NAVIGATION MENU

আরো কমবে তাপমাত্রা


চলমান শৈত্যপ্রবাহের মধ্যে তাপমাত্রা সামান্য বাড়লেও পরে আরো কমে যাবে এবং বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার অর্থাৎ ২৬ ও ২৭ ডিসেম্বর দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আজ বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) ভোরে দিনাজপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৫ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এটাই চলতি মৌসুমে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বলেছেন আবহাওয়া অধিদপ্তর।

দিনাজপুর আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক তোফাজ্জল হোসেন জানিয়েছেন, দু’এক দিনের মধ্যে তাপমাত্রা আরও কমতে পারে।

একই দিন পঞ্চগড়ের তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে ২০১৮ সালে পঞ্চগড়ে ২ দশমিক ৬ ডিগ্রি তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল, যেটা ছিল বিগত কয়েক দশকের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা।

সকাল ছয়টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় ৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এছাড়া দিনাজপুরে ৬ দশমিক ৮, ডিমলায় ৭ দশমিক ৫, রাজারহাটে ৭ দশমিক ৭ ও রংপুরে ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এছাড়াও রাজশাহীতে ৮ দশমিক ৭, ঈশ্বরদীতে ৮ দশমিক ৮, বদলগাছীতে ৭ দশমিক ৪ এবং তাড়াশে ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বিভাগীয় শহরগুলোতে ঢাকায় ১৩, ময়মনসিংহে ১১ দশমিক ৫, চট্টগ্রামে ১৩ দশমিক ৮, সিলেটে ১৫ দশমিক ৫, রাজশাহীতে ৮ দশমিক ৭, খুলনায় ১২ দশমিক ৩ এবং বরিশালে ১০ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ একেএম নাজমল হক বলেন, বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বৃষ্টিকালীন সময়ে আকাশে মেঘ থাকবে। বৃষ্টিপাত কেটে যাওয়ার পরে তাপমাত্রা ১-৩ ডিগ্রি কমে যেতে পারে এবং চলমান শৈত্যপ্রবাহ আরো বেশি অঞ্চলজুড়ে অব্যাহত থাকতে পারে।

ওয়াই এ / এস এস