NAVIGATION MENU

মধুপুরে ঘুমন্ত স্বামীকে বটি দিয়ে কুপিয়েছে স্ত্রী


টাঙ্গাইলের মধুপুরে পারিবারিক কলহের জেরে ঘুমন্ত স্বামী সুমনকে (৩৮) মাথাসহ দেহের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে বিষপান করেছেন স্ত্রী সাবিনা বেগম (৩০)।

রবিবার (৪ অক্টোবর) ভোরে মধুপুর পৌরসভা এলাকার দামপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহতাবস্থায় সুমনকে প্রথমে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ঘটনার পর এলাকাবাসী স্ত্রী সাবিনাকে আটক করে একটি গাছের সাথে বেঁধে রাখে।

এদিকে খবর পেয়ে পৌনে ৯টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে সাবিনাকে উদ্ধার করে মধুপুর থানা পুলিশ। 

মধুপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারিক কামাল জানান, সুমনের স্ত্রী সাবিনা ঘাস নিধনের বিষপান করেছেন। পুলিশি সহায়তায় সাবিনাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। চিকিৎসার পর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সুমন দামপাড়ার আবদুল মজিদের ছেলে। তাদের দাম্পত্য জীবনে এক মেয়ে (৫) ও আট মাস বয়সী ছেলে সন্তান রয়েছে।  পেশায় সুমন একজন ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালক।

সুমনের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সাবিনা বেশ কিছুদিন ধরে মানসিক ভারসাম্যহীন আচরণ করছেন। সুমনের এক ভগ্নিপতির দিকে বিক্ষুব্ধ হয়ে বটি ছুঁড়ে মারার ঘটনাও ঘটিয়েছেন কয়েকদিন আগে।

এছাড়া স্থানীয়রা জানান, গত ঈদুল আজহার আগে সাবিনার সঙ্গে সুমনের ভগ্নিপতি আপত্তিকর আচরণ করার পর থেকে অসংলগ্ন আচরণ শুরু করেন। এ নিয়ে পরিবারের মধ্যে অশান্তি চলছিলো।

রবিবার সকালে ঘুম থেকে উঠার আগে স্বামীর ওপর বটি নিয়ে চড়াও হন সাবিনা। মাথাসহ দেহের বিভিন্ন স্থানে তিন চারটি কোপ দেন তিনি। চিৎকার শুনে পরিবার ও স্থানীয়রা ছুটে এসে সাবিনাকে আটকে গাছে বেঁধে রাখে আর সুমনকে উদ্ধার করে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থা খারাপ থাকায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেন।

এস এ /এডিবি