NAVIGATION MENU

রাজশাহী ও সিরাজগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে ৮ জঙ্গি পাকড়াও


দেশে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামায়াতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) আঞ্চলিক আমির ও সেকেন্ড ইন কমান্ডসহ আটজনকে আটক করেছে এলিটফোর্স র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। এরফলে বড় ধরণের নাশকতা থেকে রক্ষা পেল দেশ।

উত্তরাঞ্চলীয় জেলা রাজশাহী ও সিরাজগঞ্জে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এর মধ্যে রাজশাহীতে চারজন এবং সিরাজগঞ্জে চারজনকে আটক করা হয়। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) রাতে র‌্যাব-৫ রাজশাহী এবং ঢাকা সদর দফতরের সদস্যদের একটি দল রাজশাহী মহানগরীর শাহ মখদুম থানা এলাকার একটি বাড়িতে অভিযান চালায়। সেখান থেকে আঞ্চলিক আমিরসহ চারজনকে আটক করা হয়।

এরপর তাদের দেওয়া তথ্য এবং র‌্যাবের কাছে আগে থেকেই থাকা কিছু তথ্যের সমন্বয়ে শুক্রবার (২০ নভেম্বর) ভোরে সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর উপজেলার উকিলপুর এলাকার একটি বাড়ি ঘিরে ফেলা হয়।

চূড়ান্ত অভিযানের প্রস্তুতি নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ভেতরে থাকা জঙ্গিদের আত্মসমর্পণের আহ্বান জানানো হয়। তখন জেএমবির রাজশাহী অঞ্চলের সেকেন্ড ইন কমান্ডসহ চারজন র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণ করে।

এদিকে র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) তোফায়েল মোস্তফা সারোয়ার সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, রাজশাহীতে মাসিকসভা করার সময় চারজনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শাহজাদপুরের উকিলপাড়ার ওই বাড়ি ঘিরে রাখে র‍্যাব। প্রাথমিক অবস্থায় র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে বাড়ির ভেতর থেকে চার থেকে পাঁচটি গুলি ছুড়ে।

এ অবস্থায় ওই বাড়ির আশপাশ থেকে বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়ার কাজ শুরু হয়। সকাল ১০টার দিকে চূড়ান্ত অভিযান শুরু করার সঙ্গে সঙ্গে বাড়ির ভেতরে থাকা ওই চারজন আত্মসমর্পণ করে। এ সময় বাড়িটি থেকে দু’টি বিদেশি পিস্তল, গান পাউডার, ফিউজ, জিহাদি বই, বিভিন্ন নির্দেশনামূলক বই, একটি চাপাতি ও দু’টি রামদা উদ্ধার করা হয়।

আর রাজশাহীতে গ্রেফতার চারজনের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে কিছু সংখ্যক জিহাদী বই। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার প্রধান লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ জানান, আটক আট জঙ্গিকে সিরাজগঞ্জে র‌্যাব-১২ এর কার্যালয়ে রাখা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এস এস