NAVIGATION MENU

সেলিমপুত্র ইরফান ফের ৫ দিনের রিমান্ডে


রাজধানীর ধানমন্ডিতে নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ও ডিএসসিসি'র ৩০নং ওয়ার্ডের বরখাস্ত কাউন্সিলর মো. ইরফান সেলিম এবং তার দেহরক্ষী মোহাম্মদ জাহিদের পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রবিবার (৮ নভেম্বর) ঢাকার অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট কায়সারুল ইসলাম অস্ত্র মামলায় তাদের তিনদিন করে এবং মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত শিকদার মাদক মামলায় দুইদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গত ২৭ অক্টোবর ইরফান সেলিম ও দেহরক্ষীর বিরুদ্ধে মাদক ও অস্ত্র আইনে দুটি করে পৃথক চারটি মামলা দায়ের করে র্যাব। গত ২৯ অক্টোবর এসব মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চকবাজার থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন অস্ত্র ও মাদক আইনে দুজনের বিরুদ্ধে দুটি করে চারটি মামলায় তাদের গ্রেপ্তার দেখানোসহ প্রত্যেকের ১৪ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন।

সেই আবেদনের শুনানি নিয়ে তাদের অস্ত্র মামলায় তিনদিন এবং মাদক মামলায় দুদিন করে মোট পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত

প্রসঙ্গত, গত ২৫ অক্টোবর সন্ধ্যায় নৌবাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মারধরের অভিযোগ ওঠে ইরফানসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ধানমন্ডি থানায় ভুক্তভোগীর পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হয়েছে। সেখানে পাঁচজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও দুজনকে আসামি করা হয়।

এরপরই দুপুরে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে ইরফান সেলিমের বাসা থেকে ৩৮টি ওয়াকিটকি, পাঁচটি ভিপিএস সেট, একটি পিস্তল, একটি একনলা বন্দুক, একটি ব্রিফকেস, একটি হ্যান্ডকাফ, একটি ড্রোন এবং সাত বোতল বিদেশি মদ ও বিয়ার উদ্ধার করা হয়।

অবৈধ ওয়াকিটকি রাখা ও অনুমোদন ছাড়া বিদেশি মদ সেবনের দায়ে ঢাকা-৭ আসনের সংসদ সদস্য হাজী সেলিমের ছেলে ইরফান সেলিমকে এক বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দেয় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এমআইআর/এডিবি