারী নির্যাতন মামলার একত্রে রায়


সুনামগঞ্জে নারী নির্যাতনের ৪৭টি মামলায় কাউকে কারাগারে না পাঠিয়ে আপস মীমাংসার রায় দিয়ে বাদী-বিবাদীকে (স্বামী-স্ত্রী) একত্রে বসবাস করার শর্তে মামলা নিষ্পত্তি করেছেন আদালত।

বুধবার (২৫ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ৪৭টি নারী নির্যাতন মামলার একত্রে আপস মীমাংসার রায় দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন সুনামগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. জাকির হোসেন।

এ সময় বাদী ও বিবাদী পক্ষকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। এই রায়ে ভোগান্তি শেষ হলো ৪৭টি পরিবারের।

বুধবার সকালে এসব মামলার বাদী-বিবাদী পক্ষকে একত্রে আদালতে হাজির করেন নারী ও শিশু নির্যাদত দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. জাকির হোসেন। পরে, দুপুরে রায় পড়া শুরু হলে প্রচলিত নিয়মের বাইরে সৃষ্টি হয় এক অন্যরকম পরিবেশ। একের পর এক পরিবারের সদস্যদের মুখে হাসি ফুটতে থাকে।

রায়ে দীর্ঘদিনের ঝগড়া বিবাদের সমাপ্তি ঘটতে থাকে। স্বামী ফিরে পায় তার স্ত্রী ও সন্তানদের। স্ত্রীরা তাদের স্বামীর সঙ্গে দীর্ঘদিন পর হাসিমুখে কথা বলেন।

আদালত প্রাঙ্গণে তখন এক অন্যরকম চিত্র। বিচারক মো. জাকির হোসেনের পক্ষ থেকে লাল গোলাপ আর রজনীগন্ধা ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। সন্তানদের হাতে বিতরণ করা হয় চকলেট।

আদালতে আইনজীবিরাও এমন ঘটনায় হতবাক। তারা জানান, এমন ঘটনা কখনো দেখেননি তারা। রায়ে সন্তষ্টি প্রকাশ করে আদালতকে ধন্যবাদ জানান ৪৭ পরিবারের ৯৪ জন সদস্য।

এডিবি/