ন্যাভিগেশন মেনু

শাইখুল ইসলাম রতন

Staff Correspondent
শাইখুল ইসলাম রতন
Jul 08, 2024

জাতীয়

ধানমন্ডির কার্যালয়ে মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের আকস্মিক বৈঠক

ধানমন্ডির কার্যালয়ে মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের আকস্মিক বৈঠক

ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে আজ (সোমবার) দুপুরে মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীদের উপস্থিতিতে এক রুদ্ধদ্বার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। আকস্মিক এই বৈঠক কি বিষয়ে আলোচনা হয়েছে সে সম্পর্কে পরিষ্কার কোনো বক্তব্য পাওয়া না গেলেও বৈঠকে কোটা আন্দোলন ও সর্বজনীন পেনশনের প্রত্যয় স্কিম নিয়ে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের  আন্দোলন মূল আলোচ্য বিষয় ছিল বলে জানা গেছে।বৈঠক শেষে সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয় ত্যাগ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তবে তিনি এ সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের পর বেরিয়ে আসেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনিও গণমাধ্যমের সঙ্গে কোনো কথা বলেননি।এরপর বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখোমুখি হন শিক্ষামন্ত্রী এবং তথ্য প্রতিমন্ত্রী। তবে তারাও বৈঠকের আলোচ্য বিষয় সম্পর্কে পরিষ্কার কোনো বক্তব্য দেননি।তথ্য প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, সামগ্রিক বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। রাজনৈতিক, সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে৷ এটা রুটিন একটা বিষয়। আজকের বসার বিষয়টা আপনারা জেনেছেন, এই বসাটা নিয়মিত। আমরা নিয়মিতই বসি। বিভিন্ন জায়গায় বসা হয়।কোটা নিয়ে আলোচনা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, নির্দিষ্ট কোন বিষয় নিয়ে নয়। বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচলা হয়েছে।শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, নানা বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি, আসলে সেগুলো নিয়ে এই মুহূর্তে গণমাধ্যমের সঙ্গে আলোচনার মতো বিষয় নয়।কোটা আন্দোলন প্রসঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আদালতে যে বিষয়টি বিচারাধীন আছে, আমরা এ বিষয়ে এই মুহূর্তে কোনো মন্তব্য করব না। সেটা আদালতের বিষয়। যেহেতু আদালতে যে বিষয়টি বিচারাধীন আছে সে বিষয়ে আমরা মন্তব্য করব না। অপেক্ষা করতে হবে। সরকার তো আপিল করেছে। সুতরাং আমি এ বিষয়ে মন্তব্য করব না।উল্লেখ্য, সারাদেশে ছড়িয়ে পড়া কোটাবিরোধী আন্দোলনে ব্যাহত হচ্ছে স্বাভাবিক জনজীবন। বিশেষ করে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধে স্থবির হয়ে পড়ছে রাজধানী ঢাকা।আকস্মিক এই রুদ্ধদ্বার এ বৈঠকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী সামছুন্নাহার চাঁপা এবং তথ্য প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত এ বৈঠকে অংশ নেন।...


Jul 07, 2024

জাতীয়

প্রশাসনের নীরবতায় সীমান্ত দিয়ে অবাধে আসছে মাদক

প্রশাসনের নীরবতায় সীমান্ত দিয়ে অবাধে আসছে মাদক

দেশের বিভিন্ন সীমান্ত দিয়ে অবাধে প্রবেশ করছে মাদকদ্রব্য। প্রশাসনের নীরবতায় মাদকের ভয়ঙ্কর থাবায় দেশজুড়ে বাড়ছে অপরাধ।  আন্তর্জাতিক অপরাধ চক্র মাফিয়াদের যোগসাজশে মিয়ানমার থেকে টেকনাফ হয়ে মাদকের চালান প্রবেশ করছে বাংলাদেশে। এছাড়াও রয়েছে মাদকের বিভিন্ন রুট। বিমানবন্দর থেকে শুরু করে স্থল, সমুদ্র, সীমান্ত পথে প্রতিনিয়ত ধরা পড়ছে মাদকের চালান। দেশজুড়ে বিশাল জাল বিস্তার করে আছে মরণ নেশার ভয়াবহ সিন্ডিকেট।মাদকের কারনে প্রতিনিয়ত বাড়ছে অপরাধ । ছিনতাই, চুরি, ডাকাতি লুণ্ঠন, রাহাজানি, ধর্ষণ, হত্যা, পতিতাবৃত্তি, অপরহরণ, মুক্তিপণ আদায়, চাঁদাবাজি মত জগণ্য অপকর্ম সংঘটিত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। শুধু মাদকাসক্তের কারনে গত ১০ বছরে মাদকাসক্ত সন্তানের হাতে নৃশংস ভাবে খুন হয়েছে ২০০ বাবা- মা।ইউনাইটেড নেশনস কনফারেন্স অন ট্রেড এন্ড ডেভেলপমেন্ট আস্কটাড এর প্রতিবেদনে জানা যায়, বাংলাদেশ থেকে প্রতি বছর মাদকের কারণে পাচার হচ্ছে ৫ হাজার ১৪৭ কোটি টাকা। মাদক কেনাবেচার অর্থ পাচারের দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থান বিশ্বে ৫ম। এশিয়ার মধ্যে মাদকের টাকা পাচারে বাংলাদেশ অবস্থান শীর্ষে। আঙ্কটাডের প্রতিবেদন অনুযায়ী মাদকের অবৈধ অর্থ প্রবাহে বিশ্ব প্রথম স্থানে রয়েছে মেক্সিকো এরপর যথাক্রমে কলম্বিয়া, ইকুয়েডর, পেরু ও বাংলাদেশ।মাদক দ্রব্য ও নেশা নিরোধ সংস্থার (মানস) এর তথ্যানুযায়ী বাংলাদেশে মাদকাসক্তের সংখ্যা ৮০ লাখ। দেশে বছরে ১ লাখ কোটি টাকার মাদক সেবন করা হয়। যা বাংলাদেশের বাজেটের ২১ শতাংশের বেশি। আর উন্নয়ন বাজেটের ৫৬ শতাংশ।মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের হিসাব অনুযায়ী দেশে এখন পর্যন্ত ২৪ ধরনের মাদক উদ্ধার হয়েছে। তবে বেসরকারি সংস্থার গবেষণা মতে দেশে ৩২ ধরণের মাদক সেবন হয় বলে জানা যায়।বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা পরিচালিত এক জরিপে দেখা যায়, স্বচ্ছল পরিবারের ছেলে-মেয়েদের মধ্যেই মাদকদ্রব্য সেবনের প্রবণতা বেশি। ধনীর দুলাল-দুলালীদের কাছে এটি আভিজাত্যের প্রতীক। ছিন্নমূল শিশু কিশোর থেকে শুরু করে দেশের ১৭ জনের একজন তরুণ-তরুণী নিয়মিত মাদকাসক্ত।এক সময় ভারত সীমান্তবর্তী এলাকা দিয়ে বাংলাদেশে ফেনসিডিল, আর মিয়ানমার সীমান্ত দিয়ে হেরোইন ও ইয়াবার ব্যাপক বিস্তার ঘটলেও সাম্প্রতিক ইয়াবার চেয়ে ভয়ংকর মাদক ‘আইস’ দেশে প্রবেশ করছে।ইয়াবার, আইস এর মত ভয়ংকর মাদক প্রস্তত করতে মিয়ানমার সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় গড়ে উঠেছে মাদক কারখানা। বাংলাদেশে পাঠানো হচ্ছে এসব কারখারায় উৎপাদিত...


May 23, 2024

জাতীয়

৫ কোটি টাকা চুক্তিতে ২০ মিনিটে নৃশংসভাবে খুন করা হয় এমপি আনারকে

৫ কোটি টাকা চুক্তিতে ২০ মিনিটে নৃশংসভাবে খুন করা হয় এমপি আনারকে

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সরকারদলীয় এমপি আনোয়ারুল আজিম আনার চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়ে নৃশংসভাবে খুন হন। তাঁর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।আক্তারুজ্জামান শাহিন নামে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ৫ কোটি টাকায় খুনের কন্ট্রাক্ট দেন সৈয়দ আমানুল্লাহ সাইদ নামে একজনকে। শাহিনের গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহে। তিনি নিহত এমপি আনারের ছোটবেলার বন্ধু। ঠিকাদারি ব্যবসার বাইরেও তাঁর বিরুদ্ধে সোনা চোরাচালান ও হুন্ডি কারবারের অভিযোগ আছে।খুলনার ফুলতলা ডামুডার এলাকার বাসিন্দা আমানুল্লাহ দুই দফায় ২০ বছর কারাগারে ছিলেন। পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টির দুর্ধর্ষ এ ক্যাডার একটি হত্যা মামলায় ১৯৯১ থেকে ১৯৯৭ পর্যন্ত সাত বছর এবং ২০০০ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ১৩ বছর আরেকটি হত্যা মামলায় জেলে ছিলেন।বেশ কিছুদিন ধরে এমপি আনারের সঙ্গে শাহিনের ব্যবসায়িক বিরোধ চলছিল। হুন্ডি ব্যবসার হাজার কোটি টাকা আনার আত্মসাৎ করেন; যা শাহিন আদায় করতে পারছিলেন না। সবশেষে আনারকে দুনিয়া থেকেই সরিয়ে দেওয়ার ভয়ংকর পরিকল্পনা করেন। দায়িত্ব দেন সৈয়দ আমানুল্লাহ সাইদ ওরফে আমানকে।পুলিশ ও গোয়েন্দা সূত্র জানিয়েছেন, ৫ কোটি টাকা চুক্তিতে নৃশংসভাবে খুন করা হয় এমপি আনারকে। এমপি আনার হত্যাকান্ডের কন্ট্রাক্ট নেওয়ার পর শাহিনের সঙ্গেই ৩০ এপ্রিল ভারতে যান। সঙ্গে যান শাহিনের এক গার্লফ্রেন্ড। ওঠেন কলকাতা নিউটাউন অভিজাত এলাকার সঞ্জীবা গার্ডেনসে। এ ভবনেরই ‘ব্লক-৫৬ বিইউ’ ফ্ল্যাটটি আগে থেকেই শাহিনের ভাড়া নেওয়া। তবে ওই ফ্ল্যাটে ঘন ঘন যাতায়াত ছিল জিহাদ ও সিয়াম নামে দুই যুবকের। অনেকটা তত্ত্বাবধায়কের দায়িত্বে ছিলেন জিহাদ ও সিয়াম।ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওয়ারী বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শাহিদুর রহমান রিপনের নেতৃত্বে একটি দল মোহাম্মদপুর থেকে প্রথমে আমানুল্লাহ নামে একজনকে আটক করার পরই চাঞ্চল্যকর এ ঘটনার জট খুলতে শুরু করে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তাঁর মুখ থেকে বেরিয়ে আসে ভয়ংকর সব তথ্য। পরে আটক করা হয় ফয়সল ওরফে জুয়েলকে। ডেকে নেওয়া হয় শিলাস্তি নামে এক যুবতীকে।ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা হেফাজতে থাকা আমানুল্লাহ এরই মধ্যে মুখ খুলতে শুরু করেছেন। তাঁর বরাত দিয়ে মামলার তদন্তসংশ্লিষ্টরা বলছেন, মূল পরিকল্পনাকারী শাহিন ও আমানুল্লাহ ৩০ এপ্রিল কলকাতায় যান।পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বিধাননগরের নিউটাউন এলাকায় সঞ্জীবা গার্ডেনসের একটি আধুনিক ফ্ল্যাটে এমপি আনারকে...


May 23, 2024

জাতীয়

৫ কোটি টাকা চুক্তিতে ২০ মিনিটে নৃশংসভাবে খুন করা হয় এমপি আনারকে

৫ কোটি টাকা চুক্তিতে ২০ মিনিটে নৃশংসভাবে খুন করা হয় এমপি আনারকে

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সরকারদলীয় এমপি আনোয়ারুল আজিম আনার চিকিৎসার জন্য ভারতে গিয়ে নৃশংসভাবে খুন হন। তাঁর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।আক্তারুজ্জামান শাহিন নামে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ৫ কোটি টাকায় খুনের কন্ট্রাক্ট দেন সৈয়দ আমানুল্লাহ সাইদ নামে একজনকে। শাহিনের গ্রামের বাড়ি ঝিনাইদহে। তিনি নিহত এমপি আনারের ছোটবেলার বন্ধু। ঠিকাদারি ব্যবসার বাইরেও তাঁর বিরুদ্ধে সোনা চোরাচালান ও হুন্ডি কারবারের অভিযোগ আছে।খুলনার ফুলতলা ডামুডার এলাকার বাসিন্দা আমানুল্লাহ দুই দফায় ২০ বছর কারাগারে ছিলেন। পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট পার্টির দুর্ধর্ষ এ ক্যাডার একটি হত্যা মামলায় ১৯৯১ থেকে ১৯৯৭ পর্যন্ত সাত বছর এবং ২০০০ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ১৩ বছর আরেকটি হত্যা মামলায় জেলে ছিলেন।বেশ কিছুদিন ধরে এমপি আনারের সঙ্গে শাহিনের ব্যবসায়িক বিরোধ চলছিল। হুন্ডি ব্যবসার হাজার কোটি টাকা আনার আত্মসাৎ করেন; যা শাহিন আদায় করতে পারছিলেন না। সবশেষে আনারকে দুনিয়া থেকেই সরিয়ে দেওয়ার ভয়ংকর পরিকল্পনা করেন। দায়িত্ব দেন সৈয়দ আমানুল্লাহ সাইদ ওরফে আমানকে।পুলিশ ও গোয়েন্দা সূত্র জানিয়েছেন, ৫ কোটি টাকা চুক্তিতে নৃশংসভাবে খুন করা হয় এমপি আনারকে। এমপি আনার হত্যাকান্ডের কন্ট্রাক্ট নেওয়ার পর শাহিনের সঙ্গেই ৩০ এপ্রিল ভারতে যান। সঙ্গে যান শাহিনের এক গার্লফ্রেন্ড। ওঠেন কলকাতা নিউটাউন অভিজাত এলাকার সঞ্জীবা গার্ডেনসে। এ ভবনেরই ‘ব্লক-৫৬ বিইউ’ ফ্ল্যাটটি আগে থেকেই শাহিনের ভাড়া নেওয়া। তবে ওই ফ্ল্যাটে ঘন ঘন যাতায়াত ছিল জিহাদ ও সিয়াম নামে দুই যুবকের। অনেকটা তত্ত্বাবধায়কের দায়িত্বে ছিলেন জিহাদ ও সিয়াম।ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের ওয়ারী বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার শাহিদুর রহমান রিপনের নেতৃত্বে একটি দল মোহাম্মদপুর থেকে প্রথমে আমানুল্লাহ নামে একজনকে আটক করার পরই চাঞ্চল্যকর এ ঘটনার জট খুলতে শুরু করে। জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে তাঁর মুখ থেকে বেরিয়ে আসে ভয়ংকর সব তথ্য। পরে আটক করা হয় ফয়সল ওরফে জুয়েলকে। ডেকে নেওয়া হয় শিলাস্তি নামে এক যুবতীকে।ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা হেফাজতে থাকা আমানুল্লাহ এরই মধ্যে মুখ খুলতে শুরু করেছেন। তাঁর বরাত দিয়ে মামলার তদন্তসংশ্লিষ্টরা বলছেন, মূল পরিকল্পনাকারী শাহিন ও আমানুল্লাহ ৩০ এপ্রিল কলকাতায় যান।পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বিধাননগরের নিউটাউন এলাকায় সঞ্জীবা গার্ডেনসের একটি আধুনিক ফ্ল্যাটে এমপি আনারকে...


May 20, 2024

জাতীয়

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম ভারতে গিয়ে নিখোঁজ

ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম ভারতে গিয়ে নিখোঁজ

ভারতে গিয়ে ‘নিখোঁজ’ ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ারুল আজীম আনার।ছয় দিন অতিবাহিত হলেও ভারতে গিয়ে এমপি আনারের কোনও সন্ধান না পাওয়ায় বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় নেতাকর্মীদের মাঝে চলছে গুঞ্জন। নেতাকর্মী ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা তার সুস্থতা কামনা করে পোস্ট দিচ্ছেন ফেসবুকে ।১১ মে চিকিৎসার জন্য ভারতে যান সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার। দুদিন পরিবার ও দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে তার যোগাযোগ থাকলেও  ১৪ মে থেকে তার সঙ্গে সব ধরনের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। তার ব্যবহৃত হোয়াটসঅ্যাপ নম্বরটিও বন্ধ রয়েছে।এদিকে রবিবার (১৯ মে) সন্ধ্যায় রাজধানীর মিন্টো রোডের ডিবি কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ডিবি প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ জানান, ঝিনাইদহ-৪ আসনের তিনবারের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার ১২ মে দর্শনার গেদে সীমান্ত দিয়ে কলকাতা যান। কলকাতায় পরিচিত গোপাল নামে একজনের বাসায় ওঠেন তিনি। পরদিন ১৩ মে সকালে নাশতা করে ওই বাসা থেকে বেরিয়ে যান। সেদিন সন্ধ্যায় কলকাতায় গোপালের বাসায় যাওয়ার কথা থাকলেও যাননি। এরপর থেকে তার ব্যবহৃত ভারতীয় নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।হারুন অর রশীদ বলেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে কাজ করছি। ভারতীয় বিশেষ টাস্কফোর্স-এসটিএফ’র সঙ্গে যোগাযোগ করেছি। ভারতীয় থানা পুলিশসহ ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গেও কথা বলেছি। তারা আমাদের সহযোগিতা করছেন। ভারতীয় পুলিশের সহযোগিতায় জানতে পেরেছি, আনোয়ারুল আজীমের ভারতীয় নম্বরের লোকেশন মুজাফফরাবাদ, অর্থাৎ উত্তর প্রদেশ। সব মিলিয়ে আমরাও খোঁজ-খবর রাখছি।তিনি বলেন, আনোয়ারুল আজীমের একটি বাংলাদেশি ও আরেকটি ভারতীয় নম্বর ছিল। ১৬ মে সকাল ৭টার দিকে তার নম্বর থেকে দুটি কল আসে। একটি আসে তার এপিএসের নম্বরে, আরেকটি আসে ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টুর নম্বরে। কিন্তু তখন দুজনের কেউই কল রিসিভ করতে পারেননি।তিনি আরও বলেন, সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনারের মেয়ে আমাদের কাছে এসেছেন। মেয়ে ও পরিবারের সদস্যরা তার সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না জানান।তার ব্যবহৃত নম্বরটি মাঝে মাঝে খুলছেন আবার মাঝে মাঝে বন্ধ করছেন। কারা কাজটি করছেন, তিনি কোনও ব্ল্যাকমেইলের শিকার হয়েছেন কিনা, সবকিছুই গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানান।...


May 19, 2024

জাতীয়

ব্যাটারিচালিত রিকশা চালক ও ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ যানবাহনে হামলা

ব্যাটারিচালিত রিকশা চালক ও ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ যানবাহনে হামলা

পুলিশের সাম্প্রতিক ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের অভিযানের প্রতিবাদে মিরপুরের লাঠিসোটা হাতে বিক্ষোভে নেমেছেন চালক ও ব্যবসায়ীরা।রবিবার (১৯ মে) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ব্যাটারিচালিত রিকশা চালক ও ব্যবসায়ীরা বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে তারা মিরপুর-১০ নম্বর মোড়ে অবস্থান নেন। এতে মিরপুর ১০, ১১ ও ১২ নম্বরগামী যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।সকাল ১০টায়  ব্যাটারিচালিত রিকশার চালক ও মালিক একত্রিত হয়ে মিরপুর-১০ থেকে ১১, ১২, ১৩ ও শেওড়াপাড়া রোডে লাঠিসোটা হাতে যানবাহন চলা চলে বাধা প্রদান শুরু করে এতে দুর্ভোগে পড়েন শত শত মানুষ।এ বিষয়ে মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুন্সী সাব্বির আহম্মেদ বাংলাদেশ পোস্ট কে  বলেন, কিছুক্ষণ আগে রিকশাচালকরা মিরপুর-১০ মোড়ে এসে অবস্থান নেন। তারা অটোরিকশা বন্ধের প্রতিবাদে সড়কের বিভিন্ন পাশে বিক্ষোভ শুরু করেন।ব্যাটারিচালিত রিকশার চালক এবং এই ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত অনেকে মিরপুর ১০ নম্বর গোল চত্বর অবরোধ করে রেখেছেন। ফলে ওই এলাকায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। পুলিশের সাম্প্রতিক অভিযানে কারণে তারা এরকম করছেন।এ সময় তারা প্যাডেলচালিত রিকশা চালকদেরও মারধর সহ কয়েকটি বাসে হামলা করেন। পরে তারা মিরপুর ১০ নম্বর গোল চত্বরে এসে অবস্থান নেন।উল্লেখ্য, রাজধানীর অলি-গলিতে দাপিয়ে বেড়ান ব্যাটারিচালিত রিকশা বিপজ্জনক উল্লেখ করে বিভিন্ন সময় এসব রিকশা চলাচল বন্ধের দাবি উঠলেও তা কমছে না। তাই এবার খোদ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এসবের বিষয়ে নির্দেশ দেন।গত ১৫ মে রাজধানীর বনানীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কার্যালয়ে এক সভায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা বন্ধের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, “ব্যাটারিচালিত কোনো গাড়ি যেন ঢাকা সিটিতে না চলে। আমরা ২২টি মহাসড়কে নিষিদ্ধ করেছি। শুধু নিষেধাজ্ঞা নয়, চলতে যেন না পারে সে ব্যবস্থা নিতে হবে।”বিদ্যুৎচালিত তিন চাকার যানগুলো অটো, ইজিবাইকসহ নানা নামে পরিচিত। দুর্ঘটনার জন্য সড়কে মোটরবাইক এবং ইজিবাইকের চলাচলকে দায়ী করেন তিনি।এসময় বিআরটিএ ভবনে মন্ত্রীর সঙ্গে ওই সভায় ঢাকার দুই মেয়রও শহরের মধ্যে এসব ব্যাটারিচালিত যানবাহন চলাচল বন্ধের বিষয়ে তাদের সম্মতি জানান।আগামী ১ অক্টোবর থেকে ব্যাটারিচালিত যান চলাচল বন্ধে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।এ আগে বুধবার (১৪ অক্টোবর) এ সংক্রান্ত...


May 19, 2024

জাতীয়

ব্যাটারিচালিত রিকশা চালক ও ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ যানবাহনে হামলা

ব্যাটারিচালিত রিকশা চালক ও ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ যানবাহনে হামলা

পুলিশের সাম্প্রতিক ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধের অভিযানের প্রতিবাদে মিরপুরের লাঠিসোটা হাতে বিক্ষোভে নেমেছেন চালক ও ব্যবসায়ীরা।রবিবার (১৯ মে) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ব্যাটারিচালিত রিকশা চালক ও ব্যবসায়ীরা বিক্ষোভ শুরু করেন। পরে তারা মিরপুর-১০ নম্বর মোড়ে অবস্থান নেন। এতে মিরপুর ১০, ১১ ও ১২ নম্বরগামী যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।সকাল ১০টায়  ব্যাটারিচালিত রিকশার চালক ও মালিক একত্রিত হয়ে মিরপুর-১০ থেকে ১১, ১২, ১৩ ও শেওড়াপাড়া রোডে লাঠিসোটা হাতে যানবাহন চলা চলে বাধা প্রদান শুরু করে এতে দুর্ভোগে পড়েন শত শত মানুষ।এ বিষয়ে মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুন্সী সাব্বির আহম্মেদ বাংলাদেশ পোস্ট কে  বলেন, কিছুক্ষণ আগে রিকশাচালকরা মিরপুর-১০ মোড়ে এসে অবস্থান নেন। তারা অটোরিকশা বন্ধের প্রতিবাদে সড়কের বিভিন্ন পাশে বিক্ষোভ শুরু করেন।ব্যাটারিচালিত রিকশার চালক এবং এই ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত অনেকে মিরপুর ১০ নম্বর গোল চত্বর অবরোধ করে রেখেছেন। ফলে ওই এলাকায় যান চলাচল বন্ধ রয়েছে। পুলিশের সাম্প্রতিক অভিযানে কারণে তারা এরকম করছেন।এ সময় তারা প্যাডেলচালিত রিকশা চালকদেরও মারধর সহ কয়েকটি বাসে হামলা করেন। পরে তারা মিরপুর ১০ নম্বর গোল চত্বরে এসে অবস্থান নেন।উল্লেখ্য, রাজধানীর অলি-গলিতে দাপিয়ে বেড়ান ব্যাটারিচালিত রিকশা বিপজ্জনক উল্লেখ করে বিভিন্ন সময় এসব রিকশা চলাচল বন্ধের দাবি উঠলেও তা কমছে না। তাই এবার খোদ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এসবের বিষয়ে নির্দেশ দেন।গত ১৫ মে রাজধানীর বনানীতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কার্যালয়ে এক সভায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা বন্ধের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, “ব্যাটারিচালিত কোনো গাড়ি যেন ঢাকা সিটিতে না চলে। আমরা ২২টি মহাসড়কে নিষিদ্ধ করেছি। শুধু নিষেধাজ্ঞা নয়, চলতে যেন না পারে সে ব্যবস্থা নিতে হবে।”বিদ্যুৎচালিত তিন চাকার যানগুলো অটো, ইজিবাইকসহ নানা নামে পরিচিত। দুর্ঘটনার জন্য সড়কে মোটরবাইক এবং ইজিবাইকের চলাচলকে দায়ী করেন তিনি।এসময় বিআরটিএ ভবনে মন্ত্রীর সঙ্গে ওই সভায় ঢাকার দুই মেয়রও শহরের মধ্যে এসব ব্যাটারিচালিত যানবাহন চলাচল বন্ধের বিষয়ে তাদের সম্মতি জানান।আগামী ১ অক্টোবর থেকে ব্যাটারিচালিত যান চলাচল বন্ধে গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)।এ আগে বুধবার (১৪ অক্টোবর) এ সংক্রান্ত...


Feb 19, 2024

জাতীয়

অভিনয়শিল্পী রূপা খানের পরিবার মহান মুক্তিযুদ্ধের স্বীকৃতি চায়

অভিনয়শিল্পী রূপা খানের পরিবার মহান মুক্তিযুদ্ধের স্বীকৃতি চায়

ষাট-সত্তরের দশকে মঞ্চ, বেতার, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রে লোককাহিনীভিত্তিক  রাজরাণী'র চরিত্রে অভিনয় করে সকলের নজর কারেন অভিনেত্রী রূপা খান (কোহিনুর বেগম) এর মৃত্যুবার্ষিকী আজ ।রূপা খান (কোহিনুর বেগম) ১৯৩০ সালের ১৪ আগস্ট, মাদারীপুর জেলায এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তিনি পঞ্চাশের দশকে ঢাকার মঞ্চের জনপ্রিয় নাট্যশিল্পী ছিলেন। পরবর্তীতে বেতারনাটকে কাজ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৬১ বছর। মৃত্যুদিবসে এই অভিনেত্রীর স্মৃতির প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা জানান মঞ্চ, বেতার, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের একসময়ের সহ সাথীরা।মহান মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী সময় বাংলাদেশে শিল্প-সংস্কৃতিজগতকে এগিয়ে নিতে  অভিনয়শিল্পী রূপা খান মঞ্চ, বেতার, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রে নিয়মিত অভিনয় শুরু করেন। এদেশের চলচ্চিত্রের শুরুর দিকের এসব গুণি অভিনয়শিল্পীদের আজ অনেকেই ভুলতে বসেছে। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের সূচনাপর্বের পর, আমাদের চলচ্চিত্রশিল্পকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে যাদের সব চাইতে বেশী অবদান, তাদেরই একজন ছিলেন এই মহান অভিনয়শিল্পী রূপা খান।যদিও বেশীরভাগ নাটক-চলচ্চিত্রেই নেগেটিভ চরিত্রে অভিনয় করতেন। তবে কিছু কিছু ছবিতে আদর্শবান মা ও ভাবীর চরিত্রেও অভিনয় করেছেন তিনি। মঞ্চ, বেতার, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র সহ লোককাহিনী ভিত্তিক প্রায় সব চলচ্চিত্রেই তাঁকে দেখা যেতো রাজরাণী'র চরিত্রে অভিনয় করতে।উল্লেখ যে, রূপা খান এর অভিনীত চলচ্চিত্রসমূহের মধ্যে- জোয়ার এলো, রাজা সন্ন্যাসী, রহিম বাদশাহ ও রূপবান, জুলেখা, কূঁচবরন কন্যা, সুয়োরানী দুয়োরানী, চম্পাকলি, এতটুকু আশা, মানুষ অমানুষ, দীপ নিভে নাই, জীবন তৃষ্ণা, ভাড়াটে বাড়ী, আমার বউ, ময়ুরপংখী, গৃহবিবাদ, সারেন্ডার, দুই জীবন উল্লেখযোগ্য।উল্লেখ্য এই মহান অভিনয়শিল্পী রূপা খান শুধু একজন চলচিত্র, নাট্য, টেলিভিশন অভিনেত্রীই ছিলেন না। মহান মুক্তিযুদ্ধ কালীন সময় শরীয়তপুর- মাদারীপুর জেলার মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্ব গ্রহন করে আওয়ামীলীগের সাবেক সংসদীয় মহিলা হুইপ খালেদা খানমকে শরিয়তপুর জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে পাশে রেখে সমগ্র শরীয়তপুর- মাদারীপুর জেলার নারী, যুবকদেরকে সঙ্গে নিয়ে দেশ কে স্বাধীন করতে মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পরেন। শুধু দেশকে স্বাধীন করতে হবে এই সংকল্প নিয়ে ঢাকা থেকে পরিবার সহ রাতের আধারে পালিয়ে  শরিয়তপুরে সকল গ্রামীন বাধা আপত্তি পেরিয়ে  নিজ শশুরালয়ে মুক্তিবাহিনী ক্যাম্প প্রতিষ্ঠা করে   মুক্তিযুদ্ধ পরিচালনা করেন।মরহুম রুপা খান (যুদ্ধ কালীন মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি) ও...


Jan 31, 2024

জাতীয়

বই মেলায় নাশকতা ও জঙ্গি হামলার সুনির্দিষ্ট কোনও হুমকি নেই - ডিএমপি কমিশনার

বই মেলায় নাশকতা ও জঙ্গি হামলার সুনির্দিষ্ট কোনও হুমকি নেই - ডিএমপি কমিশনার

সুনির্দিষ্ট কোনও হুমকি নেই তবু জঙ্গিদের কথা মাথায় রেখে সাজানো হয়েছে বইমেলার নিরাপত্তা ব্যবস্থা বলেন জানান ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার হাবিবুর রহমান।বইমেলা অসাম্প্রদায়িক আয়োজন। আমরা এই আয়োজনকে বিভিন্ন সময় হুমকির মুখে পড়তে দেখেছি। এখানে নাশকতা ও জঙ্গি তৎপরতার অতীত ঘটনা রয়েছে। এই বিষয়টি স্পষ্টভাবে মাথায় রেখে নিরাপত্তা পরিকল্পনা সাজানো হয়েছে।বুধবার (৩১ জানুয়ারি) বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর শাহবাগের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের একুশে বইমেলা উপলক্ষে ডিএমপির নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শনে এসে কমিশনার বলেন, এবারের বইমেলায় জঙ্গি হামলার কোনও হুমকি নেই। এরপরও জঙ্গি হামলাসহ সম্ভাব্য সব দিক মাথায় রেখে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।হাবিবুর রহমান বলেন, বইমেলায় ডিএমপির পক্ষ থেকে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। মেলায় একটি পুলিশ কন্ট্রোলরুম বসানো হয়েছে। এর মাধ্যমে মেলা ও এর আশপাশ পর্যবেক্ষণ করা হবে। নিয়মিত গোয়েন্দা নজরদারির পাশাপাশি মেলায় প্রবেশপথে কয়েক ধাপে নিরাপত্তা তল্লাশি করা হবে। মেলার ভেতর-বাহিরে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা, ওয়াচ টাওয়ারসহ নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।কমিশনার আরও বলেন, এবারের বই মেলায় দর্শনার্থীদের যাতায়াতের সুবিধা বাড়বে। মেট্রোরেলের একটি স্টেশন মেলার গা ঘেঁষে হওয়ায় এবারের মেলায় বিশেষ একটি সুবিধা যুক্ত হয়েছে। এছাড়া সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ইঞ্জিনিয়ার ইনস্টিটিউট গেট খুলে দেওয়া হচ্ছে এতে দর্শনার্থীদের মেলায় প্রবেশ সহজ হবে।উল্লেখ্য , ‘পড় বই, গড় দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’—এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) আনুষ্ঠানিকভাবে বিকাল ৩টায় বই মেলার উদ্বোধন করবেন।...


Jan 23, 2024

জাতীয়

রাজধানী ঢাকার ৯টি কেন্দ্রে শুরু হয়েছে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন টিকাদান কর্মসূচী

রাজধানী ঢাকার ৯টি কেন্দ্রে শুরু হয়েছে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন টিকাদান কর্মসূচী

রাজধানী ঢাকার ৯টি কেন্দ্রে শুরু হয়েছে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন টিকাদান কর্মসূচী। কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ব্যবস্থাপনা টাস্কফোর্স বিভাগের সদস্য সচিব ডা. মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।প্রাথমিক পর্যায়ে ঢাকা শহরের ৯টি কেন্দ্রে বুস্টার ডোজ অর্থাৎ ৩য় এবং চতুর্থ ডোজ ফাইজার ভিসিভি ভ্যাকসিন প্রদানের কর্মকাণ্ড শুরু হয়েছে। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সম্মুখসারির স্বাস্থ্যকর্মী, ৬০ বছর এবং তদূর্ধ্ব বয়সী জনগোষ্ঠী, দীর্ঘমেয়াদি রোগে আক্রান্ত ১৮ বছর এবং তদূর্ধ্ব বয়সী জনগোষ্ঠী, স্বল্প রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাসম্পন্নপ্রাপ্ত বয়স্ক (১৮ বছর এবং তদূর্ধ্ব) জনগোষ্ঠী ও অন্তঃসত্ত্বা নারীদের প্রাধান্য দিয়ে টিকা কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে।প্রাথমিক পর্যায়ে ঢাকা শহরের ৯টি কেন্দ্রে বুস্টার ৩য় এবং ৪র্থ ডোজ ফাইজার ভিসিভি ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। কেন্দ্রগুলো হলো— বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ মিডফোর্ড হাসপাতাল, শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, মুগদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল, ফুলবাড়িয়া সরকারি কর্মচারী হাসপাতাল, জাতীয় নাক কান গলা ইনস্টিটিউটসহ ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকার কিছু জায়গায় টিকা দেওয়া হচ্ছে।মঙ্গলবার (২৩ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ব্যবস্থাপনা টাস্কফোর্স বিভাগের সদস্য সচিব ডা. মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন বলেন, ‘আমরা প্রয়োজনীয় টিকা কেন্দ্রে পাঠিয়ে দিয়েছি। টিকা কার্যক্রম চলছে’। সবাইকে সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে গিয়ে টিকা নেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন ব্যবস্থাপনা টাস্কফোর্স বিভাগের সদস্য সচিব ডা. মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন সই করা এক বিজ্ঞপ্তিতে জানান, দেশব্যাপী আবারও করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে ফাইজার কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম শিগগিরই শুরু করতে যাচ্ছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।এতে আরও বলা হয়েছে, নতুন কোনো রূপ ছড়ানোর আশঙ্কা না থাকলেও দ্রুত টিকা দেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর। এরপর ঢাকার বিভিন্ন বিশেষায়িত প্রতিষ্ঠান ও সরকারি হাসপাতাল, ঢাকার বাইরে সরকারি মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল এবং জেলা পর্যায়ের হাসপাতালে ভ্যাকসিন বিতরণের মাধ্যমে ধাপে ধাপে কোভিড-১৯ টিকাদান কার্যক্রম পরিচালিত হবে।   ৩য় ও ৪থ ডোজ টিকা প্রাপ্তির প্রমাণ হিসেবে কোভিড-১৯ টিকাদান কার্ডে উল্লেখিত ভ্যাকসিনের নাম ও তারিখ সহ সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রে প্রদান করা হবে। 3য় এবং 4র্থ ডোজ টিকা দেওয়ার...


Jan 14, 2024

জাতীয়

সরকারের বিরুদ্ধে গুজব তথ্য প্রচারকারীদের বিরুদ্ধেও কাজ করবে তথ্যমন্ত্রণালয়

সরকারের বিরুদ্ধে গুজব তথ্য প্রচারকারীদের বিরুদ্ধেও কাজ করবে তথ্যমন্ত্রণালয়

দেশে-বিদেশে সরকারের বিরুদ্ধে গুজব তথ্য প্রচারকারীদের বিরুদ্ধেও কাজ করা হবে বলে জানিয়েছেন সদ্য দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাত।রোববার (১৪ জানুয়ারি) সচিবালয়ে নিজ মন্ত্রণালয়ে উল্লেখিত অভিযোগ করেন সাংবাদিকদের  তিনি বলেন, দেশে-বিদেশে সরকারের বিরুদ্ধে গুজব রটানো হচ্ছে । গুজব প্রতিরোধে কাজ করবে তথ্য মন্ত্রণালয়। সেক্ষেত্রে সদ্য সাবেক মন্ত্রীর পরামর্শ নেয়ার কথাও জানান মোহাম্মদ আরাফাত।দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষে ঘোষিত নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা আজ রোববার থেকে নিজ নিজ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব বুঝে নিয়ে তাদের প্রথম অফিস শুরু করেছেন। দায়িত্ব বুঝে নেওয়ার পাশাপাশি সকলের সঙ্গে পরিচিত পর্ব সেরে নিয়েছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী মোহাম্মদ আলী আরাফাতও।সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, সব মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীদের নেমপ্লেট আগেই পরিবর্তন করা হয়েছে। আজ মন্ত্রীরা সচিবালয়ে পৌঁছলে তাদের ফুলেল অভ্যর্থনা জানান সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সচিবরা। মন্ত্রিসভার নতুন সদস্যদের বরণ করার জন্য আগে থেকেই প্রস্তুতি শেষ করে স্ব স্ব মন্ত্রণালয়। সচিবের নেতৃত্বে পদস্থ কর্মকর্তারা তাদের বরণ করেন।এদিকে, নতুন তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে সাবেক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সাংবাদিকদের অধিকার নিশ্চিতে সরকার কাজ করেছে। দায়িত্বপ্রাপ্ত তথ্য প্রতিমন্ত্রী সেই ধারাবাহিকতা রক্ষা করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।উল্লেখ্য যে, নতুন সরকারের মন্ত্রিসভায় স্থান পাওয়া মন্ত্রীদের শপথ অনুষ্ঠানের পর তাদের দপ্তর বণ্টন করে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগের মন্ত্রিসভার বেশ কয়েকজন সদস্য নতুন মন্ত্রিসভায়ও স্থান পেয়েছেন। কারও কারও পূর্বের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রণালয়ও একই আছে। তবে এবারের মন্ত্রিসভায় নতুন মুখই বেশি।নতুনদের মধ্যে জায়গা পেয়েছেন আওয়ামী লীগের গবেষণাধর্মী কার্যক্রম ও তথ্য-প্রযুক্তি সম্পর্কিত বিষয়গুলোর দেখভাল করা ‘থিংক ট্যাংক’-এর সদস্য হিসেবে পরিচিত অধ্যাপক মোহাম্মদ এ আরাফাত। আরাফাত জাতীয় নির্বাচনে এই প্রথমবার অংশ নেন। যদিও তিনি এর আগে একই আসনে (ঢাকা-১৭) উপনির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন।...


Jan 06, 2024

জাতীয়

বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ট্রেনে আগুন দগ্ধ চিকিৎসাধীন আটজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ট্রেনে আগুন দগ্ধ চিকিৎসাধীন আটজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক

রাজধানীর গোপীবাগ এলাকায় ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ট্রেনে আগুনে দগ্ধ শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন আটজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছে বার্ন ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন।শনিবার শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন সংবাদ সম্মেলনে মাধ্যমে তিনি বলেন, ‘এখানে ভর্তি আট জন। বার্নের পার্সেন্টেজ বেশি না, কারও ৯ পার্সেন্ট, ৮ পার্সেন্ট। অনেকের বাইরে কোনো বার্নই হয়নি। সবচেয়ে বিপদজনক হলো, তাদের সবারই শ্বাসনালী পুড়ে গেছে।’ তাদের সবারই অবস্থা আশঙ্কাজনক। সবাইকেই আমরা পর্যবেক্ষণে রেখেছি। এছাড়া আহত অনেকেই চিকিৎসাধীন রয়েছে।তিনি আরও বলেন, ‘কোনো রোগী এখনও ঝুঁকিমুক্ত নন। যতক্ষণ পর্যন্ত তারা বাসায় না যাবে তাদেরকে আমরা আশঙ্কামুক্ত বলতে পারি না। আরেকটা কথা বলতে পারি, যখনই তারা ভালো হয়ে যাবে তাদের যে মেন্টাল ট্রমা আমি দেখলাম, একটা বাচ্চা ভয় পাচ্ছে; চিৎকার শুনে ভয় পায়, রোগীরা ভীষণ আতঙ্কিত। এ আতঙ্ক যে কবে কাটবে এটা বলা যায় না। এটার দীর্ঘ মেয়াদী চিকিৎসার দরকার।’উল্লেখ্য, শুক্রবার (৫ জানুয়ারি) রাত ৯টার দিকে রাজধানীর গোপীবাগ এলাকায় ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ট্রেনে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিটের চেষ্টায় রাত ১০টা ২০ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। আগুনে পুড়ে দুই নারী, এক শিশুসহ চার জনের মৃত্যু হয়।...


Dec 10, 2023

জাতীয়

গ্যাসের পাশাপাশি জ্বালানি তেলের সন্ধান মিলেছে সিলেটে

গ্যাসের পাশাপাশি জ্বালানি তেলের সন্ধান মিলেছে সিলেটে

১০ নম্বর অনুসন্ধান কূপে গ্যাসের পাশাপাশি জ্বালানি তেলের সন্ধান পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।রবিবার (১০ ডিসেম্বর) সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি বলেন, বিজয়ের মাসে সবার জন্য ‘বিরাট সুখবর’ সিলেট তামাবিল-জাফলং মহাসড়কের পাশে গোয়াইনঘাট উপজেলার আলীরগাও ইউনিয়নের বাঘের সড়ক এলাকায় অবস্থিত ১০ নম্বর অনুসন্ধান কূপে গ্যাসের পাশাপাশি দৈনিক ৫০০ থেকে ৬০০ ব্যারেল হারে তেল পাওয়া যাবে।গত শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) পরীক্ষা করে তেলের উপস্থিতি পাওয়া যায়। প্রাথমিকভাবে এপিআই গ্রাভিটি ২৯ দশমিক ৭ ডিগ্রি। সেলফ প্রেসারে প্রতি ঘণ্টায় ৩৫ ব্যারেল তেলের প্রবাহ পাওয়া যাচ্ছে। পরীক্ষা সম্পন্ন হলে মোট তেলের মজুদ জানা যাবে।একযোগে উৎপাদন করা হলে এই কূপটি প্রায় ৮ থেকে ১০ বছর সাসটেইন করবে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘গড় ভারিত মূল্য হিসেবে এর মূল্য প্রায় ৮ হাজার ৫০০ কোটি টাকা। যদি ২০ মিলিয়ন ঘনফুট হারে উৎপাদন করা হয়, তাহলে কূপটি ১৫ বছরেরও বেশি সময় সাসটেইন করবে।’এছাড়াও ২ হাজার ৪৬০ থেকে ২ হাজার ৪৭৫ মিটার গভীরে আরও একটি গ্যাস স্তর পাওয়া গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এখানে পরীক্ষা করলে ২৫ থেকে ৩০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস পাওয়া যাবে বলে জানান । আর ২ হাজার ২৯০ থেকে ২ হাজার ৩১০ মিটার গভীরেও গ্যাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়।গ্যাস ছাড়াও উপরের দিকে ১ হাজার ৩৯৭ থেকে ১ হাজার ৪৪৫ মিটার গভীরতায় আরও একটি জোন পাওয়া গেছে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।এর আগেও ১৯৮৬ সালে হরিপুরে তেলের অস্থিত্ব পাওয়া গিয়েছিল উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘সেই কূপটির স্থায়িত্ব ছিল পাঁচ বছর। সেখানে গ্রাভিটি পাওয়া গিয়েছিল এপিআই গ্রাভিটি ২৭ ডিগ্রি। আর এবার যে তেলের মজুত পাওয়া যাচ্ছে। সেই তেল পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে। এর এপিআই গ্রাভিটি ২৯ দশমিক ৭ ডিগ্রি বলে জানান বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।’প্রতি মন্ত্রী আরও বলেন,’প্রথম দিনে দুই ঘণ্টায় ৭০ ব্যারেলের মতো তেল উত্তোলন করা হয়েছে ‘তেল উত্তোলন আমরা আপাতত বন্ধ রেখেছি। এটা আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে হবে, মোট মজুদের পরিমাণটা আমরা জানতে পারবো। পুরো বিষয়টির বিস্তারিত জানতে আরও চার...


Nov 29, 2023

জাতীয়

রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বাড়াচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)

রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বাড়াচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)

ব্যক্তিশ্রেণির করদাতাদের বার্ষিক আয়কর বিবরণী বা রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় বাড়াচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। আগামী ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত জরিমানা ছাড়া রিটার্ন জমা দেওয়ার আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা আসতে পারে কাল বৃহস্পতিবার। চলমান রাজনৈতিক অস্থিতিশীল ও আয়করের নতুন আইনের কারণে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় আরো এক মাস বাড়াচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।  এক মাস বাড়ালে ডিসেম্বর মাস জুড়ে আয়কর রিটার্ন জমা দিতে পারবেন স্বাভাবিক ব্যক্তি করদাতারা। অর্থ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন সূত্রে এ তথ্য জানা যায়।সূত্র আরো জানায়, রিটার্ন জমার সময় বাড়ানো হতে পারে কোম্পানি করদাতাদের ক্ষেত্রেও।এর আগে আয়কর রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় আরো এক মাস বৃদ্ধির জন্য ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এফবিসিসিআই) ও ঢাকা ট্যাক্সবারসহ কয়েকটি মহল থেকে এনবিআরে আবেদনের এর প্রেক্ষিতে সময় বাড়াতে অর্থমন্ত্রীকে চিঠি দেয় এনবিআর।কর্মকর্তারা জানান, সময় বাড়াতে সায় দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বৃহস্পতিবার এনবিআরের জনসংযোগ বিভাগ সময় বাড়ানোর নোটিশ জারি করতে পারে।সূত্র জানায়, কোম্পানি করদাতার রিটার্ন জমার সময়ও বাড়ছে বলে জানিয়েছেন এনবিআর কর্মকর্তারা। তারা জানান, জরিমানা ছাড়া রিটার্ন জমা দিতে পারবে কোম্পানি করদাতারাও।আইন অনুযায়ী, ব্যক্তি করদাতার রিটার্ন জমার সময় শেষ হচ্ছে আগামীকাল ৩০ নভেম্বর। আর কোম্পানি করদাতার রিটার্ন জমার শেষ সময় ১৫ জানুয়ারি।উল্লেখ্য যে, এর আগে আরও একটি সংগঠন রিটার্ন জমা দেওয়ার সময়সীমা বৃদ্ধির আবেদন করেছে। ঢাকা ট্যাক্সেস বার অ্যাসোসিয়েশন রিটার্ন জমা দেওয়ার সময়সীমা আরও দুই মাস বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে। গত ৮ নভেম্বর এনবিআর চেয়ারম্যানকে চিঠি দিয়েছেন সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক।...


Nov 28, 2023

জাতীয়

ডিজিটাল ‘জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২’ দেশের মোট জনসংখ্যা প্রকাশ

ডিজিটাল ‘জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২’ দেশের মোট জনসংখ্যা প্রকাশ

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো দেশের প্রথম ডিজিটাল ৬ষ্ঠ ‘জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২’ এর ন্যাশনাল রিপোর্ট প্রকাশ করেন। দেশের মোট জনসংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৬ কোটি ৯৮ লাখ ২৮ হাজার ৯১১ জনে।মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের আওতাধীন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো (বিবিএস) দেশের প্রথম ডিজিটাল ‘জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২’ এর ন্যাশনাল রিপোর্ট পরিসংখ্যান ভবন অডিটোরিয়ামে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রকল্প পরিচালক মো. দিলদার হোসেনএই রিপোর্ট উপস্থাপন করেন।  বিবিএস জানায়, মোট জনসংখ্যার ৬৮ দশমিক ৩৪ শতাংশ পল্লিতে এবং ৩১ দশমিক ৬৬ শতাংশ শহরাঞ্চলে বসবাস করে। বিভাগভিত্তিক উপাত্ত পর্যবেক্ষণে দেখা যায়, সমন্বয়কৃত মোট জনসংখ্যার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঢাকায় ৪ কোটি ৫৬ লাখ ৪৪ হাজার ৫৮৬ জন।পর্যায়ক্রমে চট্টগ্রামে ৩ কোটি ৪১ লাখ ৭৮ হাজার, রাজশাহীতে ২ কোটি ৮০ হাজর, রংপুরে ১ কোটি ৮০ লাখ ২০ হাজার ৭১, খুলনায় ১ কোটি ৭৮ লাখ ১৩ হাজার ২১৮, ময়মনসিংহে ১ কোটি ২৬ লাখ ৩৭ হাজাার, ৪৭২ সিলেটে ১ কোটি ১৪ লাখ ১৫ হাজার ১১৩ এবং সবচেয়ে কম বরিশালে ৯৩ লাখ ২৫ হাজার ৮২০ জন।এর মধ্যে পুরুষ ৮ কোটি ৪১ লাখ ৩৪ হাজার, নারী ৮ কোটি ৫৬ লাখ ৮৬ হাজার ৭৮৪ ও তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ ৮ হাজার ১২৪ জন।উল্লেখ্য যে, জনশুমারি ও গৃহগণনা-২০২২-এর মাধ্যমে বাংলাদেশের ভৌগোলিক সীমানাবেষ্টিত অঞ্চলের সব গৃহ, সাধারণ, প্রাতিষ্ঠানিক ও বস্তি খানা (পরিবার), ভাসমান জনগোষ্ঠী, খানায় বসবাসরত সব সদস্যের জনমিতিক ও আর্থসামাজিক তথ্য তুলে আনা হয়।যেমন: গৃহের সংখ্যা ও ধরন, বাসস্থানের মালিকানা, খাবার পানির প্রধান উৎস, টয়লেটের সুবিধা, বিদ্যুৎ সুবিধা, রান্নার জ্বালানির প্রধান উৎস, অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড, বৈদেশিক রেমিট্যান্স, খানা সদস্যের বয়স, লিঙ্গ, বৈবাহিক অবস্থা, ধর্ম, প্রতিবন্ধিতা, শিক্ষা, কর্ম, প্রশিক্ষণ, মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেট ব্যবহার, ব্যাংক মোবাইল ব্যাংকিং অ্যাকাউন্ট, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী, জাতীয়তা, নিজ জেলা প্রভৃতি বিভিন্ন বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হয়।অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর মহাপরিচালক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম. এ. মান্নান, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব, ড. শাহনাজ আরেফিন এনডিসি, সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য ড. মো. কাউসার আহাম্মদ।...


Nov 25, 2023

জাতীয়

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ আগামীকাল রোববার

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশ আগামীকাল রোববার

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হতে যাচ্ছে আগামী রোববার (২৬ নভেম্বর)। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেবেন শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানরা। পরে বেলা ১১টার দিকে সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিকভাবে ফল ঘোষণা করবেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।ফলা ফলের  অপেক্ষায় রয়েছেন কলেজ, মাদরাসা ও কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সাড়ে ১৩ লাখেরও বেশি শিক্ষার্থী সহ বিদেশী কেন্দ্র থেকে পরীক্ষায় অংশ নেওয়া ৩২৭ পরীক্ষার্থীও।আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার বলেন, ‘ফল প্রকাশের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফলাফলের সারসংক্ষেপ তুলে দেবেন শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানরা। ১১টায় রাজধানীর সেগুনবাগিচায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে সংবাদ সম্মেলন করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আনুষ্ঠানিকভাবে ফল ঘোষণা করবেন এরপর স্ব স্ব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও শিক্ষা বোর্ডগুলোর ওয়েবসাইটে একযোগে ফলাফল প্রকাশ করা হবে।উল্লেখ্য যে, চলতি বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয় ১৭ আগস্ট। পরীক্ষায় অংশ নেয় ১৩ লাখ ৫৯ হাজার ৩৪২ জন পরীক্ষার্থী। যা গত বছরের চেয়ে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৯৩৫ জন বেশি। এর মধ্যে ছাত্র ৬ লাখ ৮৮ হাজার ৮৮৭ জন এবং ছাত্রী ৬ লাখ ৭০ হাজার ৪৫৫ জন। সারা দেশে ২ হাজার ৬৫৮টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে পিছিয়ে যাওয়া চট্টগ্রাম, মাদরাসা ও বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা শুরু হয় ২৭ আগস্ট। এ বছর পূর্ণ নম্বর ও পূর্ণ সময়ে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। তবে আইসিটিতে ১০০ নম্বরের পরিবর্তে ৭৫ নম্বরের পরীক্ষা হয়।শিক্ষা বোর্ডের দেওয়া তথ্যানুযায়ী— ফলপ্রার্থী শিক্ষার্থীরা ঘরে বসেই নির্ধারিত ওয়েবসাইটে ও এসএমএসের মাধ্যমে খুব সহজেই ফল জানতে পারবেন।এসএমএসের মাধ্যমে ফল পেতে মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে ইংরেজি অক্ষরে এইচএসসি লিখে স্পেস দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখে স্পেস দিয়ে রোল নম্বর লিখে আবার স্পেস দিয়ে পাসের বছর লিখতে হবে। এরপর ১৬২২২ নম্বরে সেন্ড করতে হবে।উদাহরণ—HSC DHA 123456 2023 লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। সঙ্গে সঙ্গেই ফিরতি এসএমএসে ফল জানিয়ে দেওয়া হবে।অন্যদিকে ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফলাফল জানতে শিক্ষার্থীকে প্রথমে www.educationboardresults.gov.bd-এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে...


Nov 18, 2023

জাতীয়

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতাকর্মীদের পদচারণায় মুখরিত বঙ্গবন্ধু এভিনিউ

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী নেতাকর্মীদের পদচারণায় মুখরিত বঙ্গবন্ধু এভিনিউ

রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের আওয়ামী লীগ অফিসে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের উপচে পড়া ভিড় নেতাকর্মীদের সামাল দিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী হিমশিম।নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু হয়েছে শনিবার (১৮ নভেম্বর) যা চলবে মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত।শনিবার সকালে দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি ও জমা কার্যক্রম উদ্বোধন করেন দলের সভাপতি শেখ হাসিনা। পরে বিভিন্ন বুথ ঘুরে নিজের জন্যও মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন।শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে গোপালগঞ্জ-৩ আসনের দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মাহমুদ আলী খান ও সাধারণ সম্পাদক বিএম সাহাবউদ্দিন আজম। এরপর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা নেতাকর্মী ও দেশবাসীর উদ্দেশে বক্তব্য দেন।দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম বিক্রি ও জমাদানের প্রথম দিনেই উপচে পড়া ভিড়। চাপ সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন আওয়ামী লীগের স্বেচ্ছাসেবকরা। বার বার মাইকে ঘোষণা দিয়েও শৃঙ্খলা রক্ষা করা কঠিন হয়ে যাচ্ছে ।ঢাকঢোল বাজিয়ে নৌকা নিয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আসছেন মনোনয়নপ্রত্যাশী ও নেতাকর্মীরা। কেন্দ্রীয় কার্যালয় ও আশপাশের এলাকা আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের পদচারণায় এখন মুখরিত। দলীয় কার্যালয়ের পাশাপাশি আশপাশের এলাকা চলে যায় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের দখলে।মনোনয়ন পেতে আগ্রহী প্রার্থীদের আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে প্রশাসনিক বিভাগ অনুযায়ী সুনির্দিষ্ট বুথ থেকে দলীয় মনোনয়নের জন্য আবেদনপত্র সংগ্রহ এবং জমা প্রদান করতে হবে। কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের দ্বিতীয় তলায় ঢাকা, ময়মনসিংহ, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগ এবং তৃতীয় তলায় রংপুর, রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের মনোনয়নপত্র বিতরণ করা হবে। কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচ তলায় সকল বিভাগের মনোনয়নপত্র জমা নেয়া হবে।যদিও আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়ার সই করা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেন,আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের কোনো প্রকার অতিরিক্ত লোকসমাগম ছাড়া প্রার্থী নিজে অথবা প্রার্থীর একজন যোগ্য প্রতিনিধির মাধ্যমে আবেদনপত্র সংগ্রহ ও জমা প্রদান করতে হবে। আবেদনপত্র সংগ্রহের সময় অবশ্যই প্রার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি সঙ্গে আনতে হবে এবং ফটোকপির উপর মোবাইল নম্বর ও বর্তমান সাংগঠনিক পরিচয়সহ ৩টি পদ সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ করতে হবে। মঙ্গলবার (২১ নভেম্বর) বিকাল ৪টার মধ্যে...


Nov 16, 2023

জাতীয়

ইউনেস্কো‘র নির্বাহী বোর্ডের সদস্য নির্বাচিত বাংলাদেশ

ইউনেস্কো‘র নির্বাহী বোর্ডের সদস্য নির্বাচিত বাংলাদেশ

ইউনেস্কোর সদর দফতরে ভোটের মাধ্যমে চলতি ২০২৩ থেকে ২০২৭ মেয়াদে ইউনেস্কো‘র নির্বাহী বোর্ডের সদস্য নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশ।বুধবার বোর্ডের সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর শিক্ষামন্ত্রী ইউনেস্কোর স্থায়ী প্রতিনিধি অ্যাম্বাসেডর খন্দকার মো. তালহা, দূতাবাসের প্রথম সচিব ওয়ালিদ বিন কাসেম ও অন্যান্য সহকর্মীদের ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়ে প্যারিসে অবস্থানরত শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রাজ্ঞ, দূরদর্শী, সাহসী নেতৃত্বে অগ্রগামী বাংলাদেশ বিশ্বসভায় সবার প্রশংসা ও আস্থা অর্জন করেছে।প্যারিসের স্থানীয় সময় সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে। নির্বাহী বোর্ডের ১৮৪ সদস্যের মধ্যে ১৮১ সদস্য ভোট প্রদান করেন। বাংলাদেশ ১৪৪ ভোট পেয়ে সদস্য নির্বাচিত হয়।ইউনেস্কো নির্বাহী বোর্ডের নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণার পর ইউনেস্কো মহাপরিচালক অঁদ্রে আজুলে বাংলাদেশের শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনিকে অভিনন্দন জানান এবং আগামী দিনেও একযোগে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।...


Nov 16, 2023

জাতীয়

জনগণই সব ক্ষমতার উৎস সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে - আইনমন্ত্রী

জনগণই সব ক্ষমতার উৎস সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে - আইনমন্ত্রী

আইন বিচার ও সংসদ বিষয়কমন্ত্রী আনিসুল হক জানান, জাতির পিতা যে সংবিধান দিয়েছেন, সেটা অনুযায়ী নির্বাচন হবে। সংবিধানের বাইরে কিছুই করা হবে না। কারণ, জনগণ সেই ম্যান্ডেট আমাদের দেয়নি।বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে আইন বিচার ও সংসদ বিষয়কমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, নির্বাচনে কে আসলো কে না আসলো, কোন রাজনৈতিক দল আসলো, কোন রাজনৈতিক দল আসলো না- সেটা বড় ব্যাপার না। জনগণ যদি ভোট দেয়, সেটাই গ্রহণযোগ্য। এর কারণ হচ্ছে, জনগণই সব ক্ষমতার উৎস।তিনি আরও জানান, ব্যাপারটা হচ্ছে, এ সংবিধান নিয়ে ফুটবল খেলে তারা (বিএনপি) তাদের ইচ্ছামত একজন বিচারপতির বয়স বাড়িয়েছিল, তিনি যেন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের প্রধান উপদেষ্টা হতে পারেন- সেই ব্যবস্থা করেছিলেন। এটা জনগণ মানেনি। সেটা জনগণ না মানার কারণেই কিন্তু একটা তত্ত্বাবধায়ক সরকার আনতে হয়েছিল। যদিও তখন তিন মাস থাকার সুযোগ ছিল, কিন্তু তারা দুই বছর ছিল।আনিসুল হক বলেন, নির্বাচনকে প্রভাবিত করে এমন কোনো কাজ আমরা করবো না। মন্ত্রিপরিষদের আকার ছোট হবে কিনা সেই সিদ্ধান্ত নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আর বিচার বিভাগ সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনায় চলবে, আইন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় চলবে না।প্রতিদিনের কার্যক্রম করবেন সরকারি কর্মকর্তারা। নতুন করে কোনো প্রকল্প গ্রহণ করা হবে না এবং পলিসি পর্যায়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেবে না সরকার। আইন হবে না, কারণ সংসদ বসবে না। নতুন করে কোনো উন্নয়ন কাজের উদ্বোধনও করা হবে না।আইনমন্ত্রী আরও বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। ঠিক গণতান্ত্রিক উপায়ে পার্লামেন্টারি ডেমোক্রেসিতে সিডিউল ঘোষণার পর যেভাবে সরকার চালিত হবে, ঠিক সেভাবেই হবে’।গণতন্ত্রকে সঠিকভাবে চালিত করার জন্য নির্বাচনকালীন সময়ে যে সরকার থাকে তারা পলিসি ডিসিশন নেয় না যাতে একটা লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড থাকে।’...


Nov 14, 2023

জাতীয়

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা বুধ অথবা বৃহস্পতিবার

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা বুধ অথবা বৃহস্পতিবার

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা বুধবার সন্ধ্যায় অথবা বৃহস্পতিবার করতে যাচ্ছে। আগামীকাল বুধবার বিকেল ৫টায় তফসিলের বিষয়ে বৈঠকে শেষে বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার সরাসরি জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) নির্বাচন কমিশন থেকে জানা যায়, সংবিধান অনুযায়ী সংসদের ৫ বছর মেয়াদ শেষ হওয়ার ৯০ দিনের মধ্যে সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের বাধ্যবাধকতা রয়েছে। বর্তমান সংসদের মেয়াদ ২০২৪ সালের ২৯ জানুয়ারি শেষ হবে। এক্ষেত্রে ৯০ দিনের গণনা শুরু হয়েছে গত ১ নভেম্বর থেকে।উল্লেখ্য যে, বৃহস্পতিবার ০৯ নভেম্বর  বৃহস্পতিবার দুপুরে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাত করার পর বঙ্গভবন থেকে বেরিয়ে নির্বাচন কমিশন সাংবাদিকদের বলেন, "দ্রুত আমরা তফসিল ঘোষণা করা হবে, কারণ সময় হয়ে গেছে। আর নির্বাচনের ব্যপারে আমরা বলেছি, প্রথম সপ্তাহে বা দ্বিতীয় সপ্তাহে, আমরা এখনও ওই অবস্থায় আছি‘’ বলে জানান প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের নেতৃত্বে কমিশনের একটি প্রতিনিধি দল।এদিকে , এদিকে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ২৪ মন্ত্রণালয় ও বিভাগের ১৫৭টি প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, নির্বাচন ঘনিয়ে এসেছে। হয়তো দু-একদিনের মধ্যে নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা দেবে।দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য ৩০০ আসনভিত্তিক ভোটার তালিকা চূড়ান্ত করেছে ইসি। এ তালিকা অনুযায়ী সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ করা হবে। এ নির্বাচনে ভোট দেবেন ১১ কোটি ৯৬ লাখ ৯১ হাজার ৬৩৩ জন ভোটার।দেশে মোট ভোটার ১১ কোটি ৯৬ লাখ ৯১ হাজার ৬৩৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৬ কোটি ৭ লাখ ৭১ হাজার ৫৭৯ জন, নারী ভোটার ৫ কোটি ৮৯ লাখ ১৯ হাজার ২০২ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার ৮৫২ জন।এ বিষয়ে ইসির অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ জানিয়েছেন, আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীগুলো চাহিদা দিয়েছে এক হাজার কোটি টাকার বেশি। তবে এটা পর্যালোচনা করে অনুমোদন দেবে কমিশন। সবচেয়ে বেশি চাহিদা পুলিশ ও আনসার থেকে এসেছে।তিনি বলেন, সংসদ নির্বাচনের জন্য সব মিলিয়ে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১ হাজার ৪৪৫ কোটি টাকা। এই ব্যয়ের মধ্যে দুই তৃতীয়াংশ রাখা হয়েছে আইন-শৃ্খৃলা রক্ষায়, আর এক তৃতীয়াংশ রাখা হয়েছে নির্বাচন পরিচালনার পেছনে।...