ন্যাভিগেশন মেনু

শাইখুল ইসলাম রতন

Staff Correspondent
শাইখুল ইসলাম রতন
Feb 28, 2023

জাতীয়

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে বাংলাদেশের সক্ষমতা রয়েছে - যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে বাংলাদেশের সক্ষমতা রয়েছে - যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ সহ স্থল ও সমুদ্র সীমানা টহল দেওয়ার মত সক্ষমতা বাংলাদেশের রয়েছে বলে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।সোমবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত ‘কান্ট্রি রিপোর্ট অন টেরোরিজম ২০২১’-এ বিষয়টি উল্লেখ করা হয়।রিপোর্টে বলা হয়, ২০২১ সালে বাংলাদেশে তিনটি উল্লেখযোগ্য সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটেছে এবং এগুলো প্রতিরোধ করেছে দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এরমধ্যে একটি ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা একটি মার্কিন রিমোট-কন্ট্রোলড রোবট দিয়ে বোমা নিষ্ক্রিয় করেছিল।পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিট (সিটিটিসি) ২০২১ সালে ৪০টি তদন্ত করেছে এবং ৮৫ জনকে গ্রেফতার করেছে বলেও রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়, ১৬ সেপ্টেম্বর গুলশান ডিপ্লোমেটিক অঞ্চলে দেলোয়ার হোসেন নামক এক ব্যক্তি মার্কিন দূতাবাসের গাড়ী মনে করে বোমা ছুড়ে মারে এবং তাকে আইনশৃঙ্খলার কাজে নিয়োজিত বাহিনী  সঙ্গে সঙ্গে ওই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে।এছাড়াও ২০২১ সালের ১৭ মে এবং ১১ জুলাই নারায়ণগঞ্জে দুটি ঘটনা, চট্টগ্রাম পুলিশ ৪০টি ঘটনায় ১০ জনকে গ্রেফতারের কথা উল্লেখ করে অ্যান্টি টোরোরিজম ইউনিট তাদের সক্ষমতা বৃদ্ধি প্রসংশা করেন এবং যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ধারণা করেন অ্যান্টি টোরোরিজম ইউনিট প্রায় ৭৫টি মামলার তদন্ত সমাপ্ত করেছে। ১১ জুলাই, নারায়ণগঞ্জে সিটিটিসি পুলিশ একটি নব্য-জেএমবি জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে আইইডি, বোমা তৈরির উপকরণ, অস্ত্র, গোলাবারুদ এবং ভবিষ্যতে নব্য-জেএমবি-র হামলার পরিকল্পনার বাঞ্ছাল করেছে। সিটিটিসিইউ, সন্ত্রাসবিরোধী ইউনিট (এটিইউ), এবং র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) সন্দেহভাজন জঙ্গিদের বিরুদ্ধে অভিযান ও গ্রেপ্তার অব্যাহত রেখেছে।সাতটি অ্যান্টি টেরোরিজম ট্রাইবুন্যালে ৭০০টি মতো মামলা রয়েছে। আটটি সাইবার ট্রাইবুন্যালে ৪ হাজার ৬০০ এর মতো মামলা বিচারাধীন আছে  উল্লেখ করে রিপোর্টে মার্কিন কর্তৃপক্ষ বলেছে, ওই সময়ে ১০ জন সন্ত্রাসীকে ভালো পথে নিয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে সিটিটিসি এবং তাদের প্রত্যেককে পরিবারের কাছে ফেরত দেওয়া হয়েছে। এছাড়া মাদ্রাসা কারিকুলামে আধুনিকায়ন সহ সরকার এবং বিভিন্ন সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে সন্ত্রাস দমনে কাজ করে চলেছে বাংলাদেশ পুলিশ এছাড়া বিমানবন্দরে কার্গো ও যাত্রীদের পরীক্ষা করার জন্য আধুনিক যন্ত্রাংশ ও লোকবল বাড়ানো হয়েছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।  ...


Feb 27, 2023

জাতীয়

বাংলাদেশিদের দ্বৈত নাগরিকত্ব সুবিধা দেওয়ার প্রস্তাব অনুমোদন

বাংলাদেশিদের দ্বৈত নাগরিকত্ব সুবিধা দেওয়ার প্রস্তাব অনুমোদন

নতুন করে ৪৪টি দেশ যুক্ত হওয়ায় এখন মোট ১০১টি দেশের নাগরিকত্বপ্রাপ্ত বাংলাদেশিরা দ্বৈত নাগরিকত্ব সুবিধা পাবেন। বিভিন্ন দেশের নাগরিকত্বপ্রাপ্ত বাংলাদেশিদের দ্বৈত নাগরিকত্ব সুবিধা দেওয়ার বিষয়ে এসআরও জারির প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এ বৈঠক হয়। সোমবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) বৈঠক শেষে সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।এর আগে ৫৭টি দেশে বাংলাদেশিদের দ্বৈত নাগরিকত্বের সুবিধা ছিল। নতুন করে ৪৪টি দেশ যুক্ত হওয়ায় এখন মোট ১০১টি দেশের নাগরিকত্বপ্রাপ্ত বাংলাদেশিরা দ্বৈত নাগরিকত্ব সুবিধা পাবেন বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বর্তমানে দেখা যাচ্ছে পৃথিবীর অন্য অনেক দেশে বাংলাদেশের নাগরিকরা গিয়েছেন। তারা বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চলমান রাখতে চান। সেটা বিবেচনায় নিয়ে আরও ৪৪টি দেশকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। আগের ৫৭টি দেশের সঙ্গে নতুন করে ৪৪টি দেশ অন্তর্ভুক্ত করে মোট ১০১টি দেশ। সেটি মন্ত্রিসভায় অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এখন এই ১০১টি দেশে বাংলাদেশের নাগরিকরা চাইলে দ্বৈত নাগরিকত্ব নিতে পারবেন।তিনি বলেন, বাংলাদেশের কোনো নাগরিক যদি বিদেশে কোনো দেশের নাগরিকত্ব গ্রহণ করে, তাহলে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চলমান রাখতে পারবে। কোন কোন দেশের ক্ষেত্রে এটি প্রযোজ্য হবে সেটা এসআরওর মাধ্যমে নিশ্চিত করা হয়। আগে ইউরোপ, আমেরিকা, কানাডা, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, হংকং, ব্রুনাই, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়াসহ মোট ৫৭টি দেশ ছিলো।নতুন ৪৪ টি দেশের মধ্যে আফ্রিকা মহাদেশের ১৯টি দেশ রয়েছে। এরমধ‌্যে রয়েছে- মিশর, দক্ষিণ আফ্রিকা, কেনিয়া, আলজেরিয়া, সুদান, মরক্কো, ঘানা, রুয়ান্ডা, বুরুন্ডি, তিউনিসিয়া, সিয়েরা লিয়ন, লিবিয়া, কঙ্গো, লাইবেরিয়া, মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র, ইরিত্রিয়া, গাম্বিয়া, বতসোয়ানা ও মরিশাস।দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশের ১২টি দেশের মধ‌্যে রয়েছে- ব্রাজিল, বলিভিয়া, কলম্বিয়া, ভেনেজুয়েলা, সুরিনাম, আর্জেন্টিনা, পেরু, ইকুয়েডর, চিলি, উরুগুয়ে ও গ্যায়ানা।ক্যারিবিয়ান অঞ্চলের ১২টি দেশের মধ‌্যে রয়েছে- কিউবা, ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্র, হাইতি, বাহামা, জ্যামাইকা, ত্রিনিদাদ ও টোবাগো, ডমিনিকা, সেন্ট লুসিয়া, বার্বাডোস, সেন্ট ভিনসেন্ট এবং গ্রেনাডাইন, গ্রেনাডা, সেন্ট কিটস ও নেভিস এবং ওশেনিয়া মহাদেশের ফিজিসহ মোট ৪৪টি দেশকে এসআরওতে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য প্রস্তাব করা হয়েছে।...


Feb 26, 2023

জাতীয়

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ফুলপরীর সাহসীকতায় অভিবাদন ও স্যালুট প্রদান

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ফুলপরীর সাহসীকতায় অভিবাদন ও স্যালুট প্রদান

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ‘অ্যাওয়ারনেস ক্যাম্পেইন অ্যাগেইনস্ট র‍্যাগিং সেক্সুয়াল হ্যারাসমেন্ট’ এর অংশ হিসেবে এক সমাবেশে আয়োজন  করেন।রবিবার বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম হোসেনঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এক সমাবেশে বলেন, ফুলপরীর সাহসীকতার প্রশংসা করে ফুলপরীকে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে অভিবাদন ও স্যালুট জানান।সাদ্দাম হোসেন আরও বলেন, ‘ফুলপরী একজন প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। পাবনা থেকে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে যখন সে গেছে, যে সাহসিকতা ফুলপরী দেখিয়েছে, ন্যায় বিচারের জন্য লড়াই করার যে অদম্য স্পৃহা দেখিয়েছে, আমরা মনে করি, ফুলপরী বাংলাদেশে বেগম রোকেয়া ও সুফিয়া কামালের সত্যিকারের উত্তরসূরী।‘ফুলপরী বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিবাদের নাম। ফুলপরী ন্যায় বিচারের প্রতীকের নাম। ফুলপরীসহ অসংখ্য ফুলপরীর পক্ষে রয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।আজকে যে র‍্যাগিং বিরোধী আন্দোলনের সূচনা হয়েছে, যৌন হয়রানি বিরোধী আন্দোলনের সূচনা হয়েছে, এ আন্দোলনের প্রতীক হচ্ছেন ফুলপরী।তিনি আরও বলেন, নিপীড়ক যেই হোক, নিপীড়কদের যেই দলীয় পরিচয় থাকুক, যেই ক্ষমতার পরিচয় থাকুক, যেই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরিচয় থাকুক, যেই পারিবারিক পরিচয় থাকুক না কেন, আমরা দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আমাদের ইস্পাত দৃঢ় ন্যায় বিচারের লড়াইয়ের সামনে সমস্ত দম্ভই ভেঙে যাবে, সমস্ত প্রশাসনিক অসাড়তাই ভেঙে যাবে।অ্যাওয়ারনেস ক্যাম্পেইন অ্যাগেইনস্ট র‍্যাগিং সেক্সুয়াল হ্যারাসমেন্ট কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশের  সমাবেশে আরও উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মাজহারুল কবির শয়ন, সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান সৈকতসহ প্রমুখ।...


Feb 19, 2023

জাতীয়

অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে জঙ্গি হামলার হুমকি নেই - ডিএমপি কমিশনার বলেন

অমর একুশে ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে জঙ্গি হামলার হুমকি নেই - ডিএমপি কমিশনার বলেন

অমর একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে জঙ্গি হামলার কোনো সুনির্দিষ্ট হুমকি নেই বলেন ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক ।রবিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে সার্বিক নিরাপত্তা বিষয়ে ব্রিফিংয়ে ডিএমপি কমিশনার খন্দকার গোলাম ফারুক এ কথা বলেন।তিনি বলেন, আদালত থেকে দুই জঙ্গি যারা ছিনতাই করেছে আমরা তাদের ১২ জনকে গ্রেপ্তার করেছি। তবে ছিনতাই হওয়া দুই জঙ্গি এখনো পলাতক আছে। একুশে ফেব্রুয়ারিতে জঙ্গি হামলার কোনো হুমকি নেই।ডিএমপি কমিশনার বলেন, ২০ ফেব্রুয়ারি রাত ১২টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারির আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে। ১২টার পর পরই রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী প্রথমে শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করবেন। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দুই ভাগে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে। প্রথম ভাগে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য ও বিদেশি কূটনৈতিকরা পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন।প্রথম ভাগে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রিপরিষদের সদস্য ও বিদেশি কূটনৈতিকরা পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে বিদায় নেওয়ার পর জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। করোনার পরে যেহেতু পুরোপুরি উন্মুক্ত পরিবেশে তাই  প্রথমবারের মতো একুশে ফেব্রুয়ারি পালিত হবে  উৎসাহ-উদ্দীপনা নিয়ে ।ভিভিআইপিরা দোয়েল চত্বর হয়ে প্রবেশ করবেন। মন্ত্রিপরিষদের সদস্যরা জিমনেশিয়াম মাঠে গাড়ি রেখে বাকি পথ হেঁটে আসবেন। দুই ভাগে শহীদ মিনারের নিরাপত্তাসহ ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পলাশী প্রান্তর থেকে দোয়েল চত্বর ও বইমেলার পুরো এলাকা সিসিটিভির আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে।খন্দকার গোলাম ফারুক আরও বলেন, অন্যবারের মতো এবারও একইভাবে প্রবেশ করানো হবে। শহীদ মিনারের প্রত্যেকটি প্রবেশপথে আর্চওয়ে বসানো থাকবে। যারাই আসবেন আর্চওয়ের ভেতর দিয়ে তল্লাশির মাধ্যমে প্রবেশ করতে হবে। সঙ্গে ব্যাগ জাতীয় কোনো জিনিস নিয়ে আসবেন না। সাধারণরা পলাশী মোড় হয়ে জগন্নাথ হল হয়ে প্রবেশ করবেন ও দোয়েল চত্বর-চানখাঁরপুল হয়ে বের হয়ে যাবেন।ডিএমপি কমিশনার বলেন, ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬টা থেকে ২১ ফেব্রুয়ারি সকাল ৬টা, এরপর থেকে সন্ধ্যা ৬টা ও সন্ধ্যা ৬টা থেকে পরবর্তী ধাপে মোট তিন ধাপে এ এলাকায় পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হবে। প্রবেশপথ ও বেরিয়ে যাওয়ার পথ ছাড়া সবগুলো সড়ক বন্ধ করে দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। নিরাপত্তা পরিকল্পনায় ঢাবির সহযোগিতায় সার্বিক ব্যবস্থাপনা নেওয়া হয়েছে।...


Feb 16, 2023

জাতীয়

আসন্ন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবসে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার নির্দেশ- আইজিপি

আসন্ন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবসে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার নির্দেশ- আইজিপি

আসন্ন শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে যেকোনও অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে দেশের বড় বড় শহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার নজরদারির আওতায় আনা ও সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছেন আইজিপি।বৃহস্পতিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সকালে পুলিশ সদর দফতরে এক ভার্চুয়াল সভায় এ নির্দেশ দিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন। এসময় পুলিশের সব মেট্রোপলিটন কমিশনার, রেঞ্জ ডিআইজি, জেলার পুলিশ সুপার এবং অন্যান্য ইউনিটের প্রধানরা ভার্চুয়াল সভায় যুক্ত ছিলেন।এছাড়াও পুলিশ সদর দফতর প্রান্তে অতিরিক্ত আইজিপি (প্রশাসন) কামরুল আহসান, অতিরিক্ত আইজিপি (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশনস) আতিকুল ইসলাম, অতিরিক্ত আইজিপি (লজিস্টিকস অ্যান্ড অ্যাসেট অ্যাকুইজিশন) মাজহারুল ইসলাম এবং সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।এসময়ে আইজিপি বলেন, অতীতের মতো এবারও দেশের সম্মানিত নাগরিকরা একুশে ফেব্রুয়ারি নির্বিঘ্নে নিরাপদে উদযাপন করতে পারবেন।একুশের ভাবগাম্ভীর্য ও চেতনাবিরোধী অপ্রীতিকর পরিস্থিতি মোকাবিলায় গোয়েন্দা তথ্য ও নিরাপত্তা ঝুঁকি পর্যালোচনা করে নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এছাড়া গুজবের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। গুজব রটনাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। এসময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম নিবিড়ভাবে মনিটরিংয়েরও নির্দেশ প্রদান করেন।...


Feb 15, 2023

জাতীয়

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন সম্পূর্ণভাবে বৈধ: অ্যাটর্নি জেনারেল

রাষ্ট্রপতি নির্বাচন সম্পূর্ণভাবে বৈধ: অ্যাটর্নি জেনারেল

অ্যাটর্নি জেনারেল এ এম আমিন উদ্দিন বলেছেন, দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের নির্বাচন যথাযথ ও সম্পূর্ণভাবে বৈধ হয়েছে এবং পদটি লাভজনক বলে প্রশ্ন তোলাটা অবান্তর।বুধবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সুপ্রিম কোর্টে নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন।তিনি বলেন, “দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে মো. সাহাবুদ্দিনের নির্বাচিত হওয়ার পর পদটি লাভজনক বলে প্রশ্ন তোলাটা অবান্তর। সম্পূর্ণভাবে রাষ্ট্রপতি নির্বাচন বৈধ, এটাতে কোনও প্রশ্ন করা উচিত না, প্রশ্ন তোলাটা অবান্তর  “অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, বিচারপতি সাহবুদ্দীন আহমদ যখন রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন তখন এটাকে লাভজনক পদ উল্লেখ করে রিট করেছিলেন একজন আইনজীবী। সে রিটের শুনানি শেষে হাইকোর্ট স্পষ্টত কতগুলো ঘোষণা দিয়েছিলেন, যার মধ্যে অন্যতম, রাষ্ট্রপতি প্রজাতন্ত্রের লাভজনক পদে নিযুক্ত কোনও কর্মকর্তা নন।তিনি আরও বলেন, সংবিধানের ৪৮, ৬৬ ও ১৪৭ অনুচ্ছেদ মিলিয়ে পড়লে দেখা যাবে এটা কোনোভাবেই লাভজনক পদের মধ্যে পড়ে না; রাষ্ট্রপতি কোনোক্রমেই সরকারের কর্মে নিয়োজিত কোনও ব্যক্তি নন।উল্লেখ্য যে, দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সাবেক কমিশনার হলেও দেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি পদে আসীন হতে মো. সাহাবুদ্দিনের আইনগত কোনো বাধা নেই বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার (ইসি) মো. আলমগীর। রাষ্ট্রপতি পদকে লাভজনক বলা যাবে না বলেও জানান এই কমিশনার।মঙ্গলবার ১৪ই ফেব্রুয়ারি, রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ইসি আলমগীর এ কথা জানান।এর আগে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি রাষ্ট্রপতি পদে একক প্রার্থী হওয়ায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও সাবেক দুর্নীতি দমন কমিশনার মো. সাহাবুদ্দিনকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করেন সিইসি।...


Feb 12, 2023

জাতীয়

দৈনিক পত্রিকা’র আরও ডিক্লেয়ারেশন বাতিল করা হবে

দৈনিক পত্রিকা’র আরও ডিক্লেয়ারেশন বাতিল করা হবে

দৈনিক পত্রিকা’র অনুমোদন নিয়েও যারা প্রতিদিন পত্রিকা বের করেন না, এ ধরনের পত্রিকার ডিক্লেয়ারেশন বাতিলের কাজ করছে তথ্য মন্ত্রণালয়।রবিবার (১২ ফেব্রয়ারি) বাংলাদেশ সংবাদপত্র পরিষদের (বিএসপি) প্রতিনিধিদের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে মন্ত্রী একথা জানান।এসময় তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘শুধু যেদিন বিজ্ঞাপন পায় সেদিনই ছাপানো হয়, এরই মধ্যে এ ধরনের ১০০ পত্রিকার ডিক্লেয়ারেশন বাতিল করা হয়েছে।‘‘দৈনিক পত্রিকা’র অনুমোদন নিয়েও যারা প্রতিদিন পত্রিকা প্রকাশ করেন না, তাদের ডিক্লেয়ারেশন বাতিলের জন্য তথ্য মন্ত্রণালয় কাজ শুরু করেছে, দ্রুতই আরও অনেক পত্রিকার ডিক্লেয়ারেশন বাতিল করা হবে, বলেও জানান তিনি।এসময় রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়েও কথা বলেন তথ্যমন্ত্রী। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া মোহাম্মদ সাহাবুদ্দিন চুপ্পু প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে একজন অসাধারণ মানুষকে রাষ্ট্রপতি পদের জন্য মনোনয়ন দিয়েছে। ২২তম রাষ্ট্রপতির জন্য মনোনয়ন পাওয়া সাহাবুদ্দিন চুপ্পু একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন। দেশের স্বাধীনতার জন্য তার যে অবদান সেটা অবিস্মরণীয়। পদ্মা সেতু নিয়ে যে ষড়যন্ত্র হয়েছে এবং দুর্নীতি যে হয় নাই, সে সময় দুদকের কমিশনার হিসেবে অত্যন্ত দৃঢ়তার পরিচয় দিয়েছেন। তিনি মাঠের রাজনীতিতেও নিজের মেধার পরিচয় দিয়েছেন।’দেশের রাষ্ট্রপতি নির্বাচন নিয়ে বিএনপির কোনও আগ্রহ নেই, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন মন্তব্যের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিএনপির আসলে এই দেশটা নিয়েই কোনও আগ্রহ নাই। তাদের সব আগ্রহ তারেক জিয়াকে দেশে ফিরিয়ে আনা এবং খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে মুক্ত করা। তাই তাদের এ ধরনের মন্তব্য নিয়ে ভাবছেনা সরকার।’তিনি বলেন, ‘বিএনপি পদযাত্রার নামে দেশে একটা বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে চেয়েছিল। কিন্তু সরকারের সজাগ দৃষ্টির জন্য তা পারেনি তারা।’উল্লেখ্য যে, চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের তথ্যানুযায়ী, বর্তমানে দেশে নিবন্ধিত পত্রিকার সংখ্যা ৩ হাজার ২২২। নিবন্ধিত সংখ্যার মধ্যে দৈনিক পত্রিকা রয়েছে ১ হাজার ৩২৩। বর্তমানে রাজধানী ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক, সাপ্তাহিক ও মাসিক পত্রিকার সংখ্যা এক হাজার ১৪১টি। এরমধ্যে দৈনিক পত্রিকা ৫০৯টি, সাপ্তাহিক ৩৪৫টি এবং মাসিক পত্রিকা ২৮৭টি।...


Feb 11, 2023

জাতীয়

শান্তি শপথে বলীয়ান নিরাপত্তা রক্ষায় রয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের বিশেষ অবদান

শান্তি শপথে বলীয়ান নিরাপত্তা রক্ষায় রয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের বিশেষ অবদান

শান্তি শপথে বলীয়ান’ মূলমন্ত্রে উজ্জীবিত বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ মেগাসিটির বৈচিত্র্যময় মহানগরী ঢাকার সার্বিক নিরাপত্তা, উন্নয়ন ও বিনিয়োগবান্ধব স্থিতিশীল পরিবেশ বজায় রাখতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের রয়েছে বিশেষ অবদান ।ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর উদ্বোধন করেছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন। শনিবার বিকেলে ডিএমপি সদর দফতরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের পর তিনি বেলুন উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে শনিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টায় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ৪৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী দিবসের অনুষ্ঠানমালা। শোভাযাত্রায় ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ ডিএমপির সুসজ্জিত অশ্বারোহী ও ব্যান্ড দল, ডগ স্কোয়াড, সোয়াট, বোমা ডিসপোজালসহ সব স্তরের পুলিশ ইউনিটের সদস্যরা শোভাযাত্রায় অংশ গ্রহন করেন।ডিএমপির প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, ‘ঢাকা মহানগরীর নিরাপত্তা বিধানের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠিত ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) ঢাকা মহানগরীর নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট দায়িত্ব নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করছে। সামাজিক নিরাপত্তা ও মানুষের মৌলিক অধিকার সমুন্নত রাখতে এবং পুলিশি সেবার মান আরও উন্নত করতে ডিএমপিকে আরও বেশি জনসম্পৃক্ত হতে হবে এবং জনগণের বন্ধু হয়ে কাজ করতে হবে। বিশ্বায়নের বর্তমান বাস্তবতায় যুগোপযোগী পুলিশি সেবা প্রদানে উন্নত প্রশিক্ষণ ও শিক্ষার মাধ্যমে ডিএমপির সদস্যদের সমৃদ্ধ হতে হবে।‘ডিএমপির প্রতিষ্ঠা দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ ও সাইবার অপরাধ দমনে আন্তর্জাতিক মানের সক্ষমতা অর্জনে পুলিশকে শক্তিশালী করা হচ্ছে। এর ফলে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের আন্তর্জাতিক, আঞ্চলিক ও স্থানীয় চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাংলাদেশ পুলিশের ভূমিকা ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হয়েছে। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনেও পুলিশের গৌরবোজ্জ্বল সাফল্য বাংলাদেশকে বৈশ্বিক পরিমণ্ডলে অনন্য মর্যাদার আসনে অধিষ্ঠিত করেছে।‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আর বলেন, ‘ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশকে আধুনিক, যুগোপযোগী ও দক্ষ করে গড়ে তোলার লক্ষ্যে নানামুখী পদক্ষেপ নিয়েছে। জঙ্গিবাদ দমনে ডিএমপির দক্ষ ও চৌকস ইউনিট কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের (সিটিটিসি) অবদান এখন সর্বমহলে প্রশংসিত। পরিবর্তিত অপরাধের ধরনের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সাইবার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ডিএমপি বেশ সুনামের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে।‘উল্লেখ্য যে, ১৯৭৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারি মাত্র ১২টি থানা ও সাড়ে ছয় হাজার জনবল নিয়ে গঠিত হয় ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। প্রতিষ্ঠাকালীন...


Feb 07, 2023

জাতীয়

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে উপ-প্রেস সচিব হিসেবে  তথ্য ক্যাডারের কর্মকর্তা নূর এলাহি মিনার নিয়োগ

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে উপ-প্রেস সচিব হিসেবে তথ্য ক্যাডারের কর্মকর্তা নূর এলাহি মিনার নিয়োগ

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে উপ-প্রেস সচিব হিসেবে নিয়োগ পেলেন তথ্য ক্যাডারের কর্মকর্তা নূর এলাহি মিনা।জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রেষণ শাখা-১ এর উপসচিব আব্দুল্লাহ আরিফ মোহাম্মদ মঙ্গলবার স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে নূর এলাহি মিনাকে বদলিপূর্বক স্ববেতনে প্রেষণে নিয়োগের নিমিত্ত তার চাকরি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ন্যস্ত করেন।নূর এলাহি মিনার নিউইয়র্কে অবস্থিত জাতিসংঘ সদর দপ্তরে বাংলাদেশ মিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি (প্রেস) হিসেবে ছয় বছর দায়িত্ব পালন শেষে সদ্য দেশে ফিরে তার মূল কর্মস্থল বাংলাদেশ বেতারের উপপরিচালক পদে যোগ দেন।নূর এলাহি মিনা ১৯৭৩ সালের ৮ জানুয়ারি গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানার ভাট্টাইধোবা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের প্রেস অনুবিভাগে ইহসানুল করিম প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিবের দায়িত্বে আছেন।...


Feb 07, 2023

জাতীয়

নির্বাচনে নির্ধারিত সীমানা বহাল রাখার পূর্বে আপত্তি  শুনানি করতে চান নির্বাচন কমিশন

নির্বাচনে নির্ধারিত সীমানা বহাল রাখার পূর্বে আপত্তি শুনানি করতে চান নির্বাচন কমিশন

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে  সীমানা গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সময় যা ছিল তা নিয়ে খসড়া প্রকাশ করা হবে। আগের সংসদ নির্বাচনে নির্ধারিত সীমানাই বহাল রাখতে চায় বর্তমান নির্বাচন কমিশন।মঙ্গলবার (৭ ফেব্রুয়ারি) নির্বাচন ভবনে কমিশন সভা শেষে ইসি সচিব মো. জাহাংগীর আলম বলেন, চলতি মাসে ৩০০ আসনের নির্বাচনি এলাকার সীমানার খসড়া প্রকাশ করবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।‘নির্ধারিত সময়ের মধ্যে যেসব দাবি আপত্তি উত্থাপিত হবে এবং এখন পর্যন্ত যেসব আবেদন জমা হয়েছে সবগুলো মিলিয়ে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে। শুনানি শেষে বিধি মোতাবেক চূড়ান্ত বিভক্তি এলাকা ঘোষণা করা হবে।’ সীমানা নিয়ে ‘আপত্তি’তে ইতোমধ্যেই প্রায় ২০ থেকে ২৫টি আবেদন জমা হয়েছে বলেও জানান ইসি সচিব।,    অন্য এক প্রশ্নের জবাবে ইসি সচিব বলেন, ‘দ্বাদশ নির্বাচনের পূর্ববর্তী সময়ে যেভাবে সীমানা নির্ধারণ করা হয়েছে সেই পদ্ধতি অনুসরণ করে, অর্থাৎ এখন যেটা আছে সেটা দিয়েই আমরা খসড়া প্রকাশ করবো। এরপর কারও যদি কোনও আপত্তি থাকে, সেই আপত্তি দাখিল করবে। সব আবেদনের শুনানি হবে। এরপর চূড়ান্ত হবে কয়টা আসনের সীমানা পরিবর্তন হচ্ছে।’ বিজ্ঞপ্তিতে দাবি আপত্তির জন্য একটা সময় নির্ধারণ করা হবে।সচিব আরও বলেন, আগামী সপ্তাহের মধ্যেই ‘খসড়া প্রকাশ করা হবে। বাস্তবতা এবং আইনের বিষয়টাও তাই। আগে তো মানুষকে জানাতে হবে। তারপর তাদের কোনো আপত্তি থাকলে তার ওপর শুনানি হবে।’তিনি জানান, ‘যে আইন আছে প্রথম হচ্ছে ভৌগলিক অখণ্ডতা, তারপর আঞ্চলিক অবিভাজ্যতা, তারপর প্রশাসনিক এলাকা, চতুর্থত জনসংখ্যার ঘনত্ব। এ সবগুলোর বিবেচনায় নিয়ে যদি প্রয়োজন হয় সংশোধন হবে। না হলে হবে না।’উল্লেখ্য যে , রবিবার (১৫ জানুয়ারি) খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ করেন নির্বাচন কমিশনের সচিব জাহাঙ্গীর আলম। গত মে থেকে নভেম্বর পর্যন্ত ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম চলে। তিন বছর পর পর এই তালিকা হালনাগাদ করা হয়।সব মিলিয়ে মৃতদের বাদ ও নতুনদের অন্তর্ভুক্ত করে এ বছরের খসড়া ভোটার তালিকা নতুন অন্তর্ভুক্তযোগ্য ভোটারের সংখ্যা ৫৭ লাখ ৭৪ হাজার ১৪৮ জন, ফলে ভোটার বাড়লো ৫ দশমিক ১০ শতাংশ। এখন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে ভোট দিতে পারবেন এমন ভোটারের সংখ্যা দাঁড়াবে ১১ কোটি ৯০ লাখ ৬১ হাজার...


Feb 01, 2023

জাতীয়

আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে শাহজালাল বিমানবন্দরের রাতে ফ্লাইট ওঠানামা বন্ধ থাকবে

আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে শাহজালাল বিমানবন্দরের রাতে ফ্লাইট ওঠানামা বন্ধ থাকবে

আগামীকাল বৃহস্পতিবার থেকে ৩ এপ্রিল রাত  ২টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত  প্রতিদিন  শাহজালাল বিমানবন্দরের ফ্লাইট ওঠানামা বন্ধ থাকবে।হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম বলেন, হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফ্লাইট ব্যবস্থাপনায় সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং যাত্রীসেবার মান বাড়াতে রানওয়ের সেন্ট্রাল লাইনে লাইট স্থাপন করা হবে। এ জন্য ২ ফেব্রুয়ারি থেকে ৩ এপ্রিল পর্যন্ত বিমানবন্দরের রানওয়ে রাত ২টা থেকে সকাল ৭টা পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। এ বিষয়ে বিমানবন্দরের এটিএম বিভাগ থেকে নোটাম জারি করা হয়েছে।হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আগামী দুই মাস রাতে ৫ ঘণ্টা ফ্লাইট চলাচল বন্ধ থাকবে। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, রানওয়ের লাইটিং ব্যবস্থার সংস্কারকাজের জন্য সকাল ৭টা থেকে বেলা সাড়ে ১১টা এবং রাত ১০টা থেকে ২টা পর্যন্ত ফ্লাইটের সংখ্যা বেশি থাকবে।উল্লেখ্য, এভিয়েশন খাতের মেগা প্রকল্প হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনালের অপারেশনাল কার্যক্রম শুরু হতে যাচ্ছে ২০২৩ সালের অক্টোবরে। সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেন, ‘টার্মিনাল-১ ও ২-এর সক্ষমতা ছিল বছরে ৮ মিলিয়ন যাত্রী। সেটা এখন হবে ২৪ মিলিয়ন। যাত্রীদের নিয়েই তো বেশি পরিমাণ বিমান আসবে। সরকারের প্রত্যাশা বাংলাদেশে একদিন এভিয়েশন হাব হবে। এই এভিয়েশন হাব হওয়ার জন্য যেসব সুযোগ-সুবিধা দরকার আমরা সেগুলো তৈরির পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি।’এ কারণে গ্রুপ ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ কামরুল ইসলাম বিমানবন্দর কর্তৃক্ষের পক্ষে দুঃখ প্রকাশ বলেন, যাত্রীদের যাত্রা সুগম ও নিরবচ্ছিন্ন করতে বিমানবন্দর ট্রাফিক বিভাগসহ বিমানবন্দরে সংশ্লিষ্ট অন্যান্য সরকারি–বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সমন্বয়ের মাধ্যমে ফ্লাইট ব্যবস্থাপনাসহ অন্যান্য বিষয়ে পূর্বপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।সাধারণত শীতকালের এই সময়টুকুতে কুয়াশার আধিক্য থাকে। ফলে ফ্লাইট চলাচলে বিঘ্ন ঘটে। সে অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ লাইটিংব্যবস্থা উন্নয়নের মাধ্যমে সংস্কার কাজের উদ্যোগ নিয়েছে। শাহজালাল বিমানবন্দরে সংস্কারের জন্য যে সময় নির্ধারণ করা হয়েছে এই সময়টুকুতে প্রতিদিন সাত থেকে আটটি ফ্লাইট চলাচল করত। তবে সেগুলো রিশিডিউল করা হয়েছে।আগামী দুই মাস রাতে পাঁচ ঘণ্টা ফ্লাইট চলাচল বন্ধ থাকার কারণে যাত্রীদের সাময়িক অসুবিধায় পড়তে হতে পারে, সে জন্য বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ একই সঙ্গে পরিকল্পনা বাস্তবায়নে মনিটরিং টিম গঠনও করেছেন।...


Jan 30, 2023

জাতীয়

১৯১টি অনলাইন নিউজ পোর্টালের লিংক বন্ধ করবে টেলিকমিউনিকেশন- হাসান মাহমুদ

১৯১টি অনলাইন নিউজ পোর্টালের লিংক বন্ধ করবে টেলিকমিউনিকেশন- হাসান মাহমুদ

জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ায় এমন কার্যক্রম পরিচালনাকারী ও সরকারের গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যের ভিত্তিতে ১৯১টি অনলাইন নিউজ পোর্টালের ডোমেইন বরাদ্দ বাতিলকরণসহ লিংক বন্ধ করার জন্য ইতোমধ্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে চিঠি দেওয়া হয়েছে।সোমবার (৩০ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদের বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সদস্য মুজিবুল হকের এক প্রশ্নের জবাবে, স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উত্থাপিত প্রশ্নোত্তরে তথ্যমন্ত্রী জানান, অনলাইন সংবাদ মাধ্যমে দেশবিরোধী সংবাদ প্রচারের অভিযোগ পেলে তা বন্ধের পদক্ষেপ নেওয়া হবে । ১৯১টি অনলাইন নিউজ পোর্টালের লিংক বন্ধে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে চিঠি পাঠানো হয়েছে।চট্টগ্রাম-৪ আসনের সংসদ সদস্য দিদারুল আলমের প্রশ্নের জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, সরকারি ইলেকট্রনিক গণমাধ্যম হিসাবে বাংলাদেশ টেলিভিশনে মানহীন অনুষ্ঠান প্রচারের সুযোগ নেই। রাষ্ট্রীয় নীতিমালা অনুসরণ করে বিটিভি দেশীয় সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য লালন করে সংগীতানুষ্ঠান, তথ্যচিত্র, নাটক, বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানসহ নানাবিধ অনুষ্ঠান নির্মাণ ও প্রচার করছে।হাছান মাহমুদ বলেন, বর্তমানে দেশে রাষ্ট্রীয় মালিকানায় ৪টি টিভি চ্যানেল এবং ৩৪টি বেসরকারি স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল তাদের কার্যক্রম চালিয়া যাচ্ছে। সরকারের জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা-২০১৪ অনুযায়ী টিভি চ্যানেলগুলো সম্প্রচার করছে। জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালায় অপসংস্কৃতি রোধে স্পষ্ট নির্দেশনা রয়েছে।বর্তমানে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় হতে অনলাইন নিউজ পোর্টাল ১৬২টি, দৈনিক পত্রিকার অনলাইন পোর্টাল ১৬৯টি এবং টিভি চ্যানেলের অনলাইন পোর্টাল ১৫টিসহ ৩৪৬টি অনলাইন পত্রিকা নিবন্ধন দেওয়া হয়েছে।দেশবিরোধী সংবাদ প্রচার বন্ধে সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে উল্লেখ করে হাছান মাহমুদ বলেন, বর্তমানে রাজধানী ঢাকা হতে প্রকাশিত দৈনিক, সাপ্তাহিক ও মাসিক পত্রিকার সংখ্যা এক হাজার ১৪১টি। এর মধ্যে দৈনিক পত্রিকা ৫০৯টি, সাপ্তাহিক ৩৪৫টি এবং মাসিক পত্রিকা ২৮৭টি।...


Jan 29, 2023

জাতীয়,শিক্ষা

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হবে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মতিতে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি এইচএসসি-সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে।আন্তশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান তপন কুমার সরকার রোববার (২৯ জানুয়ারি) সকালে এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, সকাল ১০টার মধ্যে শিক্ষামন্ত্রী দেশের সব শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কাছে ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেবেন।পরে সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফলের বিস্তারিত তুলে ধরবেন তিনি।করোনা পরিস্থিতি অনেকটা স্বাভাবিক হওয়ায় গত বসর ৬ নভেম্বর সারা দেশে অনেকটা স্বাভাবিক পরিবেশে একযোগে শুরু হয় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। করোনাভাইরাস মহামারী ও বন্যার কারণে এবার সময় বদলে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয় ৬ নভেম্বর থেকে । নয়টি সাধারণ শিক্ষাবোর্ড, মাদ্রাসা বোর্ড ও কারিগরি বোর্ড মিলিয়ে ১২ লাখ ৩ হাজার ৪০৭ জন শিক্ষার্থী।মোট ১১টি শিক্ষা বোর্ডের মধ্যে ৯টি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ৯ হাজার ১৮১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬ লাখ ২২ হাজার ৭৯৬ জন ছাত্র এবং ৫ লাখ ৮০ হাজার ৬১১ জন ছাত্রী মোট ১ হাজার ৫২৮টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন। ।মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে আলিম পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন মোট পরীক্ষার্থী ৯৪ হাজার ৭৬৩ জন। এর মধ্যে ছাত্র ৫১ হাজার ৬৯৫ জন এবং ছাত্রী ৪৩ হাজার ৬৮ জন। মোট ২ হাজার ৬৭৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষার্থীরা মোট ৪৪৮টি কেন্দ্র অংশ নেন।কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি (বিএম/বিএমটি), এইচএসসি (ভোকেশনাল), ডিপ্লোমা-ইন-কমার্স পরীক্ষায় ১ লাখ ২২ হাজার ৯৩১ জন অংশ নেন। এর মধ্যে ছাত্র ৮৮ হাজার ৯১৮ জন এবং ছাত্রী ৩৪ হাজার ১৩ জন। মোট ১ হাজার ৮৫৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৬৭৩টি কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেন পরীক্ষার্থীরা।এবারও পূর্বের ন্যায় বিষয়, নম্বর ও সময় কমিয়ে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। আগের শিক্ষাবর্ষের মত সিলেবাসও ছিল সংক্ষিপ্ত। পরীক্ষা শেষ হওয়ার দুই মাসের মধ্যে ফলাফল প্রকাশের চেষ্টা করে শিক্ষাবোর্ডগুলো। ১২ লাখ শিক্ষার্থীর অপেক্ষার অবসান শেষ করে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি বেলা ১২টার পর থেকে ফলাফল জানতে পারবে শিক্ষার্থীরা।...


Jan 28, 2023

জাতীয়

ছাত্রলীগ সহ সম্মেলন করা সংগঠনকে দ্রুত পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার নির্দেশ -ওবায়দুল কাদের

ছাত্রলীগ সহ সম্মেলন করা সংগঠনকে দ্রুত পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার নির্দেশ -ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি দ্রুত সম্পন্ন করতে নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের উপ-কমিটি গুলোতে দ্রুত পূর্ণাঙ্গ কমিটি করার নির্দেশ দিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সম্মেলনের আগে দলীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের ব্যাপক  উপস্থিতি দেখা গেলেও এখন সেভাবে দেখা যায় না, ‘সম্মেলন চলে গেছে, অনেকেরই একটু গা-ছাড়া ভাব। পার্টি অফিসে সন্ধ্যায় গেলে লোকই দেখা যায় না। আগে তো ঢুকতেই পারতাম না।এখন মনে হচ্ছে, প্রার্থী হয়ে তো লাভ নেই, সেজন্য গা-ছাড়া ভাব আছে। গা ঝাড়া দিয়ে উঠুন।’রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ২৭ জানুয়ারি দলের ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ শাখা এবং সহযোগী সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে বর্ধিত সভায় সভাপতির বক্তব্যে এ নির্দেশ দেন তিনি।সম্মেলন করা সংগঠনের কমিটি দ্রুত করার নির্দেশ দিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘উপ- কমিটির চেয়ারম্যান ও সদস্য সচিবের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। কাজেই উপ-কমিটিগুলোতে নতুন করে কমিটি করতে হবে। সেই প্রক্রিয়াটা যার যার বিভাগ থেকে উদ্যাগ নেবেন। এটা আমি বিশেষভাবে অনুরোধ করছি।’‘আর যারা যে বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা আছেন, তাদের কাছে অনুরোধ করব, সম্মেলন হয়ে গেছে অনেকদিন, কিন্তু পূর্ণাঙ্গ কমিটি এখনো জমা হয়নি। আমাদের বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্তরা আমাকে জানাবেন, এই কমিটি ঠিক আছে কি না উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমার কাছে কালকে অফিস থেকে ২৯টি কমিটি এসেছে। এখন এগুলো আমার জানতে হবে বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্তরা কমিটি দেখেছেন কি না। তারা দেখলে আমি নেত্রীর সঙ্গে আলাপ করে অনুমোদন দিতে পারি।’এ সময়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, ‘সহযোগী সংগঠন স্বাচিপের (স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ) এখনও কমিটি করার উদ্যোগই নেই। ছাত্রলীগের সম্মেলন হয়ে গেছে অনেক দিন এখনো পূর্ণাগ কমিটি প্রদান করে নাই। মহিলা আওয়ামী লীগ অফিসে যাওয়া যায় না মহিলাদের লাইন। এখনো পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। যুব মহিলা লীগেরও পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি।’ তাই যত দ্রুত সম্ভব আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি সম্পন্ন করতে বলছি।‘এ সময় সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম...


Jan 26, 2023

জাতীয়

গুজব, বিভ্রান্তি অসত্য তথ্যের বিরুদ্ধে ডিসিদের ব্যবস্থা নিতে বললেন তথ্যমন্ত্রী

গুজব, বিভ্রান্তি অসত্য তথ্যের বিরুদ্ধে ডিসিদের ব্যবস্থা নিতে বললেন তথ্যমন্ত্রী

ভুল তথ্য পরিবেশন এবং গুজব ও বিভ্রান্তি ছড়ানোর বিরুদ্ধে  ব্যবস্থা নিতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশন এ নির্দেশ দেন তিনি।মন্ত্রী বলেন, অনিবন্ধিত অনলাইন মাধ্যমে অনেক সময়ই ভুল তথ্য পরিবেশন করা হচ্ছে এবং গুজব ও বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে, যেগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।তিনি বলেন, ‘আমরা এখন পর্যন্ত ১৭০টি অনলাইন পোর্টালকে নিবন্ধন দিয়েছি। পত্রিকার অনলাইন হিসেবে আরও ১৭০টির মতো নিবন্ধন দেওয়া হয়েছে। এর বাইরে টেলিভিশনের অনলাইন পোর্টাল হিসেবে আরো ১৫-১৬টি অনলাইনকে নিবন্ধন দেওয়া হয়েছে।”হাছান মাহমুদ বলেন, ‘জেলা পর্যায়ে অনেকগুলো অনিবন্ধিত অনলাইন পোর্টাল পরিচালিত হয়। আমরা এ পর্যন্ত ১২টি আইপিটিভিকে নিবন্ধন দিয়েছি। এর বাইরে কোনো আইপিটিভি নিবন্ধিত নয়। বাকি যা আছে সবগুলো অনিবন্ধিত।’ এগুলো নিয়ন্ত্রণ করা আমাদের জন্য একটি বড় চ্যালেঞ্জ।’জেলা প্রশাসক সম্মেলনের গুরুত্ব উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘জেলা প্রশাসক সম্মেলন সরকারের প্রশাসনের একটি নিয়মিত কার্যক্রম। সরকারের কার্যক্রমগুলো বাস্তবায়ন করা হয় জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে। কারণ সাধারণ জনগণ জেলা প্রশাসনকেই সবসময় কাছে পায়।’এসময় মন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা জেলা প্রশাসকদের বলেছি, আপনারা যদি দেখেন কেউ বিভ্রান্তি, গুজব ও অসত্য সংবাদ ছড়াচ্ছে, সেগুলোর বিষয়ে আপনারা আইনগত ব্যবস্থা নেবেন। আমাদেরকে জানানো হলে আমরা তড়িৎ ব্যবস্থা নিতে পারব। একসঙ্গে বিভ্রান্তিকর তথ্যের পাশাপাশি সঠিক সংবাদটিও যেন প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়।’তিন দিনব্যাপী ‘জেলা প্রশাসক সম্মেলন-২০২৩’ গত মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে  উদ্বোধন করে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘‘প্রতিটি গ্রামের মানুষকে আমরা শহরের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দিয়ে যেতে চাই। তাতে শহরমুখী প্রবণতা কমে যাবে, গ্রামে অর্থনৈতিক কর্মচাঞ্চল্য বৃদ্ধি পাবে। আমাদের উন্নয়ন শুধু রাজধানীকেন্দ্রিক বা শহরকেন্দ্রিক হবে না। যে কারণে আমি ইতিমধ্যে ঘোষণা দিয়েছি- আমার গ্রাম, আমার শহর।’ ...


Jan 24, 2023

জাতীয়

তিন দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

তিন দিনব্যাপী ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের শাপলা হল থেকে ২৫ দফা দিক নির্দেশনা প্রদান সহ  তিন দিনব্যাপী  ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধন  করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘’আজকে আমরা যাঁরা জনগণের নির্বাচিত প্রতিনিধি যতটুকু সুযোগ সুবিধা পাই, আপনারাও সরকারি আমলা হিসেবে যে সুযোগ সুবিধা পান এগুলোর অবদান তো জনগণের। কারণ জনগণের অর্থ, জনগণের ট্যাক্সের টাকা দিয়েই তো সব কিছু চলে। জনগণের উন্নয়নের প্রচেষ্টা আমরা চালাচ্ছি’’।‘’বিভিন্ন খাতে ব্যয়ে সতর্কতা অবলম্বন করছে সরকার। এখন মূলত মানুষের খাদ্য, চিকিৎসা, কল্যাণকেই প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে। জনগণের অর্থ, জনগণের ট্যাক্সের টাকা দিয়েই তো সব কিছু চলে। জনগণের উন্নয়নের প্রচেষ্টা আমরা চালাচ্ছি’’ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও বলেন, ‘‘প্রতিটি গ্রামের মানুষকে আমরা শহরের সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দিয়ে যেতে চাই। তাতে শহরমুখী প্রবণতা কমে যাবে, গ্রামে অর্থনৈতিক কর্মচাঞ্চল্য বৃদ্ধি পাবে। আমাদের উন্নয়ন শুধু রাজধানীকেন্দ্রিক বা শহরকেন্দ্রিক হবে না। যে কারণে আমি ইতিমধ্যে ঘোষণা দিয়েছি- আমার গ্রাম, আমার শহর।‘’এ সময়ে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার জি এস এম জাফরউল্লাহ, নরসিংদী জেলা প্রশাসক আবু নইম মোহাম্মদ মারুফ খান, বান্দরবানের ডিসি ইয়াসমিন পারভীন তিবরীজি বক্তব্য দেন উদ্বোধনী পর্বে।সরকারের নীতিনির্ধারক এবং জেলা প্রশাসকদের মধ্যে সরাসরি মতবিনিময়ের পাশাপাশি প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা দিতে প্রতি বছর ডিসি সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।এ বছর ডিসি সম্মেলনে ২৬টি অধিবেশন হবে। আর কার্য-অধিবেশন হবে ২০টি। সেগুলো হবে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে। প্রথম দিন মঙ্গলবার ৭টি, বুধবার ৮টি এবং শেষ দিন বৃহস্পতিবার ১০টি অধিবেশন থাকবে।মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন জানিয়েছেন, ডিসি ও বিভাগীয় কমিশনারদের কাছ থেকে এ বছর সম্মেলনে আলোচনার জন্য ২৪৫টি প্রস্তাব পাওয়া গেছে; এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ২৩টি প্রস্তাব পাওয়া গেছে স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ থেকে।এছাড়া ভূমি ব্যবস্থাপনা, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নয়ন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহের কার্যক্রম জোরদারকরণ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা, ত্রাণ পুনর্বাসন কার্যক্রম; স্থানীয় পর্যায়ে কর্মসৃজন ও দারিদ্র বিমোচন কর্মসূচি বাস্তবায়ন, সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী কর্মসূচি বাস্তবায়ন, তথ্য...


Jan 22, 2023

জাতীয়

২৪ জানুয়ারি শুরু ডিসি সম্মেলন; আরও ক্ষমতা চান জেলা প্রশাসকরা

২৪ জানুয়ারি শুরু ডিসি সম্মেলন; আরও ক্ষমতা চান জেলা প্রশাসকরা

নিয়মিত কর্মসূচির অংশ হিসাবে নতুন প্রস্তাবনা নিয়ে শুরু হতে যাচ্ছে তিন দিনব্যাপী জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলন। সম্মেলনে দেশের আট বিভাগের বিভাগীয় কমিশনারনাও অংশ নেবেন। গুরুত্বের দিক থেকে এবারের ডিসি সম্মেলন অন্যান্য বছরের বছরের তুলনায় ভিন্ন ও খুবই গুরুত্বপূর্ণ।মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে জানা যায়,আগামী ২৪ জানুয়ারি সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে ডিসি সম্মেলন উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনের পর করবী হলে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে মুক্ত আলোচনায় অংশ নেবেন জেলা প্রশাসকরা।ওই দিনই প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে ডিসি সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেবেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এবং মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন। এ সময় সম্মেলনে সরকারপ্রধান থেকে শুরু করে মন্ত্রী ও সচিবেরা সরাসরি উপস্থিত থেকে ডিসিদের সঙ্গে কথা বলেন এবং সরকারের বিভিন্ন দিকনির্দেশনাসহ মাঠ পর্যায়ের দায়িত্বপালনের ক্ষেত্রে ডিসিরা সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরবেন।মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে পাওয়া এবারের ডিসি সম্মেলনে প্রস্তাবনা মধ্যে রয়েছে ডিসি-ইউএনওকে সভাপতি করে জেলা ও উপজেলায় স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা কমিটি’ গঠন এবং সরকারি কর্মচারী আচরণ বিধিমালার মতো এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদের জন্যও সুনির্দিষ্ট বিধিমালা করারসহ বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কর্মরত শিক্ষকদের সরাসরি রাজনীতি করার সুযোগ বন্ধ করা।এছাড়াও উপজেলা শিক্ষা কমিটিতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) চেয়ারম্যান করাসহ বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ সম্পর্কে অন্তত ২৪৪টি প্রস্তাবসহ মাঠপ্রশাসনে জেলা প্রশাসকরা হাসপাতাল ও উন্নয়ন প্রকল্প তদারকির দায়িত্ব, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগে পোষ্য কোটা বাতিল এবং কারাবন্দিদের ভিডিও কলে আত্মীয়স্বজনদের কথা বলার সুযোগের প্রস্তাব দিয়েছেন।সরকারি রাজস্ব প্রশাসনের উন্নয়ন বরাদ্দে ডিসিদের আয়-ব্যয়ের ক্ষমতা চেয়েছেন। খাসজমি বন্দোবস্তের  কবুলিয়ত দলিল বাতিলের ক্ষমতাও চেয়েছেন জেলা প্রশাসকরা। ডিসির এল এ কন্টিনজেন্সি খাতের ব্যয়ের আর্থিক ক্ষমতা বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। স্থানীয় সার্ভে অ্যান্ড সেটেলমেন্ট অফিসকে কাজের সুবিধার্থে ডিসি অফিসের সঙ্গে সার্বক্ষণিক সমন্বয় করার প্রস্তাব রয়েছে এবারের ডিসি সম্মেলনে।এছাড়া সরকারি প্রতিষ্ঠানের নামে অধিগ্রহণ বা বরাদ্দ করা জমি বন্দোবস্তের ক্ষেত্রে ডিসির অনুমতি নেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। জেলায়-উপজেলায় এডিসি ও এসিল্যান্ডের সরকারি বাড়ি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ারও প্রস্তাব করা হয়েছে।সূত্রমতে,যদিও গত বছরের ডিসি সম্মেলনে নেওয়া ২৪২টি সিদ্ধান্তের মধ্যে ১৭৭টি বাস্তবায়ন হয়েছে। এখনও...


Jan 19, 2023

জাতীয়

রোহিঙ্গা শিবিরে বাড়ছে চাঁদাবাজি, অপহরণ ও মাদকের বিস্তার

রোহিঙ্গা শিবিরে বাড়ছে চাঁদাবাজি, অপহরণ ও মাদকের বিস্তার

 আশ্রিত রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চাঁদাবাজি, অপহরণ ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে একের পর এক ভয়ঙ্কর সব অপরাধের ঘটনা বেড়েই চলেছে।রোহিঙ্গাদের নিয়ে অস্থিরতায় আর আতঙ্কে  রয়েছে স্থানীয়রা। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন না হওয়া পর্যন্ত তাদের ভাসানচরসহ অন্য জেলায় বা অন্য কোনো দেশে স্থানান্তর করার দাবি জানিয়েছে কক্সবাজারের সুশীল মহল।উল্লেখ্য, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের এটিএম জাফর আলম সম্মেলন কক্ষে একাদশ জাতীয় সংসদের 'স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি'র ২৬তম বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অপহরণ ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে, রোহিঙ্গা ক্যাম্প কেন্দ্রিক অপহরণকারী ও সন্ত্রাসীদের হুঁশিয়ারিও প্রদান করেন ।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে মন্ত্রী আরো বলেন, গোয়েন্দার মাধ্যমে যাচাই-বাছাই করে প্রকৃত মাদক কারবারিদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হবে।কক্সবাজারে সুশীল সমাজের অন্যতম নেতা ডিএম রুস্তম জানান, এদেশে এসে রোহিঙ্গাদের একটি অংশ এখন বিপুল টাকার মালিক বনে গেছে, জড়িয়ে পরছে বিভিন্ন অপরাধে তাই আর কোনো কথা নয় তাদের ধ্রুত এই দেশ থেকে  সরানোর দাবি তুলছেন তিনি।কক্সবাজার সম্মিলিত নাগরিক আন্দোলন পরিষদের সভাপতি অধ্যাপক মঈনুল হাসান চৌধুরী বলেন, উখিয়া-টেকনাফের ৩৩টি ক্যাম্পে আশ্রিত রোহিঙ্গা থেকে কিছু অংশ দেশের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে। ফলে তারা গোটা দেশের জন্য যেমন হুমকিস্বরূপ তেমনি ক্যাম্পেও আধিপত্য বিস্তারে বিভক্তি সন্ত্রাসী কাযক্রম বাড়ায় সেখানে নিয়মিত হচ্ছে অপহরণ, মারামারি ও মাদক কারবার।২০১৮ সালের ২৩ জানুয়ারি এবং ২২ আগস্ট দুবার রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের দিনক্ষণ ঠিক করা হলেও একজনও ফেরত যায়নি বরং তারা নতুন শর্ত দিয়ে পরিস্থিতি আরও জটিল করে ফেলেছে। মিয়ানমারের মিথ্যা প্রতিশ্রুতিতে ও বিভিন্ন  শর্তের কারণে ভেস্তে গেছে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া। এর আগে দুবার সরকারিভাবে প্রত্যাবাসনের সব আয়োজন হলেও কোনো রোহিঙ্গা ফিরে যায়নি নিজ দেশে। বরং জুড়ে দিয়েছিল নতুন শর্ত এতে অন্ধকারে তলিয়ে গেছে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন।প্রত্যাবাসনের পেছনে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো। মূলত আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো দেশীয় বিভিন্ন এনজিওকে ব্যবহার করে গোপনে প্রত্যাবাসন বিরোধী কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। এতে করে রোহিঙ্গাদের মাঝে ফিরে না যাওয়ার দাবিগুলো উঠে আসছে। আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো বলে চলেছে মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার পরিবেশ হয়নি রোহিঙ্গাদের।এদিকে, গাজীপুরের টঙ্গীতে অনুষ্ঠিতব্য ২য় বিশ্ব...


Jan 16, 2023

জাতীয়

পর্যটন নগরী কক্সবাজারের সঙ্গে রেল যোগাযোগের স্বপ্ন  চূড়ান্ত বাস্তবায়নের পথে

পর্যটন নগরী কক্সবাজারের সঙ্গে রেল যোগাযোগের স্বপ্ন চূড়ান্ত বাস্তবায়নের পথে

পরিকল্পনা মতো কাজ এগোলে এ বছরেই পর্যটন নগরীর কক্সবাজারের সঙ্গে রেল যোগাযোগ স্থাপনের স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নিবে।নয়নাভিরাম প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য, বন্যপ্রাণীর অভয়ারণ্য, পাহাড়, জলাশয় আর ফসলি জমির মাঝ দিয়ে চলে গেছে দোহাজারি-কক্সবাজার রেলপথ, যেটা শেষ হয়েছে পৃথিবীর দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত-সমৃদ্ধ পর্যটন নগরী কক্সবাজারে। এ রেলপথ ভ্রমণকালে যে প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য দৃষ্টিতে ধরা পড়বে তা ভ্রমণপিপাসুদের আনন্দিত ও মুগ্ধ করবে।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অগ্রাধিকার প্রকল্প ১০২ কিলোমিটারের চট্টগ্রাম-কক্সবাজার রেলপথের নির্মাণকাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে। স্বপ্ন এখন চূড়ান্ত বাস্তবায়নের পথে। প্রকল্পের অগ্রগতি ৯০ শতাংশ। আগামী জুনে প্রকল্পের কাজ শেষ হলে এ পথে সাধারণ ট্রেনের সঙ্গে ‘পর্যটন বিশেষ ট্রেন’ চলবে।সাধারণ মানুষ স্বল্প খরচ এবং সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ও সেবায় কক্সবাজারে যেতে পারবেন। কক্সবাজারের রেল স্টেশন হবে আরও বেশি দৃষ্টিনন্দন। ঝিনুক আকৃতির অত্যাধুনিক এ স্টেশনে থাকবে যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা। প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, ২৯ একর জমির ওপর গড়ে উঠা  স্টেশন ভবনের আয়তন এক লাখ ৮৭ হাজার বর্গফুট।কক্সবাজারের আইকনিক রেল স্টেশনে চলন্ত সিঁড়ির মাধ্যমে যাত্রীরা সেতু হয়ে ট্রেনে উঠবেন। আবার ট্রেন থেকে নেমে ভিন্ন পথে তারা বেরিয়ে যাবেন। এ জন্য গমন ও বহির্গমনের দুটি পথ তৈরি করা হচ্ছে। গাড়ি পার্কিংয়ের তিনটি বড় জায়গা থাকবে। পর্যটকরা লাগেজ স্টেশনে রেখেই সারা দিন সৈকত ও দর্শনীয় স্থান ঘুরে আবার ট্রেনে নিজ গন্তব্যে ফিরতে পারবেন। এছাড়া রেলভবনে মসজিদ, শিশুদের বিনোদনের জায়গা, প্যাসেঞ্জার লাউঞ্জ, শপিং মল, রেস্তোরাঁ, তারকামানের হোটেল, ব্যাংক ও কনফারেন্স হল থাকবে। ঝিনুক ফোয়ারা হয়ে ট্রেন আইকনিক স্টেশনে প্রবেশ করবে।কর্মকর্তারা জানান, এ রেলপথ পর্যটন খাত ছাড়াও কক্সবাজারের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। বিশেষ করে এ অঞ্চলের মৎস্যসম্পদ, লবণ, রাবারের কাঁচামাল, বনজ ও কৃষিপণ্য পরিবহন ব্যবস্থা আগের চেয়ে সহজতর হবে। কমখরচে পণ্য পরিবহন করা যাবে। রেলে নির্জঞ্জাট ভ্রমণের সুযোগে পর্যটকের সংখ্যাও বাড়বে।সম্প্রতি কক্সবাজারে রেল প্রকল্পের কাজ পরিদর্শন শেষে রেলপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, চলতি বছরের জুন থেকে অক্টোবরের শেষ নাগাদ দোহাজারী-কক্সবাজার রেললাইন চালু হবে। তখন সারাদেশ থেকে মানুষ ট্রেনে চড়ে সরাসরি কক্সবাজারে যাবেন।রেলপথমন্ত্রী কক্সবাজারের আইকনিক স্টেশনের নির্মাণ কাজ দেখার পর উপস্থিত সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলতে...


Jan 15, 2023

জাতীয়,স্বাস্থ্য

স্বল্প আয়ের ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য দেশেই শুরু হল  লিভার প্রতিস্থাপন

স্বল্প আয়ের ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জন্য দেশেই শুরু হল লিভার প্রতিস্থাপন

দেশের স্বল্প আয়ের ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠী যাতে সফলভাবে লিভার প্রতিস্থাপন করার চিকিৎসা সুবিধা পেতে পারে এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় লিভার প্রতিস্থাপন কার্যক্রম শুরু হয়েছে।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের হেপাটোবিলিয়ারি, প্যানক্রিয়েটিক ও লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট সার্জারি বিভাগের তত্ত্বাবধানে রোববার (১৫ জানুয়ারী) মো. মন্তেজার রহমান নামের এক রোগীর ওপর লিভার প্রতিস্থাপন অস্ত্রোপচার সম্পাদিত হয়।  প্রায় ১২ ঘণ্টাব্যাপী অস্ত্রোপচারে সহযোগিতা করেন ভারতের এশিয়ান ইনস্টিটিউট অব গ্যাস্ট্রোএন্টারোলজির লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট সার্জন ও অ্যানেস্থেসিয়া টিম।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) সফলভাবে লিভার প্রতিস্থাপন করা  হয়েছে বলে জানিয়েছে বিএসএমএমইউ কর্তৃপক্ষ।অস্ত্রপচারের পর ওই দিন এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান বিএসএমএমইউ উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ। সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ৫৩ বছর বয়সী মন্তেজারকে লিভার দান করেন তার বোন শামীমা আক্তার (৪৩)। তার দেহ থেকে সুস্থ লিভারের ৬০ শতাংশ কেটে নেওয়া হয়। মন্তেজারের সিরোটিক লিভারের পুরোটাই কেটে বের করে ফেলা হয় এবং শামীমার দেহ থেকে কেটে নেওয়া সুস্থ লিভারের ৬০ শতাংশ জোড়া দেওয়া হয়। লিভারদাতা শামীমার লিভারটি ধীরে ধীরে রিজেনারেট করবে। বর্তমানে রোগী সুস্থ আছেন।গত ১ জানুয়ারি বগুড়ার লিভারের রোগী মন্তেজারকে বগুড়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি নন-বি, নন-সিজনিত ‘এন্ড স্টেজ লিভার ডিজিজে’ আক্রান্ত ছিলেন।অস্ত্রোপচারে লিভারগ্রহীতার পক্ষে ছিলেন অধ্যাপক মো. মোহছেন চৌধুরী, অধ্যাপক ডা. বিধান চন্দ্র দাস, অধ্যাপক, ডা. আবদুল্লাহ মো. আবু আইয়ুব আনসারী, সহকারী অধ্যাপক ও ডা. সারওয়ার আহমেদ সোবহান। লিভারদাতার পক্ষে ছিলেন অধ্যাপক মো. জুলফিকার রহমান খান, ডা. মো. নূর ই এলাহী, ডা. মোহাম্মদ সাইফ উদ্দীন ও ডা. আশীষ সাহা।ডা. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, দেশের স্বল্প আয়ের ও প্রান্তিক জনগোষ্ঠী যাতে এই চিকিৎসা সুবিধা পেতে পারে এ জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় লিভার প্রতিস্থাপন কার্যক্রমের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্টেশন অপারেশনটি ছিল একটি লিভিং ডোনার লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্টেশন। এর অর্থ হলো রোগীর আত্মীয় সম্পর্কিত কোনো দাতা থেকে লিভারের একটি অংশ কেটে রোগীর দেহে প্রতিস্থাপন করা হয় (রোগীর সিরোটিক লিভারের পুরোটিই কেটে ফেলা হয়)।উপাচার্য বলেন, বাংলাদেশে প্রতিবছর ৮০ লাখ মানুষ লিভার রোগে আক্রান্ত হয়। এর মধ্যে মারা...